শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯
শুক্রবার, ১৩ই বৈশাখ ১৪২৬
সর্বশেষ
 
 
মুক্তি সংগ্রামের বন্ধু জর্জ হ্যারিসন
প্রকাশ: ১১:৫৩ pm ২৯-০৩-২০১৫ হালনাগাদ: ১১:৫৩ pm ২৯-০৩-২০১৫
 
 
 


একাত্তরের ২৫ মার্চে শুরু হওয়া পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর বর্বর হত্যাযজ্ঞ এবং পুরো ৯ মাসব্যাপী মুক্তিযুদ্ধে যোদ্ধাসহ সাধারণ মানুষ, নারী-শিশুর ওপর পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর নারকীয় অত্যাচার আর গণহত্যা দেখে কেঁদে উঠেছিল বিশ্ববিবেক। এসব হত্যাযজ্ঞের নারকীয় দৃশ্য দেখে বিশ্বব্যাপী প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। বিভিন্ন সময় নানা দেশে বিবেকহীন এ গণহত্যার বিরুদ্ধে জনমত সৃষ্টি করতে পৃথিবীর অনেক মানুষ, সংস্থা ও দেশে নেয়া হয় নানা উদ্যোগ। এমনই এক মহান মানুষ জর্জ হ্যারিসন। তিনি বাংলাদেশের এ দুঃসময়ে অসহায় মানুষের পাশে এসে দাঁড়ানোর তাগিদ অনুভব করেন। ১৯৪৩ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাজ্যের লিভারপুলে জন্মগ্রহণকারী মাত্র ২৭ বছরের এ যুবক '৭১ সালে বাংলাদেশের গণহত্যার প্রতিবাদে সোচ্চার হন। বাংলাদেশের স্বাধীনতায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যক্ষ বিরোধিতাকে উপেক্ষা করে বাঙালির ওপর নির্মম এ হত্যাযজ্ঞের প্রতিবাদে নিউইয়র্কের ম্যাডিসন স্কোয়ারে হাজারো জনতার সামনে 'কনসার্ট ফর বাংলাদেশ' নামে এক কনসার্টের আয়োজন করেন, যা বিভিন্ন বিশ্ব মিডিয়ায় বিশেষভাবে আলোড়ন সৃষ্টি করে। তার সঙ্গে ছিলেন বব ডাইলামসহ ভারতের বিখ্যাত সঙ্গীতগুরু পন্ডিত রবিশঙ্কর। বাঙালির প্রতি অকৃত্রিম ভালোবাসায় উজ্জীবিত হয়ে হ্যারিসন বাংলাদেশ... বাংলাদেশ... গানটি গেয়ে কনসার্ট থেকে ১৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সংগ্রহ করে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সহায়তার জন্য পাঠান। ইউনিসেফের মাধ্যমে তা ভারতের বন্দিশিবিরে অপুষ্টির শিকার শিশুদের খাবার ও চিকিৎসার জন্য ব্যয় করা হয়। তার হৃদয়কাড়া এ গানে বাংলার মুক্তিপাগল মানুষ, যুদ্ধাক্রান্ত অসহায় নারী-শিশুর কান্না ও বেদনার কথা মূর্ত হয়ে ওঠে। বিশ্ববিখ্যাত পপ তারকা হ্যারিসনের এ মহৎকর্মে অনুপ্রাণিত হয়ে বিভিন্ন দেশ সহায়তার হাত বাড়াতে উদ্বুদ্ধ হয়। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ বেগবান হয়। ব্যান্ড মিউজিকের পাশাপাশি হ্যারিসন চিরকালই নিপীড়িত, নির্যাতিত মানুষের কল্যাণে এগিয়ে এসেছেন। গানের ভাষায় আর্তমানবতার সেবায় বাড়িয়েছেন সাহায্যের হাত। অতি সাধারণ পরিবারে জন্ম নেয়া হ্যারিসন লিভারপুল ও জার্মানির হামবুর্গের স্কুল সহপাঠীদের নিয়ে গঠিত 'বিটলস' নামে একটি ব্যান্ডদল চালাতেন। প্রথম জীবনে তিনি একজন গিটারিস্ট হিসেবে পরিচিতি পেলেও পরে একজন সফল গায়ক ও গীতিকার হিসেবে সুখ্যাতি লাভ করেন। পরোপকারী, আত্মত্যাগের মহিমায় উজ্জ্বল জীবনের অধিকারী জর্জ হ্যারিসন ২০০১ সালের ৩০ নভেম্বর লস এঞ্জেলেসে এক বন্ধুর বাড়িতে ক্যান্সার আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন।
 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71