বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮
বুধবার, ৪ঠা আশ্বিন ১৪২৫
 
 
রামায়ণে রাম-রাবণের যুদ্ধের মূলে ছিল শূর্পণখা
প্রকাশ: ০৪:১২ pm ২৯-১১-২০১৭ হালনাগাদ: ০৪:১২ pm ২৯-১১-২০১৭
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


শূর্পণখা হলেন রাবণের বোন৷ ঋষি বিশ্রভা ও তাঁর স্ত্রী কৈকেসীর কন্যা তিনি৷ তাঁকে বাল্মীকি কুৎসিত বলেই বর্ণনা করেছেন।

পিতৃসত্য পালন করতে ১৪ বছরের বনবাস মেনে নিয়ে রামচন্দ্র বনবাসে গেলে তাঁর সঙ্গী হয়েছিলেন স্ত্রী সীতা এবং ভাই লক্ষ্ণণ৷ সেই বনবাসের সময় একদিন শূর্পণখা কাম-জর্জরিত হয়ে রামচন্দ্রকে বিয়ে করতে চেয়েছিলেন। তখন রামচন্দ্র জানিয়েছিলেন, তিনি বিবাহিত, ওঁর বদলে লক্ষ্মণকে বিয়ে করতে। তখন শূর্পণখা লক্ষ্মণকে বিয়ে করতে চাইলে লক্ষ্ণণও তাঁকে প্রত্যাখ্যান করেন৷ তখন শূর্পণখার মনে হয় সীতার উপস্থিতির জন্য তাঁর বিয়ের প্রস্তাব নাকচ হয়ে গেছে৷

তাই শূর্পণখা তখন রেগে গিয়ে সীতাকে খেতে গেলেন। আর সেটাই তাঁর কাল হল। রামের আদেশে লক্ষ্মণ শূর্পণখার নাক ও কান কেটে দেন। তখন রক্তাক্ত শূর্পণখা প্রথমে তাঁর রক্ষক খর ও দূষণের কাছে গিয়ে নালিশ করেন৷ কিন্তু রাম লক্ষ্মণের হাতে খর ও দূষণের মৃত্যু হয়৷ এরপর শূর্পণখা রাবণকে সব বৃত্তান্ত জানিয়ে রামের সুন্দরী স্ত্রী সীতাকে হরণ করার জন্য উত্তেজিত করেন। তারপরেই সীতাহরণই এবং এরই জেরে রাম-রাবণের যুদ্ধ৷ যার পরিণতি হল রাবণের পরাজয় ও রামের সীতা উদ্ধার।

উপরের এই ঘটনার জন্য অনেকেই মনে করেন রাম ও রাবণের যুদ্ধের মূলে ছিলেন এই শূর্পণখাই ৷ আবার কথিত আছে রাবণের হাতেই শূর্পণখার স্বামীর মৃত্যু হয়েছিল বলেই পরবর্তীকালে প্রতিশোধ নিতে রাবণ-নিধনের এক সুদূর-প্রসারী পরিকল্পনা করেই এমনটা ঘটিয়েছিলেন এই নারী৷ যদিও নিতান্ত ঘটনাচক্রে এমনটা ঘটেছিল বলে অনেকে মনে করেন৷

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71