শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮
শনিবার, ৩রা অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
মাটির নীচে ১৯ তলা হোটেল
প্রকাশ: ০৬:৩১ pm ০৭-০৪-২০১৮ হালনাগাদ: ০৬:৩১ pm ০৭-০৪-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


চীনের সাংহাই শহরের কাছে সংজিয়াং জেলার খনি অঞ্চলে একটি ২১ তলা হোটেল হচ্ছে। হোটেলটির ১৯ তলাই মাটির নীচে থাকবে। আর উপরে থাকবে মাত্র দুটি তলা।

নির্মাণাধীন এই অভিনব হোটেলটির কাজ শেষ হলে, ওই খনি এলাকার চিত্র সম্পূর্ণ পাল্টে যাবে। অনবরত মেশিনের শব্দ আর কালো ধোঁয়ায় জ্বালাতন থাকবে না। আনাগোনা থাকবে না শ্রমিকদেরও। ওই এলাকার আশেপাশে শ্রমিকরা বসবাস করতেন।

কিছু দিনের মধ্যে চালু হবে এই ঝাঁ চকচকে হোটেল। ফলে রুক্ষ এই খনি অঞ্চল হবে মনোরম ও মনোমুগ্ধকর। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ২০১৮-র মে মাস থেকেই চালু হয়ে যাবে এই হোটেল। বিলাসবহুল এই অভিনব হোটেলে ছুটি কাটাতে পারবেন পর্যটকেরা। এই হোটেলের নির্মাণকাজ শুরু হয়েছে ২০১৩ সালের নভেম্বরে। হোটেলটির বৈশিষ্ট্য শুনলে আপনি অবাক হবেন। কারণ, হোটেলের পুরোটাই মাটির নীচে। ভূ-পৃষ্ঠ থেকে ১০০ মিটার গভীর খনির ৮০ মিটার নীচে পর্যন্ত ছড়িয়ে রয়েছে হোটেলটি। হোটেলের বেশ কিছুটা অংশ রয়েছে জলের নীচেও। আর এটাই এই হোটেলের প্রধান আকর্ষণ। ব্রিটিশ সংস্থা আটকিনস্ এই হোটেলের নকশা বানিয়েছে।

হোটেলটির নামেই অবশ্য তার বৈশিষ্ট্যের আভাস পাওয়া যায়। হোটেলটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘ডিপ পিট হোটেল’। ২১ তলা হোটেলের ১৭টি ফ্লোর মাটির নীচে, দু’টি ফ্লোর জলের তলায় এবং দু’টি ফ্লোর মাটির উপরে। হোটেলটিতে সব মিলিয়ে পর্যটকদের জন্য ৩৮৩টি রুম রয়েছে। হোটেলের মাঝখানে কাচের তৈরি কৃত্রিম জলপ্রপাত রয়েছে। হোটেলের নীচে দাঁড়িয়ে উপরে তাকালে মনে হবে, ঠিক যেন পাহাড়ের গা বেয়ে ৮০ ফুট নীচে গভীর খাদে নেমে আসছে জলপ্রপাতটি।

হঠাৎ খনিকে বিলাসবহুল হোটেলে পরিণত করা হল কেন? আগে পুরোমাত্রায় সচল থাকলেও বিগত কয়েক বছর ধরে পরিত্যক্তই ছিল ওই খনি এলাকাটি। সে কারণেই এই সিদ্ধান্ত চীনের। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা।


বিডি

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71