বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮
বুধবার, ৭ই অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
রক্তক্ষরণজনিত রোগে আক্রান্ত মেধাবী ছাত্রী নাদিয়া বাঁচতে চাই
প্রকাশ: ০৩:৩৫ pm ২৫-০৫-২০১৮ হালনাগাদ: ০৩:৩৫ pm ২৫-০৫-২০১৮
 
নোয়াখালী প্রতিনিধি
 
 
 
 


নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে বিরল রোগে আক্রান্ত মেধাবী শিক্ষার্থী নাদিয়া আক্তার (১৬)। তার চোখ, কান, মুখ ও নাক দিয়ে ক্ষণে ক্ষণে রক্ত ক্ষরণ হচ্ছে, কিছুতেই থামছেনা রক্তক্ষরণ। 

নাদিয়া উপজেলার রামপুর ইউপির ২নং ওয়ার্ডের পজর্দি মাঝি বাড়ির ইমাম উদ্দিনের বড় মেয়ে ও বামনী আছিরিয়া সিনিয়র ফাযিল মাদ্রাসার দশম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী।

বর্তমানে নাদিয়া ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নাক, কান, গলা বিশেষজ্ঞ ডা. মুক্তি রাণী মন্ডল’র অধীনে ৩০৬ নম্বর বেড়ে চিকিৎসাধীন আছে। বিরল এ রোগে আক্রান্ত কন্যা সন্তানকে বাঁচাতে মানুষের কাছে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে চিকিৎসা ব্যয়ের অর্থ না পেয়ে থামছে না ক্ষুদ্র চা দোকানী পিতার কান্না। কোন উপায় না পেয়ে বাবা মেয়ের চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রী এবং সড়ক পরিবহন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের’র হস্তক্ষেপ কামনা করেন।  

পরিবার সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে প্রথমে মুখ থেকে রক্তক্ষরণ ও বমি হয়। এর ফলে সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে, এ অবস্থা দেখে তার পিতা প্রথমে তাকে নিয়ে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ও ঢাকার ডাক্তারদের শরণাপন্ন হয়। 

কিন্তু চিকিৎসায় উন্নতি না হয়ে একই ভাবে ৭ মাস পরও রক্তক্ষরণ অব্যাহত থাকে। সামান্য চা দোকানী পিতার পক্ষে সন্তানের এমন চিকিৎসার ব্যয়ের অর্থ যোগান দিতে না পেরে নাদিয়ার বাবা মা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। 

নাদিয়ার বাবা ইমাম উদ্দিন ও মা হাসিনা আক্তারের সাথে যোগাযোগ করলে, তারা কান্না জড়িত কন্ঠে জানান, তাদের যতটুকু সামর্থ ছিল ব্যয় করে কন্যার চিকিৎসা করিয়েছেন। এই চিকিৎসা ব্যয় বহুল। বর্তমানে তারা অর্থাভাবে সন্তানের ঠিকমত চিকিৎসা করাতে পারছে না। 

মেধাবী শিক্ষার্থী নাদিয়া বলেন, সকলে সহযোগীতায় আমি সুন্দর ভাবে বাঁচতে চাই। 

নি এম/
 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71