রবিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
রবিবার, ১২ই ফাল্গুন ১৪২৫
সর্বশেষ
 
 
সাভারে অপহরণের ৩ দিন পর হিন্দু শিশুর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার
প্রকাশ: ১০:০৬ am ০৫-০৭-২০১৮ হালনাগাদ: ০৪:১৭ pm ০৬-০৭-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


সাভারের হেমায়েতপুর থেকে অপহরণের তিনদিন পর শ্রী জয়ন্ত নামে চার বছরের এক শিশুর বস্তাবন্ধী লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় জড়িত অভিযোগে শুভ ও নাছির নামে দুই যুবকে আটক করেছে পুলিশ। 

নিহত শিশুর নাম জয়ন্ত পাল। তার বাবা সুনু পাল ও মা পার্বতী পাল। তারা হেমায়েতপুরে ব্যাবিলন পোশাক কারখানায় কাজ করেন।

বুধবার (৪ জুলাই) রাত ১১টার দিকে সাভার-সিংগাইয়ের সীমানা ব্রিজের নীচে বংশী নদী থেকে এ মরদেহ উদ্ধার করা হয়। 

সাভার মডেল থানার উপপরিদর্শক আজগর আলী জানান, গত রবিবার দুপুরে শিশুটি বাসার সামনে খেলা করছিল। এ সময় খাবারের লোভ দেখিয়ে একই বাসার ভাড়াটিয়া শুভ ও তার বোনের জামাই নাসির শিশু জয়ন্তকে তাদের ঘরে নিয়ে যায়। এরপর গলায় গামছা পেঁচিয়ে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে। পরে একটি ব্যাগের মধ্যে শিশুটির লাশ ভরে রাখে। ওই দিন রাতেই তারা ব্যাগের মধ্যে ইট বেঁধে লাশ গুম করার জন্য সিংগাইর ব্রিজের নিচে পানিতে ফেলে দেয়।

এদিকে, কারখানা থেকে বাসায় ফিরে ছেলেকে না পেয়ে সোমবার সকালে সুনু পাল সাভার মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। সোমবার দুপুরে মোবাইল ফোনে অপহরণকারীরা শিশুটির বাবা সুনু পালের কাছে এক লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। ছেলের জীবন বাঁচাতে জয়ন্তের বাবা বিকাশের মাধ্যেমে তাদের সাত হাজার টাকা পরিশোধ করেন।

বিষয়টি পুলিশকে জানালে উপপরিদর্শক আজগর আলী মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে বুধবার সন্ধ্যায় হেমায়েতপুর মুসলিমপাড়া থেকে শুভ শেখ ও তার বোনের জামাই নাসির শেখকে গ্রেফতার করে।

অপহৃত শিশুর বাবা জানান, ১ জুলাই সকাল ১১টার পর থেকে শিশু জয়ন্ত নিখোঁজ ছিল। মাইকিং ও অনেক খোঁজাখুঁজির পর না পেয়ে গত ২ জুলাই থানায় সাধারণ ডায়েরি করে। এদিকে অপহরণকারী মুক্তিপণ চেয়ে এক লাখ টাকা দাবি করে। পরে বিকাশে ৭ হাজার টাকাও দেয়া হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হত্যার কথা স্বীকার করেছে। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ ব্রিজের নিচে কচুরিপানার ভেতর থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71