মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮
মঙ্গলবার, ৬ই অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
মাদারীপুরে বিপত্তারিণী পূজা অনুষ্ঠিত
প্রকাশ: ০৯:৫৬ am ২৯-১০-২০১৭ হালনাগাদ: ০৯:৫৬ am ২৯-১০-২০১৭
 
মাদারিপুর প্রতিনিধি
 
 
 
 


জীব জগতের কল্যাণ ও ভক্তদেরকে সকল বিপদ থেকে রক্ষাকারী দেবী বিপত্তারিণী বা বিপদনাশিনী পূজা মাদারীপুর পৌর এলাকার পাঠককান্দি মহল্লায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ দেবীর পূজার আয়োজন এ অঞ্চলে সম্পূর্ণ নতুন।

সনাতন ধর্মালম্বী হিন্দু সম্প্রদায়ের নারীরা এ পূজার আয়োজক এবং মাদারীপুরে অপু রাণী মণ্ডল এ পূজার মূল উদ্যোক্তা। আয়োজক সূত্রে জানা যায়, প্রাচীনকালে এই দেবী ভগবতী মা পার্বতীর শরীর থেকে প্রকট হন এবং পরবর্তীতে তিনি বিপদত্তারিণী বা বিপদনাশিনীরূপে পূজিত হন। ভারতবর্ষে এ পূজার প্রচলন থাকলেও বাংলাদেশের কোনও জেলায় এর প্রচলন রয়েছে কিনা- সে ইতিহাস অজানা। পাঠককান্দি মহল্লায় গত ১০ বছর ধরে বিপত্তারিণী দেবীর পূজা শুরু হয়েছে। অল্পদিনের মধ্যে এ অনুষ্ঠান জেলায় ব্যাপক সাড়া জাগিয়ে আলোড়ন সৃষ্টি করে। বিপদত্তারিণী হলেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, উড়িষ্যা ও পার্শ্ববর্তী অঞ্চলের পূজিত দেবী। তিনি সংকটনাশিনী এক দেবীরূপ এবং দেবী দুর্গার ১০৮ অবতারের অন্যতম।

আরও জানা যায়, হিন্দুরা মূলত বিপদ থেকে উদ্ধার পাওয়ার জন্য এই দেবীর পূজা করেন। মাদারীপুরের পাঠককান্দিতে প্রতিবছর দুর্গাপূজার পরে দিপাবলির পঞ্চমী থেকে দশমী তিথির শনিবার অথবা মঙ্গলবার যে কোনওদিন বিপত্তারিণী দেবীর পূজার আয়োজন করা হয়।

চলতি বছর অষ্টমী তিথি শনিবার রাধাগোবিন্দ মন্দিরে বিপত্তারিণী পূজা অনুষ্ঠিত হয়। পূজার দিন আয়োজক প্রায় ২০০ রমনী উপবাস থাকেন। পূজার একদিন আগে থেকে পূজার পর অর্থাৎ প্রতিমা বিসর্জনের দিন পর্যন্ত তারা নিরামিষ খেয়ে থাকেন। পূজার দিন সন্ধ্যায় আরতি ও পরের দিন দেবী বিসর্জনের মধ্য দিয়ে বিপদত্তারিণী বা বিপদনাশিনী মায়ের পূজা সম্পন্ন হয়।

পাঠককান্দির বিপদত্তারিণী পূজার আয়োজক নারীরাই। তারাই কর্মী ও ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পালন করেন। অপু রাণী মণ্ডল এ পূজার মূল উদ্যোক্তা এবং লক্ষ্মী রাণী দত্ত, পুষ্প রাণী কীর্তনিয়, সীমা রাণী দত্ত, সুরঞ্জনা বিশ্বাস কামনা, শিপ্রা রাণী শীল, কানন শীল, মায়া কর্মকার, দুর্গা রাণী মণ্ডল, কল্যাণী মণ্ডল, ললিত সরকার, পলি সেন, রূপা সেন, গঙ্গা রাণী শীল, রীতা রাণী মণ্ডলসহ দুই শতাধিক নারী আয়োজক। পূজার মূল উদ্যোক্তা অপু রাণী মণ্ডল বলেন, "প্রতিবছরই আমরা এই পূজা অনেক জাকজমকভাবে করে থাকি। " 

প্রচ 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71