বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮
বুধবার, ৪ঠা আশ্বিন ১৪২৫
 
 
মা দুর্গা এখন কী করবেন !
প্রকাশ: ০৯:৪৭ pm ২১-১০-২০১৫ হালনাগাদ: ০৯:৪৭ pm ২১-১০-২০১৫
 
 
 


সুকৃতি মন্ডল:  ‘দ‘ শব্দটি দৈত্যনাশক,‘উ‘ কার বিঘ্ননাশক, রেফ রোগনাশক, 'গ' কার পাপনাশক এবং 'আ' কার ভয় ও শত্রুনাশক । দৈত্য, বিঘ্ন, রোগ, পাপ, ভয় ও শত্রু হতে যিনি রক্ষা করেন তিনি দুর্গা। দেবী শক্তিরূপিণী-শক্তিরূপে তিনি সকলের ও সব কিছুর মধ্যে বিদ্যমান। তিনি সকল দেবের শক্তি, শিলন ও সমষ্টির মধ্যেই প্রকাশিতা। দেবীর পূজা- সবশ্রেণির জনগণের সেবা। দেবীর আশীর্বাদ- সবশ্রেণির মহামিলন।  দুর্গা পূজার উদ্দেশ্য- জ্ঞানশক্তি, ধনশক্তি, জনশক্তি ও আত্মরক্ষার শক্তি অর্জনপূবক শত্রু দমন, ধর্মরাজ্য সংস্থাপন এবং বিশ্বমানবের কল্যাণ সাধন।

সনাতন ধর্ম মতে, প্রতিবছর মা দুর্গা ধরাধামে আগমন করেন- ন্যায় অর্থাৎ সত্যকে প্রতিষ্ঠা কল্পে, সাধুকে রক্ষা কল্পে এবং অসুরকে বিনাশ কল্পে। এবারও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। মা দুর্গা এসেছে তার ভক্তের ডাকে। বাংলাদেশে এ ভক্তগণের একটি জাতীয় সংগঠনও আছে যার নাম- ‘বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ’। বাংলাদেশের হিন্দুরা যেমন ব্যক্তিগতভাবে মাকে ডাকেন তেমনি সাংগঠনিক ভাবেও! ব্যক্তিগতভাবে যখন মায়ের ভক্তরা তার কাছে দুঃখ-দুদর্শা, ভাল মন্দের বিচার দেয় তেমন সাংগঠনিকভাবেও আবেদন নিবেদন করেন। এ যাবৎ কালে আমরা সেটাই দেখে এসেছি; যেখানে অসুর অর্থাৎ এ পৃথিবীর অশুভকে বিনাশ করার নালীশ দিয়ে এসেছে মায়ের কাছে।


এ বছর কী এক অদ্ভুদ কান্ড ঘটে গেল গাইবান্দার সুন্দরগঞ্জ পূজা উদযাপন পরিষদের। তারা তাদের ব্যানারে অসুরকে মুক্তির দাবী করে মিছিল মিটিং করছে। পূজা মন্ডপে ব্যানার টানিয়ে প্রতিবাদ দেখে মনে হয় বিস্ময়ে হত বিহবল- এ কি তার ভক্তবৃন্দের অধঃপতন! রাষ্ট্র যেখানে স্বয়ং বাদী অর্থাৎ আমি মা দুর্গা আমিই তো রাষ্ট্র । কী করব আমি এখন? আমার ভক্তদের আজ এতটা অধঃপতন কল্পনাও করতে আমার রুচিতে বাঁধছে। কৈলাশ থেকে একটি বছর পর বাংলাদেশে ফিরে এ আমি কী দেখছি! আমার ভক্ত আমাকেই বিপদে ফেলছে !

স্বয়ং মা’য়েরই সময় এসেছে তার ভক্তদের বিচার করার; অনেক হয়েছে আর না। মা রাগ করে বললেন- এবার তোদের শেষ বারের মত বলছি-- নিজের ভাল নিজে বোঝ অন্যে কখনও তোদের ভাল বুঝবে না, আর তোরা তো অসুরের পক্ষ অবলম্বন করছিস আমার বিরুদ্বে অবস্থান নিচ্ছিস, সাবধান আমার অবাধ্য হস্ না! পূজা উদযাপন পরিষদ কর, কিন্তু মোঃ মনজুরুল ইসলাম লিটনকে মুক্তির দাবিতে মিছিল মিটিং করিসনা। এটা কিন্তু তোদের কার্যকারণ এর মধ্যে পড়ে না। এরকম হলে ঐ ব্যানারে আমাকে আর ডাকবি না। আমি কিন্তু তোদের ডাকে সাড়া দেব না; বুঝলে ভাল, তাহলে আমার ও মঙ্গল তোদের ও মঙ্গল। আশা করছি ফের দেখা হবে আগামি শরৎ-এ। 

এইবেলা ডটকম/পিসি/এসবিএস
 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71