রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮
রবিবার, ৮ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
লাঙ্গল থেকে শুরু করে তানপুরার সুরে যার বিচরণ তিনিই পন্ডিত রামকানাই দাশ
প্রকাশ: ০৬:৪৫ pm ২০-০৫-২০১৭ হালনাগাদ: ০৬:৪৫ pm ২০-০৫-২০১৭
 
 
 


সিলেট : উদীচী বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সহ সভাপাতি ও বিশিষ্ট সাংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব ব্যারিস্টার মো. আরশ আলী বলেছেন, লাঙ্গল থেকে শুরু করে তানপুরার সুরে যার বিচরণ তিনিই পন্ডিত রামকানাই দাশ।

আজন্মজীবন জিজ্ঞাসা আর নিরন্তর পরিচর্যা তাকে এই অনন্যতা দিয়েছে। তিনি নিজে বলতেন তিনি একজন চাষী। একসময় জমিতে লাঙ্গল চালিয়ে ফসল ফলিয়েছেন সেই হাতে আবার তানপুরার তার বেধে সুরের মূর্ছানায় আমাদের মোহিত করেছেন। তাই লাঙ্গল থেকে তানপুরা সুদীর্ঘ জীবনি আমাদের শুধু রোমাঞ্চিত করে না পাশাপাশি জানিয়ে দেয় জীবন জয়ের গল্প।

রামকানাই দাশ আজ আমাদের মাঝে নেই। তার সৃষ্টি এবং সাংস্কৃতিকে ধরে রাখতে হবে। এতে করে তার প্রতি যথাযথ সম্মান দেখানো হবে। সংগীত পরিষদ তার প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠান। সিলেটসহ দেশের বড় বড় শিল্পীরা এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী। রামকানাই দাশের রচিত ও সাররোপিত গান ছেিড়য়ে দিতে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। এটা কারো একার পক্ষে সম্ভব না। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় কাজ করে যেতে হবে। এটা আমাদের পবিত্র দায়িত্ব। 
 

একুশে পদকপ্রাপ্ত সংগীতশিল্পী পন্ডিত রাকানাই দাশের ৮২তম জন্ময়জন্তী উপলক্ষে আয়োজিত দুইদিন ব্যাপী রামকানাইগীতি প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমপানী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। গতকাল শুক্রবার সংগীত পরিষদ সিলেটের উদ্যোগে নগরীর ক্বীনব্রীজ সংলগ্ন সম্মিলিত নাট্য পরিষদের মহড়া কক্ষে এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। 
 

তিনি আরো বলেন, রামকানাই দার সাথে আমার পরিচয় উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর মাধ্যমে। সিলেটের উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী তো রামকানাই দার হাত ধরে এগিয়েছে। রামকানাই দার সুরারোপিত গণসংগীত অনুপ্রেরণা যুগিয়েছে নিপিড়িত মানুষকে। 
 

শাহাজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষিকা ড. নাজিয়া চৌধুরী সভাপতিত্বে ও সংগীত পরিষদের সাধারণ সম্পাদক পিনুসেন দাশের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচকের বক্তব্য রাখেন কবি ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব তুষার কর। 
 

কবি তুষার কর বলেন, পন্ডিত রামকানাই বাঁধন না মানা গিরিশিখরের জল। সংগীতের ত্রিবেণী, সঙ্গম, বনস্পতি। এই গুণি মানুষটির উচ্চাঙ্গ সংগীত, লোকসংগীত যেমন তেমনি রবীন্দ্রসংগীতজ্ঞ সহজ প্রসন্নতা পেয়েছে। শিক্ষার্থীদের মধ্যে তা তিনি দিয়ে গেছেন সেই শিক্ষার ঐশ্বর্য। 
 

এসময় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগীত পরিষদের দপ্তর সম্পাদক মামুন পারভেজ। কর্মশালা পরিচালনা করেন, বিশিষ্ট নজরুল সংগীত শিল্পী অনিন্দিতা চৌধুরী, সংগীত পরিষদের শিক্ষা কর্মী সুকণ্যা শৈলি ও লোকসংগীত শিল্পী ধরণী কান্ত দাশ। 
 

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সংগীত পরিষদে কোষাধ্যক্ষ রাজীব দে চৌধুরী, সদস্য স্বরাজ চন্দ্র দে, সংগীত শিল্পী সীমারানী সরকার, লিংকন দাশ, জয়ন্ত দামশ প্রমুখ। 
 

উল্লেখ্য, গত ১৫ এপ্রিল একুশেপদপ্রাপ্ত সংগীত সাধক পন্ডিত রামকানাই দাশের ৮২তম জন্মজয়ন্তী ছিল। এ উপলক্ষে গত বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার (১৯ ও ২০ মে) দুই দিনব্যাপী রামকানাই দাশ রচিত ও সুরারোপিত গানের কর্মশালা আয়োজন করা হয়। 

এইবেলাডটকম /আরডি

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71