মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮
মঙ্গলবার, ২৭শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
সিজারের ঝুঁকি না নিয়ে ব্যথামুক্ত সন্তান প্রসবে ‘ইপিডুরাল’
প্রকাশ: ০৯:১৩ pm ২৬-০৯-২০১৮ হালনাগাদ: ০৯:১৩ pm ২৬-০৯-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


প্রসবকালীন ব্যথায় ভয় অন্ত:স্বত্ত্বা নারীদের। আর এই সুযোগ নিয়ে প্রসবকালীন ব্যথা থেকে রেহাই দেওয়ার কথা বলে বাড়ছে সিজার। এতে নারীর দীর্ঘমেয়াদে স্বাস্থঝুঁকির পাশাপাশি থাকছে নানা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও।

চিকিৎসকদের তথ্যানুযায়ী অনুযায়ী গত দশ বছরে সিজারের সংখ্যা বেড়েছে পাঁচ গুণ। এর ফলে একদিকে যেমন মাতৃমৃত্যু হার বাড়ছে অন্যদিকে সিজার পরবর্তী সময়ে মায়ের শরীরে দেখা দেয় নানা সমস্যা।

উন্নত বিশ্বে সিজারকে অনুৎসাহিত করতে ‘ইপিডুরাল প্রসব পদ্ধতি’ চালু হয়েছে বহু আগেই। বাংলাদেশেও ইপিডুরাল পদ্ধতি চালু হয়েছে হাতে গোনা কয়েকটি হাসপাতালে।

গত এপ্রিলে রাজধানীর তেজগাঁয়ের ইমপালস পাসপাতালে ইপিডুরাল প্রসব পদ্ধতি চালু হয়। এই হাসপাতালে এখন পর্যন্ত ত্রিশ জন অন্ত:স্বত্ত্বার সন্তাব প্রসব হয়েছে এই পদ্ধতিতে।

দিন দিন এই চিকিৎসার চাহিদা বাড়ছে। সচেতন নারীরা এখন ব্যথামুক্ত প্রসবের জন্য ইপিডুরাল পদ্ধতি বেছে নিচ্ছেন।

ইপিডুরাল কি
ইপিডুরাল একধরনের স্বাভাবিক প্রসব। এতে সবকিছুই স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় রেখেই সন্তান প্রসব করানো হয়। কোনো সিজার বা অস্ত্রোপ্রচারের দরকার পড়ে না।

তবে অন্যান্য স্বাভাবিক প্রসবে মায়ের যে ব্যথা হয়, এখানে সেই ব্যথা হবে না। মা কোনো ধরনের ব্যথা অনুভব ছাড়াই সন্তান প্রসব করবেন। এক্ষেত্রে বড় ভূমিকা রাখে এ্যানেস্থেসিয়া। ডাক্তার এক্ষেত্রে একটি ছোট ইনজেকশন কোমরে দেন। এটাকে বলে ইপাডুরাল এ্যানেস্থেসিয়া।

এই ইনজেকশান দেওয়ার ফলে রোগী কোনো ধরনের ব্যথা অনুভব করেন না। কিন্তু বাচ্চা স্বাভাবিকভাবে নিচে নামা, স্বাভাবিকভাবে প্রসব হওয়া, এসব ক্ষেত্রে কোনো জটিলতার সৃষ্টি হয় না। এটা একটি লোকাল এ্যানেস্থেসিয়া। কোমরের ওই জায়গাটাতে লোক্যালি কাজ করবে। আর কিছুই না।

এই ইনজেকশন দেওয়ার পর রোগী স্বাভাবিক হাঁটা চলা করতে পারবেন। ওয়াশরুমে যেতে পারবেন। তিনি তার সন্তানের মুভমেন্ট বুঝতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে সারাক্ষণ এই রোগীকে মনিটরিংয়ে রাখতে হবে। বাচ্চার হার্টবিট, মায়ের জরায়ুর অবস্থা, জরায়ুর মুখ কেমন খুলে গেল ইত্যাদি দেখা হয়।

এছাড়া ইপিডুরাল দেওয়ার ফলে মায়ের ব্লাড প্রেসারসহ অন্যান্য সব দিকগুলো ঠিক আছে কি-না সেদিকেও দৃষ্টি রাখতে হয়।

ইপিডুরাল পদ্বতির পার্শ প্রক্রিক্রিয়া দেখা দেয় কি?
ইপিডুরাল একটা লোকাল এ্যানেন্থেসিয়া। সমস্যা যতি কিছু হয়েই থাকে এ্যানেস্থেসিয়াকালে হতে পারে। হয়তো মায়ের ব্লাড প্রেসার ফল করতে পারে। বা এ্যানেন্থেসিয়া দেওয়ার পরও ৯০ ভাগ হয়তো ব্যথা মুক্ত হয়েও ১০ ভাগ ব্যথা করল। এরকম কিছু ব্যথা হতে পারে।

ইমপালস হাসপাতালে ব্যথামুক্ত সন্তান প্রসব করাতে গিয়ে সব মিলিয়ে ৪৫ - ৫০ হাজার টাকার মধ্যে খরচ পড়ে।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71