বুধবার, ২২ মে ২০১৯
বুধবার, ৮ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
 
 
ময়মনসিংহে জেলা পরিষদের কর্মকর্তারা মন্দির ভেঁঙ্গে দেওয়ায় তীব্র ক্ষোভ  
প্রকাশ: ০৬:১৪ pm ০৪-১২-২০১৭ হালনাগাদ: ০৬:২৩ pm ০৪-১২-২০১৭
 
রবীন্দ্র নাথ পাল, ময়মনসিংহ:
 
 
 
 


ময়মনসিংহে রবিবার শহরের পাটগুদাম ব্রীজ এলাকায় রাজা বিজয় সিংহ দূরদূরিয়া শিব ও দূর্গা মন্দির জেলা পরিষদের নির্বাহী প্রকৌশলী এ এইচ এম লোকমান হোসেন, সচিব বনানী বিশ্বাস এবং ম্যাজিস্ট্রেট এর উপস্থিতিতে ভেঙ্গে ফেলা হয়। তবে মন্দির ভাঙ্গা বা সরানোর জন্য আগে থেকে কোন নোটিশ দেয়া হয়নি। জেলা পরিষদ জায়গাটি প্রথমে দাবি করলেও পরবর্তীতে তারা তা অস্বীকার করেন।

প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানান, কর্মকর্তারা এসে সব ভেঙ্গে ফেলেন। মূর্তিটিকে বাইরে ফেলে রাখা হয়।

মন্দিরের পুরোহিত জানান, মায়ের মন্দির ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। আমার থাকার ঘরও ভাঙ্গা হয়েছে। জায়গা নিয়ে মামলা হচ্ছে। এটি দেবোত্তর সম্পত্তি। এ মন্দির ভাঁঙ্গা নিয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে বিশাল ক্ষোভ বিরাজ করছে।

সোমবার দুপুরে হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষেদের সভাপতি এড. বিকাশ রায়, পুজা উদযাপন পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক শংকর সাহা, সাধারন সম্পাদক রবেট চক্রবর্ত্তী, বিজয় সিংহ দূরদূরিয়া শিব, দূর্গা মন্দিরের সভাপতি চন্দন কুমার পাল, সাধারন সম্পাদক রতন পন্ডিত, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক প্রদীপ মোহন পাল, মহানগর পজিা উদযাপন পরিষদের সহ সভাপতি সঞ্জয় ঘোষ, হিন্দু মহাজোটের সভাপতি নারায়ন চন্দ্র পাল, সুজিত বর্মন, সজল চন্দ্র দেব প্রমুখ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। 

নেতৃবৃন্দরা জানান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জায়গাটা জেলা পরিষদের না হলেও তিনি মন্দিরটি ভাঁঙ্গবেন। এটা খুব খারাপ বিষয়। 

ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক জানান, অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য যাতে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সেজন্য ম্যাজিষ্ট্রেট আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য সেখানে উপস্থিত ছিলেন। মন্দির ভাঙ্গার বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত ছিল না। ঘটনাটি দুঃখজনক। মন্দির থেকে যে মুর্তিটি বাইরে ফেলে রাখা হয়েছে, তা রঘুনাথজি আখড়ায় সাময়িক ভাবে রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

এসকে 


 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71