বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮
বুধবার, ৪ঠা আশ্বিন ১৪২৫
 
 
সামরিক সরকারের মন্ত্রী ছিলাম, জাপা করিনি : অর্থমন্ত্রী
প্রকাশ: ০৭:৩২ pm ১১-০৬-২০১৮ হালনাগাদ: ০৭:৩২ pm ১১-০৬-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত দাবি করেছেন, তিনি কখনো জাতীয় পার্টির (জাপা) সদস্য বা মন্ত্রী ছিলেন না। তিনি ছিলেন এইচ এম এরশাদের সামরিক সরকারের মন্ত্রী। দলটির সদস্যরা ভবিষ্যতে তাকে জাপার সাবেক মন্ত্রী বললে তিনি যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন বলেও জানিয়েছেন।

সোমবার সংসদে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের সম্পূরক বাজেটের উপর সমাপনী আলোচনায় এই হুঁশিয়ারি দেন তিনি। এর আগে জাপার সংসদ সদস্য সেলিম উদ্দিন তার বক্তব্যে মুহিতকে জাতীয় পার্টির সাবেক মন্ত্রী হিসেবে উল্লেখ করেন।

সংসদে ক্ষোভ প্রকাশ করে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, আমি আগেও কয়েকবার বলেছি যে, আমি কোনোদিন জাতীয় পার্টির সদস্য ছিলাম না, মন্ত্রীও ছিলাম না। জেনারেল এরশাদের সামরিক সরকারের মন্ত্রী ছিলাম। জাতীয় পার্টির তখন জন্মও হয়নি।

তিনি আরো বলেন, আশা করি তারা (জাপা) মনে রাখবেন। যদি মনে না রাখেন, তবে আমি তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

প্রসঙ্গত, ৮৫ বছর বয়সী সাবেক আমলা মুহিত এইচ এম এরশাদের সামরিক সরকারের অর্থমন্ত্রী হিসেবে দুটি বাজেট দিয়েছিলেন। আওয়ামী লীগের অর্থমন্ত্রী হিসেবে এবার নিয়ে টানা ১০টি বাজেট দিয়ে রেকর্ড গড়েছেন।

গত বছরও সংসদে সম্পূরক বাজেটের আলোচনায় মুহিত বলেছিলেন, আমি জাতীয় পাটির সদস্যও ছিলাম না, মন্ত্রী তো দূরের কথা। এইচ এম এরশাদ ১৯৮২ সালে ঘোষণা করলেন যে তিনি অন্তর্বর্তীকালীন নির্দলীয় সরকার গঠন করেছেন। এর দুবছর পর তিনি পার্টি গঠন করেন। পাটির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত চাইলে আমি পদত্যাগের কথা জানিয়ে দেই এবং পরে পদত্যাগ করি।

সোমবার অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যের পর সম্পূরক বাজেটের বিভিন্ন মঞ্জুরি দাবি এবং এর উপর আনা ছাঁটাই প্রস্তাবের আলোচনায় জাতীয় পার্টির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ পুনরায় প্রসঙ্গটি তুলে বলেন, এম এ মুহিত জাপার জন্মের বহু আগেই এরশাদের সামরিক সরকারের অর্থমন্ত্রী হিসেবে বাজেট দিয়েছেন। আমরা এটা রেকর্ডে রাখতে চাই, তিনি (মুহিত) আমাদের জাতীয় পার্টির কখনোই সদস্য ছিলেন না।

সেই সঙ্গে অর্থমন্ত্রীকে তিনি আশ্বস্ত করতে চান, অর্থমন্ত্রীর মতো একজন জ্ঞানী-গুণী মানুষকে জাপা ভবিষ্যতে স্থান দেবে না। জাপার সদস্যদের বিরুদ্ধে তাকে আদালতে যেতে হবে না, কিন্তু ব্যাংক ডাকাতদের সুরক্ষা দেয়ায় তাকে আদালতে যেতে হবে।


বিডি

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71