শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮
শনিবার, ৩রা অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
মধ্যরাতে সুফিয়া কামাল হল থেকে ২০ ছাত্রীকে বের করে দিল কর্তৃপক্ষ
প্রকাশ: ১০:০০ am ২০-০৪-২০১৮ হালনাগাদ: ১০:০০ am ২০-০৪-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


কোটা সংস্কার আন্দোলন নিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কবি সুফিয়া কামাল হল থেকে অন্তত ২০ জন আবাসিক ছাত্রীকে বের করে দিয়েছে হল কর্তৃপক্ষ। রাত সাড়ে ১১ টা থেকে রাত সাড়ে ১২ টার মধ্যে পর্যায়ক্রমে ৯ জন ছাত্রী হল থেকে বেরিয়ে যান। তবে তারা ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত নেত্রী নাকি কোটা সংস্কার আন্দোলনের পক্ষের শিক্ষার্থীরা- সে বিষয়টি নিশ্চিত করে কেউ কিছু বলেননি। হল থেকে একজন আবাসিক শিক্ষার্থী জানিয়েছেন, গত ১০ এপ্রিল রাতে কোটা সংস্কার আন্দোলন নিয়ে হলের ভিতর ছাত্রলীগ সভাপতি ইফফাত জাহান এশা’র গলায় জুতার মালা পরিয়ে দেয় আন্দোলনের পক্ষের সাধারণ ছাত্রীরা। ওই ঘটনার সঙ্গে ২৬ জন ছাত্রী জড়িত রয়েছে বলে হল কর্তৃপক্ষ চিহ্নিত করে। এই ২৬ জনের অভিভাবকদের বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর থেকে ডেকে আনা হয়। অভিভাবকদের কাছে ছাত্রীদের তুলে দেয়া হয়।
 
এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক গোলাম রব্বানী বলেন, এসব আবাসিক ছাত্রীকে তাদের অভিভাবকরা নিয়ে যাচ্ছেন। এত রাতে কেন ছাত্রীদের থেকে বের করে দেওয়া হচ্ছে-এমন প্রশ্নের জবাবে প্রক্টর বলেন, বিষয়টি হল প্রভোস্ট ভাল বলতে পারবেন।
 
জানা যায়, মোবাইল চেকসহ নানাভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে হলের আবাসিক তিন ছাত্রীকে বৃহস্পতিবার রাতে বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে হল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। হল থেকে বের করে দেয়া ছাত্রীদের মধ্যে অন্তী , শারমিন ও কামরুণ নাহার লিজার নাম রয়েছে। 

এ বিষয়ে সুফিয়া কামাল হল প্রশাসন জানিয়েছে, অনেক মেয়ে ফেক (ভুয়া) আইডি দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হলের বিরুদ্ধে নানা গুজব ছড়াচ্ছে। তাই কয়েকজনকে ডেকে মোবাইল চেক করা হয়েছে। এছাড়া অনেকে আন্দোলনে জড়িত ছিল। তাই তাদের সতর্ক করা হয়েছে। 

গত ১০ এপ্রিল ফেসবুকে ভুয়া আইডি থেকে গুজব ছড়ানোর ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ওই তিন ছাত্রীকে বের করে দেওয়া হয়েছে বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন জানিয়েছেন। 

তবে এ বিষয়ে হল প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সাবিতা রেজওয়ানা রহমান বলেন, হলের পরিস্থতি শান্ত রাখার জন্য হল প্রশাসন মেয়েদের দফায় দফায় তলব করেছে। ছাত্রীদের হল থেকে বের করে দেওয়ার কথাও অকপটে স্বীকার করেন তিনি।
 
গত বুধবার অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিসিপ্লিনারি বোর্ডের বৈঠকে এশাকে হেনস্তার জন্য ২৬ শিক্ষার্থীকে চিহ্নিত করে কারণ দর্শানোর নোটিস দেয়। এরপরই হল কর্তৃপক্ষ হলের শিক্ষার্থীদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে।
 
শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেছেন, তাদের ধমক দিয়ে স্বীকারোক্তি নেওয়ার চেষ্টা চলছে। এর মধ্যেই বিভিন্ন শিক্ষার্থীর স্থানীয় অভিভাবকদের ডাকা হয় হল প্রশাসনের পক্ষ থেকে। সন্ধ্যার পর থেকে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীকে ব্যাগ নিয়ে হল থেকে বের হতে দেখার কথা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন একজন দারোয়ান। ওই দারোয়ান বলেন, অন্তত ১৫ থেকে ২০ জন ছাত্রী বের হয়ে গেছেন।
 
নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71