শনিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৮
শনিবার, ৫ই কার্তিক ১৪২৫
 
 
সংখ্যালঘু মানুষের উন্নয়নঃ বঞ্চনা ও রাজনৈতিক অর্থনীতি
প্রকাশ: ০৩:৫৭ pm ১৮-১২-২০১৬ হালনাগাদ: ০৪:০১ pm ১৮-১২-২০১৬
 
 
 


চন্দন সরকার ||

অর্থনীতি উন্নয়ন বলতে প্রায়শ আমরা বুঝে থাকি মোট দেশজ সম্পত্তির উৎপাদনের বৃদ্ধি অথাৎ GDP অথবা মাথাপিছু মানুষের আয়ের বৃদ্ধি। এই ধারণাটি অনেকাংশেই ভুল, কারণ মাথাপিছুর গড় হিসেবে যে উন্নয়ন সরকার দেখায় তা যাদের মাথার সংখ্যা দেশী তাদের বাদ দিয়েও মাথা পিছু আয় বাড়ানো সম্ভব।

আসি দেশের সংবিধানের অনুযায়ী জনগণই প্রজা্তন্ত্রের মালিক এবং রাস্ট্র অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান শিক্ষার পাশাপাশি সকল নাগরিকের জন্য সুযোগের সমতা নিশ্চিত করবে এবং মানুষে মানুষে সামাজিক ও অর্থনীতিক অসাম্য বিলোপ করবে । কেবল ধর্ম গোষ্টি, বর্ণ নারী বা পুরুষভেদে কোন নাগরিকের প্রতি রাষ্ট্র পক্ষপাতিত্য করবে না।

এখন প্রশ্ন হলো সংখ্যালঘু জনগোষ্টি কি জনগণ? তাদের প্রতি রাষ্ট্রের কোন বৈষম্য আচরন থাকবে না – এটা কতটুকু প্রযোয্য? যেখানে একজনকে ধর্ম অবমাননার দোহাই দিয়ে কান ধরে উঠবস করা হয়, অথচ অন্য জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়।ধর্ম অবমাননার দোহাই দিয়ে গ্রামের গ্রাম জালিয়ে দেওয়া হয় – অথচ মুখ্য রসরাজ নির্দোষ, তারপরও তার জামিন মেলে না। গোবিন্দগঞ্জে সাওতালদের ঘরবাড়িতে আগুন- সে আবার পুলিশ জড়িত। সংখ্যালঘুদের অত্যচারের বিচার চাইতে যাওয়ার জন্য পিয়ালরা জেলে – মুহুতে তিনটি কেস হয়ে যায় তাদের বিরুদ্ধে- এতোদিন পরও তাদের জামিন মেলেনা। অর্পিত সম্পত্তির মারপ্যাচে হিন্দুরা নিঃস্ব । অথচ স্বাধীনতা যুদ্ধে তাদের অবদান অনেক অনেক। দেশে একটিও হিন্দু রাজাকার পাওয়া যাবে না অথচ তারা আজ নিজের বাপ দাদা মায়ের ভিটেই পরবাসি। এক্ষেএে কল্যাণ কামী রাস্ট্রের দায়ত্ব ছিল উন্নয়নের সাংবিধানিক নির্নয় করা এবং সর্বজনীন করা যাতে সবাই এর সুফল পেতে পারে। কিন্তু বিষয়টা যদি উল্টো হয় তাহলে কি ভাববো? উন্নয়ন প্রকৃইয়ার যে দাবীই করা হোক না কেন প্রকৃত উন্নয়ন হয়েছি কি?

১) অর্থনৈতিক স্বাধীনতা

২) রাজনিতিক ও সামাজিক সুবিধা

৩) স্বচ্ছতার এবং ব্যক্তিগত নিরাপত্তা

এই সমস্ত স্বাধীনতার কোনটি দৃশ্যমান সংখ্যালঘুদের ?

 

আরো পড়ুন::  নব্য কলোনীয়াল থিউরীর কবলে বাংলাদেশের হিন্দুরা

 

 

এইবেলাডটকম/প্রচ

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71