রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮
রবিবার, ৪ঠা অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
মৃতপ্রায় শিবসা নদী; জলাবদ্ধতার আশঙ্কা
প্রকাশ: ০৯:১৭ pm ০৮-০৭-২০১৮ হালনাগাদ: ০৯:১৭ pm ০৮-০৭-২০১৮
 
খুলনা প্রতিনিধি
 
 
 
 


খুলনার পাইকগাছা পৌরসভার কোল ঘেষে শিবসা নদী ও কপোতাক্ষ নদ প্রবাহিত। যা নদীর বক্ষে পলি জমে ভরাট হয়ে মৃত প্রায়। কর্তৃপক্ষ দেখেও না দেখার ভান করছে। নদী খননের কোনো পরিকল্পনা অদ্যাবধি গ্রহণ করা হয়েছে কিনা কেউ জানে না। 

চলতি বর্ষা মৌসুমে পৌরসদর সহ কয়েকটি ইউনিয়ন জলাবদ্ধতার আশঙ্কা করছে এলাকাবাসী। উপজেলার পাইকগাছা পৌরসভার শিববাটী ব্রীজ থেকে সোলাদানা বাজার পর্যন্ত প্রায় ২০ কিলোমিটার শিবসা নদীটি পলি জমে ভরাট হয়ে যাচ্ছে। এর মধ্যে পৌরসভার শিববাটী ব্রীজ হতে বয়রা পর্যন্ত প্রায় ৫ কিলোমিটার নদীতে ভাটার সময় কোনো পানি থাকে না। ফলে পৌরসভা সহ পার্শ্ববতী এলাকা চরম ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে। 

এক কালের প্রবহমান শিবসা নদী আজ মৃত প্রায়। কালের বিবর্তনে নদীটি ভরাট হয়ে দু’পাড়ে জেগে উঠেছে বিশাল বিশাল চর। চরে একের পর এক জন্ম নিচ্ছে কেওড়া, ওড়া, বাইন, গোলপাতা সহ বিভিন্ন প্রজাতির বনজ বৃক্ষ এবং নদীটির চর ভরাটি এলাকা একের পর এক দখল করে নিচ্ছে ভূমি দস্যুরা। হারিয়ে যাচ্ছে শিবসার অতীত ঐতিহ্য। জোয়ারের সময়ও নদীটি লোকজন হেটে এপার-ওপার যাতায়াত করছে। অথচ কয়েক বছর পূর্বে এ নদীতে সব সময় চলতো অসংখ্য নৌকা, লঞ্চ, স্টিমার সহ ইঞ্জিন চালিত নৌযান। ইঞ্জিন না থাকলেও এক সময় পাল তোলা নৌকায় বসে মাঝিরা চলতো তাদের গন্তব্যে। এ নদী ছিল অনেকের জীবন-জীবিকার প্রধান উৎস। যার মধ্যে মাছ শিকার, খেয়া পারাপার, এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যাতায়াত, কিংবা নৌভ্রমণ। যা আজ শুধুমাত্র কালের সাক্ষী হয়ে আছে।

এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, শিবসা নদীতে বিশাল এলাকা জুড়ে নতুন নতুন চর জেগে উঠেছে। যা দখলের পর দখল হয়ে যাচ্ছে। জেগে উঠা চরের কোথাও কোথাও লাগানো হয়েছে কেওড়া, ওড়া ও গোলপাতা গাছ, আবার কেউ কেউ দখল করে মৎস্য চাষ করছে। এদিকে জবর দখলের ফলে নতুন নতুনভাবে ভরাটের প্রবণতা বেশি দেখা দিয়েছে। যে কারনে ক্রমেই সংকীর্ণ হচ্ছে নদীর আয়তন। পৌরসভার প্রাণ কেন্দ্র দিয়ে বয়ে যাওয়া শিবসার শহর রক্ষা বাঁধ নেই। নদীর বুক উচু হওয়ায় জোয়ারের পানি একটু অস্বাভাবিক হলেই পৌরসভার ভেতরে পানি ঢুকে প্লাবিত হয় বিভিন্ন অ ল। এ অ লের বিশ্বখ্যাত কবি মাইকেল মধুসুধন দত্তের কপোতাক্ষ নদের অস্তিত্ব বিলীনের পর এবার বিলীন হচ্ছে ঐতিহ্যখ্যাত শিবসা নদী। এ মুহুর্তে নদীটি খননের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে কপোতাক্ষ নদের মত করুণ অবস্থার রুপ নেবে শিবসা নদী।

পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর বলেন, শিবসা নদী যে ভাবে দ্রুত ভরাট হয়ে যাচ্ছে তা যদি খনন করা না হয় তাহলে পৌরবাসী সহ পার্শ্ববর্তী একাধিক ইউনিয়ন প্লাবনের সম্মুখীন হবে। 

পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী ফরিদ হোসেন বলেন, শিবসা নদী খননের ব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন। যেভাবে নদীর তলদেশ ভরাট হচ্ছে তাতে সমতল ভূমি হতে আর বেশি দিন বাকী থাকবে না।

স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব অ্যাড. শেখ মোঃ নূরুল হক বলেন, প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংসদ অধিবেশনে এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে।

এমএএম/বিডি
 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71