মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮
মঙ্গলবার, ২৯শে কার্তিক ১৪২৫
 
 
শ্বেতী রোগ নিয়ন্ত্রণ সম্ভব
প্রকাশ: ১০:২১ am ২৯-০৬-২০১৮ হালনাগাদ: ১০:২১ am ২৯-০৬-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


বর্তমানে পৃথিবীতে প্রায় ১-২ শতাংশ মানুষ শ্বেতী রোগের শিকার। অঙ্কটা শুনতে কম হলেও, পরিবর্তিত পরিস্থিতি ও অভ্যাসের ফলে এই অসুখের প্রাদুর্ভাব বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা বরং ভাবাচ্ছে চিকিৎসকদের। 

শ্বেতী রোগ সাধারণত শরীরের কোনো বিশেষ স্থানের ত্বকের রং উৎপাদনকারী কোষ বা মেলানোসাইট রোগাক্রান্ত হলে বা সংখ্যায় কমে গেলে অথবা মরে গেলে মেলানিন নামক ত্বকের রঞ্জক (রং) তৈরি বন্ধ হয়ে যায় এবং ওই নির্দিষ্ট স্থানে সাদা দাগ পড়ে। শ্বেতী কোনো ছোঁয়াচে রোগ নয় বা প্রানঘাতি নয়। বিজ্ঞানীরা এই রোগের কারণ এখনও জানতে পারেননি। 

শ্বেতীর প্রবণতা কমাতে দুনিয়ার বিভিন্ন গবেষণা্য় উঠে এসেছে নানা তথ্য। নিজের ডায়াটে রাখা যেতেই পারে এমন কিছু খাবার, যার প্রভাবে অনেকটাই কমতে পারে শ্বেতী।

১. যে কোনও পাকা ফল, বিশেষত পাকা আম বা পাকা পেঁপে রাখুন খাদ্যতালিকায়।

২. এড়িয়ে চলুন সূর্যালোক। তাহলে কি বাড়ির বাইরে বোরনোই মানা?  তা নয় মোটেই। সূর্যের আলোয় বেরোলে ব্যবহার করুন চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী প্রয়োজনীয় সানস্ক্রিম।

৩. কমান মানসিক উদ্বেগ। শ্বেতীসহ নানা চর্মরোগকেই ছড়ায় মানসিক চাপ। তাই চেষ্টা করুন ফুরফুরে থাকতে।

৪. খাদ্যতালিকায় রাখুন ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ খাবার।

৫. যে কোনও রাসায়নিক এ ক্ষেত্রে ক্ষতি করতে পারে। তাই কমমেটিকস, ব্যাগ, জুতো কেনার সময় পরামর্শ নিন চিকিৎসকের। পারলে কালো রং ও খাঁটি চামড়ার জিনিস এড়িয়ে চলুন।

ভাঙুন ভ্রান্ত ধারণা

১. শ্বেতী মানেই তা বংশগত নয়। বরং শতাংশের হিসেবে খুব কম প্রকারের শ্বেতীই জিনগত।

২. চিকিৎসাবিজ্ঞানের মতে, শ্বেতী কখনওই ছোঁয়াচে নয়। গুজব বা ভুল বোঝানোয় পা না দিয়ে ভরসা রাখুন বিজ্ঞানে।

নি এম/
 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71