মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
মঙ্গলবার, ৭ই ফাল্গুন ১৪২৫
 
 
রাজাপুরে গৃহবধূকে গণধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২
প্রকাশ: ০৯:২৭ pm ৩০-১১-২০১৭ হালনাগাদ: ০৯:২৭ pm ৩০-১১-২০১৭
 
ঝালকাঠি প্রতিনিধি:
 
 
 
 


ঝালকাঠির রাজাপুরের মেডিকেল মোড়ের জালিয়াবাড়ি ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় পঙ্গু স্বামীকে বেঁধে রেখে তার সামনেই তার স্ত্রীকে ৩ জন মিলে পালাক্রমে গণধর্ষণ করার ঘটনায় উপজেলা শ্রমিককলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মনির ওরফে টাইগার মনির (৪৮) ও বালু ব্যবসায়ী মোঃ ছিদ্দিককে (৫০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

শ্রমিককলীগের বর্তমান উপজেলা সাধারণ সম্পাদক মনির উপজেলা সদরের বাইপাস এলাকার মৃত আঃ হাকিম হাওলাদার ছেলে এবং বালু ব্যবসায়ী সিদ্দিক পার্শবর্তী উপজেলা ভান্ডারিয়ার শিয়ালকাঠি গ্রামের মৃত হোসেন আলী হাওলাদার।

বুধবার বিকেলের এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২ টার দিকে রাজাপুর থানায় এসে অভিযোগ দিলে পুলিশ রাত ২ টার দিকে অভিযান চালিয়ে টাইগার মনিরকে ও ভোররাতে সিদ্দিক আটক করে। পরে বৃহস্পতিবার সকালে ওই গৃহবধূ গণধর্ষনকারী ৩ জন ও দুই সহযোগীসহ ৫ জনের নামে মামলা দায়ের করলে আটক দুইজনকে গ্রেফতার দেখিয়ে দুপুরে আদালতে প্রেরণ করে এবং গৃহবধূকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।  

মামলা সূত্রে জানা গেছে, পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার উত্তর ভিটাবাড়িয়া গ্রামের ওই গৃহবধূ তার দিনমজুর স্বামী ও এক সন্তান নিয়ে রাজাপুরের জালিয়াবড়ি ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় আঃ মান্নান হাওলাদারের টিনশেড পাকা বসতঘরে একটি টিনসেট বাসায় একমাস ধরে ভাড়া থাকছেন। দিনমজুর স্বামী এক সপ্তাহ আগে গাছ থেকে পড়ে পা ভেঙ্গে বর্তমানে পঙ্গু অবস্থায় বাসায় রয়েছেন। গণধর্ষণে জড়িত আসামীরা ওই গৃহবধূর স্বামীর পূর্ব পরিচিত। সেই সুযোগে আসামী টাইগার মনির ও মনির ২৯ নভেম্বর বিকেলে বসতঘরে প্রবেশ করে সামনের কক্ষে অবস্থানরত অসুস্থ স্বামীর সাথে কথাবার্তা এক পর্যায়ে তাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে বেঁধে জিম্মি করে রাখে এবং ওই গৃহবধূ রান্না করতে থাকা অবস্থায় আসামী টাইগার মনির, মোঃ ছিদ্দিক ও মনির মোল্লা রান্নাঘরে প্রবেশ করে কালো রংয়ের ১টি চাকু দেখিয়ে জিম্মি করে মাঝের ঘরে নিয়ে প্রথমে আসামী টাইগার মনির ওই গৃহবধূর মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে একইভাবে আসামী ছিদ্দিক ও ৪ নম্বর আসামী ভান্ডারিয়ার জোলাগাতি গ্রামের মৃত মেনাজ হাওলাদার ছেলে মামুন হাওলাদার (৪২) তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে এবং ভান্ডারিয়ার মেদিরাবাদ গ্রামের সোবহান মোল্লার ছেলে মনির মোল্লা (৪২) ও ভান্ডারিয়ার জোলাগাতি গ্রামের মৃত মকবুল বিশ্বাসের ছেলে চুন্নু বিশ্বাস (৪২) পঙ্গু স্বামীর ভাঙ্গা পায়ে আঘাত করে ভয় দেখিয়ে খাটের সাথে বেঁধে জিম্মি করে রাখে। 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রাজাপুর থানার এসআই আব্দুস সালাম জানান, গ্রেফতারকৃত মনির ও সিদ্দিককে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে ও ওই গৃহবধূর ডাক্তারী পরীক্ষা করানো হচ্ছে। অপর পলাতক ৩ আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে। গ্রেফতারকৃত মনিরের বিরুদ্ধে একাধিক ধর্ষণ ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অভিযোগ রয়েছে। 

এমএআরআর/আরপি

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71