মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯
মঙ্গলবার, ১লা শ্রাবণ ১৪২৬
 
 
ভারতের বাইরে দেখার মতো ৩২ টি মন্দির !
প্রকাশ: ০৫:০১ pm ১৭-০২-২০১৯ হালনাগাদ: ০৫:০২ pm ১৭-০২-২০১৯
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


 

 

 

Angkor Wat, Cambodia

1. অঙ্কর ওয়াট , কম্বোডিয়া। 
এটি ছিল একসময় বিশ্বের সবচেয়ে বড় হিন্দু মন্দির। মন্দিটি ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ স্বীকৃত ! ১২০০ সালের দিকে কম্বোডিয়ার রাজা সূর্যবর্মন- মন্দিরটি নির্মাণ করেন। মন্দিরটি নির্মাণ করতে ২৭ বছর সময় লেগেছিলো। 


 

New Vrindaban Temple, West Virginia, U.S.A.

2. নব বৃন্দাবন, পশ্চিম ভার্জিনিয়া, আমেরিকা:  ইস্কন নির্মিত মন্দিরটি ভারতের বৃন্দাবনের মতো করে গড়ে  তোলা হয়েছে। দেখতে অনেক সুন্দর। ওয়াশিন্টন পোস্ট মন্দিরটিকে স্বর্গের সাথে তুলনা করেছে। ইস্কনের প্রতিষ্ঠাতা প্রভুপাদ ১৯৬৮ সালে মন্দিরটি প্রতিষ্ঠা করেন। মোট আয়তন: ১২০৪ একর বা ৪.৮৭ বর্গকিলোমিটার। এই মন্দিরের সীমানার মধ্যে রয়েছে বিশাল আকৃতির মনোরোম একটি রাধা-কৃষ্ণ স্ট্যাচু এবং একটি বিশাল গোশালা। এখনকার পুকুরের হাঁস এবং পার্কের অসংখ্য ময়ূর আপনার মন কাড়বে। 
 

Arulmigu Sri Rajakaliamman Glass Temple, Tebrau, Malaysia

 ৩. আরুলমিগা শ্রী রাজাকালিয়াম্মান গ্লাস মন্দির, তীব্রাউ, মালয়েশিয়া:  মন্দিরটি বিশ্বের একমাত্র গ্লাস মন্দির যার ৯০% বিশ্বের বিভিন্ন দেশের দামি দামি মোজাইক কাছ দিয়ে তৈরী।

 

BAPS Shri Swaminarayan Mandir, Robbinsville, New Jersey, USA

৪. BAPS শ্রী স্বামীনারায়ণ মন্দির, রবিন্সভিল, নিউ জার্সি, আমেরিকা:  মন্দিরটি ১৬০ একর জমির উপর অবস্থিত এবং ১৩০০০ এর বেশি ইতালিয়ান মার্বেল পাথর দিয়ে তৈরী।

Sri Siva Subramaniya temple, Nadi, Fiji

৫. শ্রী শিব সুব্রামানিয়া মন্দির, নদী, ফিজী: মন্দিরটি প্রথম নির্মাণ করা হয় ১৯২৬ সালে এবং ১৯৮৬ সালে পুনঃনির্মান করা হয়। এটি একটি শিব মন্দির।

 

Ganga Talao Durga Temple, Mauritius.

৬. গঙ্গাতলা দূর্গা মন্দির , মরিশাস: ১০৮ ফুট উঁচু দূর্গা প্রতিমাসহ শিব ও অন্যান্য প্রতিমা রয়েছে। এই দ্বীপটি মন্দিরের জন্য বিখ্যাত।এখানে কয়েকটি মনোরম মন্দির রয়েছে। 
এটি বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু দূর্গা প্রতিমা। প্রতিমা নির্মান সাল : ২০১৭

Arul Mihu Navasakthi Vinayagar Temple, Victoria,Seychelles

৭ .আরুল মিহু নবশক্তি বিনায়াগার মন্দির, ভিক্টোরিয়া, সেইছেলেস : ভারত মহাসাগরের আফ্রিকা উপকূলে  সেইছেলেস নামক ছোট্ট দেশের এই মন্দিরটির নির্মাণ শিল্প বহু দর্শনার্থীর মন কাড়ে।

Sri Subramaniar Swamy Devasthanam, Batu Caves, Malaysia.

 

8. শ্রী সুব্রামানিয়ার স্বামী দেবস্থানাম , বাটু কেভস, মালয়েশিয়া : বাটু কেভস পূর্ব এশিয়ার সবচেয়ে বিখ্যাত মন্দির। ১৮৯০ সালে তামিল ব্যবসায়ী কে. টি. পিল্লাই মন্দিরটি নির্মাণ করেন।  এটি মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুর হতে মাত্র ১৩ কিঃমিঃ উত্তরে অবস্থিত। এখানে মুরুগানের একটি প্রতিমা রয়েছে যার উচ্চতা ৪২.৭ মিটার।

Shri Swaminarayan Mandir, London, UK

৯. শ্রী স্বামীনারায়ণ মন্দির, লন্ডন: মন্দিরটি ৫,০০০ টন ইতালিয়ান , ইন্ডিয়ান এবং বুলগেরিয়ান লাইমস্টোন দিয়ে তৈরী। দিয়ালী সবচেয়ে জাকজমক ভাবে পালিত হয়।

 

Shri Venkateswara (Balaji) Temple, Birmingham, U.K.

১০. শ্রী ভেঙ্কটেশ্বর বালাজি মন্দির, বার্মিংহাম, বৃটেন :  মন্দিরটি ২০০৬ সালের ২৩ শে আগস্ট উদ্বোধন করা হয়। এটি ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় বৃহৎ মন্দির।

 

Sagar Shiv Mandir, Mauritius.

১১. সাগর শিব মন্দির, মরিশাস: মন্দিরটি মরিশাসের গোয়াভা  ডি চিনি নামক দ্বীপের সাগরের মধ্যে অবস্থিত। এটি ২০০৭ সালে উদ্বোধন করা হয়। এখানে ১০৮ ফুট উঁচু শিবের প্রতিমা রয়েছে।

Temple in the Sea, Waterloo, Trinidad and Tobago

১২. টেম্পল ইন দ্য সী, ওয়াটারলু, ত্রিনিদাদ এন্ড টোবাগো:  শিবদাস সাধু ১৯৫২ সালে মন্দিরটি নির্মাণ করেন। সাগরের মধ্যে অবস্থিত দক্ষিণ আমেরিকার এই মন্দিরটি অনেক দর্শনার্থীকে আকর্ষিত করে। ত্রিনিদাদ এন্ড টোবাগো সনাতন ধর্ম মহাসভা মন্দিরটি পরিচালনা করেন। এই মন্দিরের নিকটে রয়েছে একটি হনুমান মন্দির যেখানে আছে ৮৫ ফুট উঁচু হনুমান প্রতিমা।

 

Sri Maha Mariamman Temple, Bangkok.

 

১৩.   শ্রী মহা ম্যারিয়াম্মান মন্দির , ব্যাঙ্কক : থাইল্যান্ডের রাজধনীতে অবস্থিত এই হিন্দু মন্দিরটি সবার কাছে খুবই দৃষ্টি নন্দন।

Tanah Lot , Indonesia

১৪. তানাহ লট, বালি ইন্দোনেশিয়া : এটি ১৩০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয়ে সাগরের বিশাল পাথর খন্ডের উওপর নির্মিত একটি মন্দির। প্রতি বছর কয়েক মিলিয়ন মানুষ মন্দিরটি দর্শন করে।

Sri Thendayuthapani Temple, Singapore

১৫. শ্রী ঠাণ্ডাযুঠাপানী মন্দির, সিঙ্গাপুর: ১৮৫৯ সালে সিঙ্গাপুরের তামিল অধিবাসীরা মন্দিরটি নির্মাণ করেন। এটি সিঙ্গাপুরের অন্যতম আকর্ষণ। ২০১৪ সালে মন্দিরটি সিঙ্গাপুরের ন্যাশনাল মনুমেন্টের মর্যাদা লাভ করে।

Prambanan Hindu Temple, Java, Indonesia

১৬. ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ স্বীকৃত ইন্দোনেশিয়ার প্রাম্বানান মন্দির, জাভা, ইন্দোনেশিয়া : নির্মান সাল : ৮৫০ CE এটি ইন্দোনেশিয়ার সবচেয়ে বড় হিন্দু মন্দির এবং দক্ষিন-পূর্ব এশিয়ার বড় মন্দির গুলোর একটি। এই প্রাম্বানান মন্দিরে একসাথে ২৪০ টি মন্দির আছে যা সনাতন ধর্মের ঐতিয্য বহন করছে।

Shri Shiva Vishnu Temple, Victoria, Australia

১৭. শ্রী শিব বিষ্ণু মন্দির, ভিক্টোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া:  মন্দিরটি ১৯৮২ সালে নির্মিত হয়। এটি অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে জনপ্রিয় হিন্দু মন্দির।

Dhakeshwari National Temple, Dhaka, Bangladesh

১৪. ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির, ঢাকা :  বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা শহরে অবস্থিত একটি মন্দির। ঢাকার নামকরণ হয়েছে "ঢাকার ঈশ্বরী" অর্থাৎ ঢাকা শহরের রক্ষাকর্ত্রী দেবী হতে। এই মন্দিরটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ হলের দক্ষিণ-পশ্চিম প্রান্তে অবস্থিত।ধারণা করা হয় যে, সেন রাজবংশের রাজা বল্লাল সেন ১২শ শতাব্দীতে এটি প্রতিষ্ঠা করেন। ঢাকেশ্বরী মন্দির বাংলাদেশের জাতীয় মন্দির হলেও বাংলাদেশের অন্যান্য অনেক মন্দিরের মতই এটিরও স্থাবর সম্পত্তি বেহাত হয়েছে। মন্দিরের মোট ২০ বিঘা জমির মধ্যে ১৪ বিঘাই বেহাত হয়ে গিয়েছে।এই বেহাতের পেছনে রয়েছে দেশের সাম্প্রদায়িক মনোভাবসম্পন্ন একটি গোষ্ঠী যাদের মধ্যে সরকারী কর্মকর্তাও রয়েছে। বিভিন্ন সময় এই বেহাত হওয়া জায়গা পুনরুদ্ধারের জন্য দাবী জানানো হলেও কোন সরকারই কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। ১৯৪৭ সালে ভারত বিভাজনের পরেই পাকিস্তানে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা হয় এবং একচাটিয়া সংখ্যালঘু হিন্দু নিষ্পেষণ শুরু হয়। ১৯৪৮ সালে পাকিস্তান সরকার জরুরি ভূমি গ্রহন আইন পাশের মাধ্যমে এবং ১৯৬৫ সালের পাক-ভারত যুদ্ধের পরে ১৯৬৯ সালে শত্রু সম্পত্তি আইন (বর্তমান নাম অর্পিত সম্পত্তি আইন) নামক কালা কানুন পাশ করে সংখ্যালঘু হিন্দুদের জায়গা জমি দখলের রাস্তা প্রশস্ত হয়।এরপরে ১৯৭১ সালে এবং ১৯৯০ ও ১৯৯২ সালে বিভিন্ন সময়ে দফায় দফায় হিন্দুদের উপর সাম্প্রদায়িক নিষ্পেষণের কারনে মন্দিরের অনেক সেবায়েত এবং পুরোহিত দেশ ত্যাগে বাধ্য হন। যার ফলশ্রুতিতে এক শ্রেণীর অসাধু সরকারী কর্মকর্তার যোগসাজশে ঢাকেশ্বরী মন্দিরের জায়গা বেদখল হয়ে যায়। ২০১৫ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী তার বাংলাদেশ সফরের সময় মন্দিরটি দর্শন করেন।

Puthia Temple Complex, Rajshahi, Bangladesh

১৯. পুঠিয়া মন্দির চত্বর, রাজশাহী:  রাজশাহী বিভাগের পুঠিয়া উপজেলায় কয়েকটি উল্লেখযোগ্য পুরনো হিন্দু মন্দির নিয়ে পুঠিয়া মন্দির চত্বর। রাজশাহী শহরের ২৩ কিলোমিটার পূর্বে অবস্থিত এখানে বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশী সংখ্যক ঐতিহাসিক মন্দির রয়েছে। রাজশাহীর বিখ্যাত জনহিতৈষী পুঠিয়া রাজ পরিবারের হিন্দু জমিদার রাজাদের দ্বারা মন্দিরগুলো প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। মন্দিরগুলোর বেশ কয়েকটি টেরাকোটা সম্বলিত এবং এগুলোর স্থাপত্য জোড় বাংলা স্থাপত্য রীতির সদৃশ। তবে এতে অন্যান্য স্থাপত্য রীতির মিশেল ঘটেছে। পুঠিয়ার রাজবাড়িটি ইন্দো-সারাসেনিক স্থাপত্য রীতি অনুসারে নির্মিত। এই রীতিতে গতানুগতিক হিন্দু স্থাপত্য রীতির সাথে রেনেসাঁস যুগের ইউরোপীয় স্থাপত্যের সংযোগ ঘটেছে। পুঠিয়ার মন্দিরগুলো একটি বিশালাকার লেক বা জলাধারের চারপাশজুড়ে নির্মিত। মন্দিরগুলোর মাঝে একটি সবুজ চত্বরও রয়েছে। রাজা পিতাম্বর ছিলেন পুঠিয়া জমিদার বংশের প্রতিষ্ঠাতা। তবে প্রাচীন এই এলাকার অধিপতি ছিলেন লস্করী খান। লস্করী খান সম্রাট আকবরের শাসনামলে বিদ্রোহী হয়ে উঠলে সেনাপতি মানসিংহ শাসনভার পিতাম্বরের হাতে তুলে দেন। ব্রিটিশ-বাংলার দ্বিতীয় বৃহত্তম জমিদারী ছিল এই পুঠিয়া রাজবংশের। সম্পদের দিক থেকে তারা ছিল ব্রিটিশ-বাংলার সবচেয়ে ধনী। ভারত স্বাধীন হলে তৎকালীন পাকিস্তান সরকার জমিদারি প্রথা বিলুপ্ত করে এবং জমিদারির সব সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে। পুঠিয়া রাজবংশ তখন ভারতে স্থানান্তরিত হয়।

 

Shri Kali Temple, Burma

২০. শ্রী কালী মন্দির, বার্মা: মন্দিরটি নির্মিত হয় ১৮৭১ সালে। এটি রাজধানী রেঙ্গুনের ডাউনটাউনে অবস্থিত। নির্মাণ শিল্পের কারুকার্যের জন্য প্রচুর দর্শনার্থী আকর্ষিত হয়। 
 

Malibu Hindu Temple, Malibu,California, USA.


২১. মালিবু হিন্দু মন্দির, ক্যালিফর্নিয়া, আমেরিকা:  এটি আমেরিকার ক্যালিফর্নিয়া রাজ্যের সবচেয়ে বড় হিন্দু মন্দির। এটি ১৯৮১ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। 

 

Erawan Shrine, Bangkok, Thailand

 

২২. এরাবন শ্ৰীন / এরাবন তীর্থস্থান, ব্যাঙ্কক, থাইল্যান্ড: ১৯৫৬ সালে থাই সরকার সেখানকার হিন্দুদের জন্য মন্দিরটি নির্মাণ করে দেন। এটি মূলত ব্রম্মা মন্দির। এই মন্দিরে ব্রম্মা, লক্ষ্মী, গণেশ, নারায়ণ, গরুডা, এবং ত্রিমূর্তি রয়েছে। মূর্তিগুলো ব্রোঞ্চ দ্বারা নির্মিত। ২০০৬ সালে একজন লোক হাতুড়ি দিয়ে পিঠিয়ে ব্রম্মা মূর্তি ভেঙে ফেলে স্থানীয় জনগণ তাকে ধরে পিঠিয়ে হত্যা করে সরকার মূর্তিটি আবার নির্মাণ করে দেয়। ২০১৫ সালে উইঘুর মুসলিম সন্ত্রাসীরা এই মন্দিরে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে ২০ জনকে হত্যা করে এবং ১২৫ জন মারাত্মক আহত হন। সন্ত্রাসীর হামলার পর মন্দিরটি কিছু দিন বন্ধ থাকে। মেরামত শেষে মন্দিরটি আবার খোলা হয়েছে।

Shri Krishna Temple,Muscat , Oman.

২৩. শ্রী কৃষ্ণ মন্দির, মাস্কট, ওমান: মন্দিরটি ১৯৮৭ সালে ওমানের গুজরাটি ব্যবসায়ীরা প্রতিষ্ঠা করেন। বাইরে থেকে দেখতে ছোট হলেও ভিতরে অনেক বড়। এখানে একসাথে ৫০০-৭০০ ভক্ত  প্রার্থনা করতে পারেন।

Koneswaram Temple, Sri Lanka

 

২৪. কনেশ্বরাম মন্দির, শ্রীলংকা: এটি মূলত শিব মন্দির। মন্দিরটি ২০০ বছরের বেশি পুরানো। এই মন্দিরে রাবণের প্রতিমাও আছে।

Pashupatinath temple, Nepal.

২৫. পশুপতি নাথ মন্দির, কাঠমুন্ড, নেপাল: রাজধানীর বাগমতী নদীর তীরে মন্দিরটি অবস্থিত। খ্রিস্টপূর্ব  ৭৫৩ সালে রাজা জয়দেব মন্দিরটি নির্মাণ করেন। এটি বিশ্বের মধ্যে একটি গুরুত্ত্বপূর্ণ ও পবিত্র শিব মন্দির। শিব রাত্রির রাতে এখানে ৮ লক্ষ লোকের সমাগম ঘটে। এছাড়া প্রচুর বিদেশী দর্শনার্থী সারা বছর এই মন্দিরে ভিড় করেন। তবে কোন অহিন্দুকে মন্দিরের মূল ফটকে ঢুকতে দেয়না মন্দির কতৃপক্ষ।এই মন্দিরে ১৮৪ টি শিব লিঙ্গ রয়েছে। মন্দিরটি নেপালকে বহির্বিশ্বে পরিচিত করেছে। এটি ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ স্বীকৃত !

Sri Kamadchi Ampal Temple, Hamm, Germany

26. শ্রী কামাড়চি এম্পল মন্দির, হাম্ম, জার্মানী:  এটি জার্মানীর সবচেয়ে বড় হিন্দু মন্দির।

Shri Swaminarayan Mandir, Atlanta, U.S.A. 

২৭. শ্রী স্বামী নারায়ণ মন্দির, আটলান্টা, আমেরিকা: যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যে অবস্থিত এই মন্দিরটি ৩০ একর জমিতে স্থাপিত হয়েছে। মন্দিরটি ৩৪,৪৫০ পিস্ পাথর, ৪৫০০ টন ইতালিয়ান কারার মার্বেল, ৪,৩০০ টার্কিশ লাইমস্টোন, এবং ৩৫০০ ইন্ডিয়া স্যান্ড স্টোন দিয়ে তৈরী।

BAPS Shri Swaminarayan Mandir, Toronto, Canada


২৪. BAPS শ্রী স্বামী নারায়ণ মন্দির, টরন্টো, কানাডা:  স্বামী নারায়ণ মন্দির কতৃপক্ষ ইস্কনের মতো একটি গ্রূপ। এদের সারা বিশ্বব্যাপী বড় বড় মন্দির রয়েছে। প্রতিটি মন্দিরের নির্মাণ শিল্প প্রায় একই। কানাডার টরন্টো শহরে ১৮ একর জমিতে মন্দিরটি অবস্থিত। এর সাথে আছে একটি হাবেলী এবং একটি হেরিটেজ মিউজিয়াম। 

 

Radha Madhav Dham, Austin, TX, USA.

২৯. রাধা মাধব ধাম, অস্টিন, টেক্সাস, আমেরিকা: এটি আমেরিকার সবচেয়ে পুরানো মন্দির। ২০০ একরের বেশি জমিতে মন্দিরটি অবস্থিত। রথ যাত্রা এবং শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী এই মন্দিরের প্রধান আকর্ষণ। ২০১১ সালের রথ যাত্রার সময় ৫০,০০০ ভক্তের উপস্থিতিতে ভোজন পরিবেশন করেন ভোজন সম্রাট অনুপ জালটা। ২০১৪ সালে মন্দির কতৃপক্ষ নেলসন মেন্ডেলাকে শান্তি পুরস্কার দেয় এটি একটি অ-লাভজনক প্রতিষ্ঠান। এর সাথে জড়িয়ে রয়েছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল ইত্যাদি। মন্দিরটি প্রচুর দেন করে থাকে। ভারতের বেনারসে দুঃস্থদের একটি হাসপাতালের জন্য ২.৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দেন করে। ২০০৮ সালে বিহারে বন্যার জন্য ১.৫ লক্ষ রিলিফ দেয়। ভারতের মানগড় এ দুঃস্থদের আরো একটি হাসপাতাল করেছে। আমেরিকার ভয়ঙ্কর হ্যারিকেন রিতা আঘাত হানার পর এই মন্দিরে ৪০০ মানুষকে আশ্রয় দেয়া হয়।  
 

Hare Krishna Temple of Understanding South Africa, Durban, South Africa.

৩০. হরে কৃষ্ণ টেম্পল অফ আন্ডারস্ট্যান্ডিং, ডারবান, সাউথ আফ্রিকা:  দক্ষিণ আফ্রিকার ডারবান শহরে অবস্থিত এটি ইস্কনের একটি মন্দির যা ওই দেশের সবচেয়ে বড় মন্দির। মার্বেল এবং গোল্ড পেইন্ট মন্দিরটিকে খুবই দর্শনীয় করে তুলেছে। 

 

Shree Sanatan Dharma Mandal temple, Kampala, Uganda

৩১. শ্রী সনাতন ধৰ্ম মণ্ডল মন্দির, ক্যাম্পালা, উগান্ডা: আফ্রিকার দেশ উগান্ডায় এটি সবচেয়ে বড়  মন্দির।

BAPS Shri Swaminarayan Mandir, Nairobi, Kenya

৩২. BAPS শ্রী স্বামী নারায়ণ মন্দির, নাইরোবী , কেনিয়া:  পৃথিবীর অন্য সব BAPS শ্রী স্বামী নারায়ণ মন্দির এর সাথে মিল রেখে কেনিয়ার রাজধীতে এই মন্দিরটি করা হয় ১৯৯৯ সালে। এটি রাজধানীর সবচেয়ে বড় মন্দির।মোজাম্বাসহ কেনিয়ার অন্যান্য শহরে প্রচুর মন্দির রয়েছে। উলেখ্য কেনিয়ার প্রায় ২০% হিন্দু রয়েছে।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71