শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০
শুক্রবার, ১০ই আশ্বিন ১৪২৭
সর্বশেষ
 
 
ভারত সীমান্তে খুঁটি পুঁতে জমি দাবি নেপালের
প্রকাশ: ০৯:২৪ pm ২৭-০৭-২০২০ হালনাগাদ: ০৯:২৪ pm ২৭-০৭-২০২০
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


সীমান্ত নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই উত্তেজনা চলছে ভারত ও নেপালের মধ্যে। চলমান সীমান্ত বিরোধের মধ্যেই আবারও উত্তেজনা দেখা দিল দুই দেশের মধ্যে। এবার সীমান্তবর্তী টনকপুর শহরের কাছে মাথাচাড়া দিল এই বিরোধ। সেখানে নোম্যানস ল্যান্ডে খুঁটি পুঁতে নেপালিরা জমি কবজা করার চেষ্টা করছে।  ভারত এমন অভিযোগ তোলার পর সীমান্তবর্তী এলাকায় চরম উত্তেজনাও সৃষ্টি হয়েছে। 

ভারতের উত্তরাখন্ড রাজ্যের চম্পাবত জেলায় নেপাল সীমান্ত ঘেঁষা একটি বাণিজ্য শহর টনকপুর। শিথিল সীমান্তের সুযোগ নিয়ে এ অঞ্চলে দুই দেশের লোকজনের যাতায়াতও প্রায় অবাধ। কিন্তু গত বুধবার সীমান্তের ব্রহ্মদেব নামে একটি এলাকায় নেপালিরা বেশ কিছু কংক্রিট ও কাঠের খুঁটি পুঁতে এবং অনেক গাছপালা লাগিয়ে বেশ বড় একটি এলাকা ঘিরে ফেলার চেষ্টা করে যেটা নো-ম্যানস ল্যান্ডের ভেতর পড়েছে বলে ভারতের অভিযোগ।

চম্পাওয়াতের পুলিশ সুপার লোকেশ্বর সিং বলেন, সীমান্তের মিসিং পিলার নাম্বার ৮১১, অর্থাৎ যেখানে কোনও দেশেরই সীমান্ত পিলার নেই, সেখানে ওরা কিছু প্ল্যান্টেশন করেছে ও বেড়া বানানোর প্রস্তুতি নিয়েছে। জায়গাটা নো-ম্যানস ল্যান্ডে পড়ে। রবিবার সকালেও নেপালের কর্মকর্তারা জায়গাটি পরিদর্শন করেছেন। তার পর আমাদের সঙ্গে তাদের আলোচনায় বসার কথা আছে। তবে ঘটনা হল, ভারতের যে সশস্ত্র সীমা বল বা এসএসবি নেপাল সীমান্ত পাহারা দিয়ে থাকে তারা এর আগে দুইবার ব্রহ্মদেবে গিয়ে নেপালিদের বিক্ষোভ ও ভারতবিরোধী স্লোগানের মুখে পড়েছে, খুঁটি বিরোধের কোনও সমাধান হয়নি।

কিন্তু ভারত বিষয়টি নিয়ে নেপালের কাছে কোনও আনুষ্ঠানিক অভিযোগ জানিয়েছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে পুলিশ প্রধান লোকেশ্বর সিং বলেন, অবশ্যই অভিযোগ জানানো হয়েছে। আমরা প্রথম থেকেই নেপালের স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথাবার্তা বলছি, দিল্লিতেও ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। খুব শিগিগরই বিষয়টির শান্তিপূর্ণ সমাধান করা সম্ভব হবে বলেও তিনি আশাবাদী। যদিও টনকপুরের স্থানীয় বাসিন্দারা অতটা আশ্বস্ত বোধ করতে পারছেন না।

শহরের বস্ত্র ব্যবসায়ী ভিনিত জোশী বলেন, দেখুন ওরা সীমান্তের জমি অন্যায়ভাবে দখল করে রেখেছে ‘নো ম্যানস ল্যান্ডে’র প্রায় ২৫০ গজ ভেতরে ঢুকে পড়েছে। আমাদের বাহিনী ওখানে গিয়ে বোঝানোরও চেষ্টা করেছে, কিন্তু তাতে লাভ হয়নি। সূত্র: বিবিসি 

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 

 

E-mail: info.eibela@gmail.com

a concern of Eibela Ltd.

Request Mobile Site

Copyright © 2020 Eibela.Com
Developed by: coder71