মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮
মঙ্গলবার, ৩রা আশ্বিন ১৪২৫
 
 
রডের বদলে বাঁশ দিয়ে তৈরি স্কুলের বাউন্ডারি
প্রকাশ: ০৯:৩৩ pm ১৩-০৭-২০১৮ হালনাগাদ: ০৯:৩৩ pm ১৩-০৭-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার মুছিকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এডিপি প্রকল্পের ৯ লক্ষ টাকার টেন্ডারপ্রাপ্ত এক ঠিকাদার বাউন্ডারি নির্মাণে রডের বদলে বাঁশ ও কাঁঠ ব্যবহার করা হয়েছে। এঘটনায় উপজেলাজুড়ে ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

জানা যায়, রড ব্যবহারের কথা থাকলেও ব্যবহার করা হয়েছে বাঁশ। এছাড়াও এর সাথে সকল প্রয়োজনীয় নির্মাণ সামগ্রী নিম্নমানের ছিল যা সম্পূর্ণ নিয়ম বর্হিভূত। ফলে দেয়ালটি হেলে পড়েছে ও ফাটল দেখা দিয়েছে। অনিয়মের বিষয়ে স্থানীয় লোকজন নির্মাণের সময় নির্মাণকারীদের বার বার বলার পরও তারা কর্ণপাত করেননি। তারা তাদের মত করে কাজ করেছেন।

এঘটনায় এলাকাবাসী বুধবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে অভিযোগ দায়ের করলে বৃহস্পতিবার সরেজমিন তদন্তে যান উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আবু তাহের ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মঈন উদ্দিন ইকবাল, উপজেলা ইঞ্জিনিয়ার, উপজেলা শিক্ষা অফিসার। এসময় জনসাধারনের উপস্থিতে বাউন্ডারীর লিন্টার ভাঙ্গা হয়। এতে নির্মাণের প্রায় অংশে রডের বদলে বাঁশের অংশ বিশেষ বের করা হয়।

স্থানীয়দের অভিযোগ এ কাজের দায়িত্বপ্রাপ্ত এএসইউ মর্তুজ আলীকে একাধিকবার জানালেও তিনি এবিষয়ে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি। এএসইউ মর্তুজ আলীকে ম্যানেজ করেই ঠিকাদার অনিয়মের কাজটি করেছেন। এলাকাবাসী অনিয়মকারীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জোর দাবি জানান।

সূত্রে জানা যায়, স্কুলের ওয়ালের নির্মাণ কাজের দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কেবি কনট্রাকশন মোঃ রিফন আহমেদকে। অভিযোগ রয়েছে, নিয়ম অনুযায়ী সঠিক পরিমাণে ভাল মানের বালু, সিমেন্ট ব্যবহারের কথা থাকলেও ঐ ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান নিম্নমানের বালু, সিমেন্ট ব্যবহার করেছেন। নামমাত্র কাজ করেছেন। ফলে সবার চোখের আড়ালেই রডের বদলে বাঁশের ফলা ও ছোট ছোট বাঁশ, ময়লা বালু, পাথর দিয়ে নির্মাণ কাজ করা হয়েছে।

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আবু তাহের এ বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত করে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মঈন উদ্দিন ইকবাল জানান- তদন্ত করে নির্মাণ কাজে অনিয়মের বিষয়টি দেখেছি, ঘটনা সত্য। পুনরায় কাজটি অন্য ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানকে দেয়া হবে। আর ঠিকাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে এবং তার লাইসেন্স বাতিলের জন্য কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।

বিডি

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71