মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯
মঙ্গলবার, ৫ই চৈত্র ১৪২৫
 
 
বৈশাখকে সামনে রেখে ব্যস্ত কার্তিকপুরের মৃৎশিল্পীরা 
প্রকাশ: ১০:৫০ pm ১৩-০৪-২০১৭ হালনাগাদ: ১০:৫০ pm ১৩-০৪-২০১৭
 
 
 


শরীয়তপুর প্রতিনিধি : শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার কার্তিকপুর পাল পাড়ায় বাংলা নববর্ষ-১৪২৪ কে সামনে রেখে কার্তিকপুরের কুমার পল্লীর মৃৎ শিল্পীদের কর্মচাঞ্চল্য বেড়ে গেছে।

মাটির তৈরি বাসন কোশন আর হাড়ি কলসের চাহিদা না থাকলেও সৌখিন সামগ্রীর চাহিদা এখনও বিদ্যমান রয়েছে।তাই বাংলা শুভ নববর্ষ পহেলা বৈশাখকে সামনে রেখে কার্তিকপুরের পাল পাড়ায় বিরাজ করছে বিরামহীন ব্যস্ততা।

শরীয়তপুর জেলার গ্রামীন মেলা গুলোতে মাটির পুতুল, হাতি ঘোড়াসহ নানান খেলনার সামগ্রীর বিপুল চাহিদার কথা মাথায় রেখে কুমার পল্লীতে নারী পুরুষ শিশুসহ সকলেই এখন ব্যস্ততার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে।

মানুষের সভ্যতার আদি ও ঐতিহ্যবাহী মৃৎ শিল্প বিলুপ্ত প্রায় তার পরেও এ পেশাকে টিকিয়ে রাখার জন্য কম বেশি প্রায় ১২ মাসই কাজ করে যাচ্ছে এই শিল্পীরা। 

পহেলা বৈশাখে বিভিন্ন গ্রাম গঞ্জে এখনও মেলা বসে।আর সেই মেলা উপলক্ষে পাইকাররা দুর দুরান্ত থেকে এসে এ সকল সামগ্রী কিনে নিয়ে যাচ্ছে বৈশাখী মেলায় বিক্রি করার জন্য।অপর দিকে পাইকাররা বলছে মাটির সামগ্রীর চাহিদা না থাকলেও এবার দাম বেশি চাচ্ছে। 

মৃৎ শিল্পীরা বলছে মাটি, জ্বালানি, শ্রমিক সহ সব কিছুর দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় তারা ন্যায্য মূল্য পাচ্ছে না। তার পরেও পহেলা বৈশাখের চাহিদার কথা মাথায় রেখে তারা নতুন নতুন পণ্য তৈরি করে যাচ্ছে। 

কার্তিকপুরের পালপাড়ার ডিজাইনার রূপক পাল বলেন, আমার মৃৎ শিল্পটি ৩৩ বৎসর যাবত কাজ করে চালিয়ে রাখছি। তবে সফলতাও পেয়েছি আমি বাংলাদেশ থেকে একটি কোম্পানি আড়ং এর মাধ্যমে আমার এ মাটির তৈরি পণ্য বিদেশে রপ্তানি করে প্রচুর লাভবান হয়েছি।

সারা বৎসর আমার এই মৃৎ শিল্পের তৈরি পণ্য বিদেশে রপ্তানির জন্য অর্ডার পেয়ে থাকি। কিন্তু আমি চাই আমার এই শিল্পটি আরো বড় হোক যাতে করে আমি সরাসরি দেশের বাহিরের বিক্রি করতে পারি। আমাদের দেশের অনেক বেকার লোকের কর্মস্থান করতে পারি। আর এটাই আমার উদ্দেশ্য। 

রামভদ্রপুর ইউপি চেয়ারম্যান বিপ্লব সিকদার বলেন, আমাদের কার্তিকপুর পালপাড়ার মৃৎ শিল্পের তৈরি জিনিসপত্র এখন ইউরোপ আমেরিকা কানাডাসহ বিভিন্ন দেশে রপ্তানি হয়।

এইবেলাডটকম/সৈকত/এফএআর

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71