বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮
বুধবার, ৪ঠা আশ্বিন ১৪২৫
 
 
শোওয়ার ঘরে ঠাকুরের ছবি রাখতে করণীয়
প্রকাশ: ০৮:০৭ pm ০৬-০৩-২০১৮ হালনাগাদ: ০৮:০৭ pm ০৬-০৩-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


অনেকেই আমার না জেনেই শোয়ার ঘরে ঠাকুরের ছবি বা ঠাকুরের আসন পেতে থাকি, যা করা একেবারেই উচিত নয়। কারণ শাস্ত্র মতে শোয়ার ঘরে এমন কিছু কাজ আমরা করে থাকি, যা একেবারেই পবিত্র নয়। তাই এমন জায়গায় দেব-দেবীর পূজা বা আরাধনা করা একেবারেই ঠিক কাজ নয়। 

জানার বিষয় হল একান্তই যাদের শোয়ার ঘরে ঠাকুরের ছবি বা আসন না রাখলে চলবে না, তারা কী করবেন? এক্ষেত্রে কতগুলি নিয়ম মেনে চলতে হবে। যেমন ধরুন... 

১. প্রতিদিন নিয়ম ঠাকুরের ছবি পরিষ্কার করতে হবে: 
শোয়ার ঘরে ঠাকুরের আসন বা ছবি রাখলে তা প্রতিদিন পরিষ্কার করতে ভুলবেন না যেন! কারণ এমনটা করলে নেগেটিভিটি মাত্রা কমবে। সেই সঙ্গে ঠাকুরের আসনের আশপাশ কিছুটা হলেও পবিত্র থাকবে। 

২. প্রতিদিন পূজা করতে হবে: 
শোয়ার ঘরে রাখা ঠাকুরের ছবির সামনে প্রতিদিন সকালে স্নান সেরে ধুপ-ধুনো জ্বালাতে হবে। সেই সঙ্গে কুমকুম বা চন্দনের লেপ ঠাকুর মাথায় লাগাতে হবে। এমনটা করলে শুভ শক্তির আশীর্বাদ সব সময় পরিবারের প্রতিটি সদস্যের উপর থাকবে। 

৩. ঠাকুরের দিকে পা করে শোবেন না: 
শোয়ার ঘরে ঠাকুরের ছবি বা আসন পাততে হলে একটি বিষয় খেয়াল করা একান্তই প্রয়োজন। কী সেই বিষয়? শোয়ার সময় ভুলেও পা ঠাকুরের দিকে করবেন না বা খেয়াল রাখবেন আপনার পা ঠাকুরের ছবি বা মূর্তির গায়ে যেন না লাগে। 

৪. ঠাকুরের ছবি ছোঁয়ার আগে ভাল করে হাত ধুয়ে নেবেন: 
এমনটা করতে কেন বলা হয় জানেন? কারণ দেব-দেবীরা হলেন পবিত্রতার প্রতীক। তাই তো তাঁদের ছোঁয়ার আগে নিজেকেও কিছুটা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করে নেওয়া উচিত! না হলে বাড়ির অন্দরে শুভ শক্তির প্রভাব কমতে শুরু করে। আর এমনটা আপনার সঙ্গেও ঘটুক, তা নিশ্চয় চাইবেন না! 

৫. ঠাকুরের সামনে আগুন আনবেন না: 
ধূপ-ধুনো দিয়ে পূজা করতেই পারেন। কিন্তু সাবধান! কারণ ঠাকুরের ছবিতে আগুন লেগে যাওয়া পবিত্র ঘটনা নয় বলে বিশ্বাস করা হয় হিন্দু শাস্ত্রে। তাই এই বিষয়টি খেয়াল রাখা একান্ত প্রয়োজন। 

৬. শোয়ার ঘরকে একেবারে অন্ধকার করে রাখবেন না: 
একান্তই যদি বেড রুমে ঠাকুরের আসন পাততে হয়, তাহলে ভুলেও কোনও সময় শেয়ার ঘর অন্ধকার করবেন না। ছোট একটা ডিম লাইন সব সময় জ্বালিয়ে রাখবেন। কারণ ঠাকুরের ছবি বা মূর্তি অন্ধকারে রাখা উচিত নয়।


আরপি

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71