বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০১৯
বৃহঃস্পতিবার, ৫ই বৈশাখ ১৪২৬
সর্বশেষ
 
 
মাকে বাঁচাতে দেশ বাসীর কাছে ছেলের আকুতি
প্রকাশ: ০৪:৫৬ pm ১৩-০৮-২০১৮ হালনাগাদ: ০৪:৫৬ pm ১৩-০৮-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


গত ১৩-০২-২০১৮ তারিখ রাতে মায়ের চিৎকারে ঘুম ভেঙ্গে যায় আমার। মায়ের বুকে প্রচন্ড ব্যথা সাথে নিশ্বাস ফেলতে পারছেন না!

মা আগে থেকেই ডায়াবেটিস ও গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় ভুগছিলেন! ভাবছিলাম ওরকমই কিছু হবে। পরের দিন উনাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাই। সেখানে ইসিজি ও রক্ত পরীক্ষার পর ডাক্তার ঔষধ লিখে দেন। ওষধ সেবন চলতে থাকে কিন্তু বুকের ব্যাথা কমার লক্ষন নেই।

তারপর হঠাৎ করে মার্চের মাঝামাঝি মায়ের রাইট ব্রেস্টে চাকা হয়ে রক্ত ও আঠালো পানি আসা শুরু হল সাথে প্রচন্ড ব্যাথা। ( ক্যান্সারের লক্ষন দেখা দিল ) কিন্তু তখনও তেমন গুরুত্ব দেইনি ভাবলাম সাধারন টিউমার হয়েছে নর্মাল সার্জারিতে সেরে যাবে। তাই ৩০-০৩-২০১৮ তারিখে মা কে ধানমন্ডি প্যানোরামা হসপিটালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাই। সেখানকার চিকিৎসকরা চেক আপ-রোগের বিবরণ ও আর্জেন্ট পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও পর্যবেক্ষণ করে জানান উনার ব্রেস্ট ক্যান্সার!

সেখানকার ডাক্তাররা বললেন আমরা অনেক দেরি করে ফেলছি উনার ক্যান্সার ইতিমধ্যে তৃতীয় পর্যায়ে পৌছেগেছে এবং ইমিডিয়েটলি রাইট ব্রেস্ট (যেটা সংক্রমিত) কেটে ফেলতে হবে।যাইহোক অবশেষে ০১-০৪-২০১৮ তারিখে সফল ভাবে মায়ের রাইট ব্রেস্ট সার্জারি হল।

ডাক্তার কমপক্ষে ৩ সপ্তাহ হসপিটালে ভর্তি থাকার উপদেশ দিলেন তারপর কেমোথেরাপি শুরুর জন্য বললেন। ইতিমধ্যে হাসপাতালের বিল+পরীক্ষা+চেক আপ+সার্জারি+যাতায়াত+আনুষাঙ্গিক খরচ মিলিয়ে প্রথম সপ্তাহেই ১.৫ লাখ টাকা শেষ। এরপর থেকে হাতেও কোন নগদ অর্থ ছিল না ,ফলে বাবা ব্যাংকে গেলেন লোন নেয়ার জন্য কিন্তু ব্যাংক থেকে লোন দেয়নি পর্যাপ্ত প্রপার্টি নেই এই কারণে , তাই বাবা বাধ্য হয়ে থাকার ভিটে বাদে সব জায়গা বন্ধক দিয়ে দিলেন , সাথে এখন পর্যন্ত অস্থাবর সম্পত্তি বিক্রি+ধার-দেনা+আত্মীয়স্বজন দের কাছ থেকে সাহায্য নিয়ে মোট ৮ টা কেমোর মধ্যে ৫টা কেমো দেয়া হয়েছে। এই নিয়ে সবমিলিয়ে এখনপর্যন্ত প্রায় সাড়ে চারলক্ষ টাকার উপর খরচ হয়েছে, যার মধ্যে হিসাব(বিলের কাগজ) আছে ৪ লক্ষ টাকার মত।

প্রথম দিকে ২৫ হাজার টাকার মধ্যে হলেও এখন প্রতিটা কেমো দিতে ৪০-৪২ হাজার টাকার মত লাগে(প্রতি কেমোতে ঔষধ চেঞ্জ হয়)। বর্তমানে পরিবারের আর্থিক অবস্থা খুব খারাপ, বহুকষ্ট করে দিনযাপন করতে হচ্ছে , আছে বলতে শুধু ভিটাটুকু মায়ের অবস্থাও দিন দিন খারাপ হচ্ছে। নেক্সট কেমোর ডেট ২৬/০৮/১৮ তারিখ, ২৪ তারিখ বা এর আগে ভর্তি করা লাগবে (টেস্ট+রক্ত দেয়া লাগবে) কিন্তু আমাদের হাতে আছে সর্বসাকুল্যে ১০,০০০ টাকা মাত্র। এই টাকা নিয়ে পরবর্তী চিকিৎসার দিকে আগে বাড়া দুঃসাধ্য ব্যাপার। তবুও আমি মা কে ভর্তির ব্যাপারে আশাবাদী। ভরসা সৃষ্টিকর্তার উপর। ভরসা আপনাদের উপর মানবতার জয় হবেই ৷ এমতাবস্থায় আপাতত মায়ের চিকিৎসা শেষ করতে রেডিওথেরাপি সহ প্রায় ১.৫ লাখ টাকার দরকার( ৩টা কেমো বাকি)।এই অর্থ সাহায্য পেলেই কেবলমাত্র , আমার মা সুস্থ হয়ে যাবেন বাকিটা সৃষ্টিকর্তা ভাল জানেন।
সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা:

Bkash personal : 01995251445

নি এম/
 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71