শনিবার, ২৫ মে ২০১৯
শনিবার, ১১ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
 
 
রাজীব মীরের বিরুদ্ধে ফের যৌন হয়রানির অভিযোগ
প্রকাশ: ১০:২৩ am ০৪-০৫-২০১৬ হালনাগাদ: ১০:২৩ am ০৪-০৫-২০১৬
 
 
 


জবি প্রতিনিধি : ছাত্রীকে একাডেমিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করার হুমকি প্রদান ও অনৈতিক প্রস্তাব দেওয়ার অপরাধে সাময়িক বরখাস্ত হওয়া জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতার শিক্ষক রাজীব মীরের বিরুদ্ধে ফের যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠেছে।

সোমবার বিভাগের স্নাতক পর্যায়ের দুই ছাত্রী তার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ এনে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।এর আগে আরও দুই ছাত্রী রাজীব মীরের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করেছিলেন।

সোমবার হাইকোর্টের নির্দেশে গঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন হয়রানি প্রতিরোধ সেলে মুখোমুখি হয়ে অভিযোগের প্রেক্ষিতে প্রমাণাদিও প্রদান করেন তারা।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মীজানুর রহমান বলেন,আমরা লিখিত অভিযোগ পেয়েছি।এর সত্যতা যাচাই করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়াও বিষয়টি যৌন হয়রানি প্রতিরোধ সেলে প্রেরণ করা হচ্ছে।

ছাত্রীদের অনৈতিক প্রস্তাব দেওয়ায় ২০০৪ সালে পূর্বতন কর্মস্থল চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শামসুন্নাহার হলে রাজীব মীরকে আটকে রেখেছিল ছাত্রীরা। ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে যৌন নিপীড়নের একাধিক অভিযোগ ওঠেছিল তার বিরুদ্ধে।

এদিকে গত ৫ এপ্রিল বিভাগের মাস্টার্সের এক ছাত্রী রাজীব মীরের বিরুদ্ধে একাডেমিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করার হুমকি প্রদানের অভিযোগ করেন উপাচার্যের কাছে। এছাড়া অতীতেও উদ্দেশ্যমূলকভাবে রাজীব মীর তাকে কম নম্বর দিয়েছেন বলেও ওই ছাত্রী অভিযোগ করেন। অভিযোগের স্বপক্ষে মুঠোফোন রেকর্ডও জমা দিয়েছিলেন ওই ছাত্রী।

এ ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটি প্রাথমিক তদন্তের ভিত্তিতে গত ১১ এপ্রিল রাজীব মীরকে সাময়িক অব্যহতি দিয়েছিল মাস্টার্সের ক্লাস থেকে। তবে রাজীব মীরের স্থায়ী অপসারণ চেয়ে দুটি প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠন ক্যাম্পাসে একাধিক দিন বিক্ষোভ করেছে।

অন্যদিকে বিভাগের স্নাতক পর্যায়ের কয়েকজন শিক্ষার্থীও রাজীব মীরের বিরুদ্ধে একাডেমিক নিরাপত্তা চেয়ে উপাচার্যের কাছে অভিযোগ করে।পরবর্তীতে ওই তদন্ত কমিটি রাজীব মীর, বিভাগের অন্যান্য শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিযোগকারী শিক্ষার্থীদের বক্তব্য গ্রহণ করে। তদন্ত কমিটি অভিযোগকারী ওই ছাত্রীর স্নাতকের চার বছরের ফলাফলও খতিয়ে দেখেছে। এছাড়াও অন্যান্য প্রমাণাদি বিশ্লেষণ করে কমিটির প্রতিবেদনে রাজীব মীরের অপরাধ প্রমাণিত হয়।এর প্রেক্ষিতে রাজীব মীরকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭১তম সিন্ডিকেট সভায় সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

এর আগে, ২০১৪ সালেও বিশ্ববিদ্যালয়ে রাজীব মীরের বিরুদ্ধে ছাত্রীদের অনৈতিক প্রস্তাব দেওয়া ও জঙ্গিবাদের মদদ দেওয়ার অভিযোগ এনে তার স্থায়ী অপসারণ চেয়ে মানববন্ধন করেছিল কয়েক শতাধিক শিক্ষার্থী।

এইবেলাডটকম/খালিদ/এএস

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71