রবিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
রবিবার, ৫ই ফাল্গুন ১৪২৫
 
 
সিডনিতে বাংলাদেশী স্ত্রীকে খুন করে বিদেশী স্বামীর আত্মহত্যা
প্রকাশ: ০৪:২৪ pm ০৫-০৯-২০১৬ হালনাগাদ: ০৪:২৪ pm ০৫-০৯-২০১৬
 
 
 


প্রবাস ডেস্ক: অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে বাসা থেকে একজন বাংলাদেশী নারী ও তার বিদেশী স্বামীর লাশ উদ্ধারের ঘটনাকে দাম্পত্য কলহ বলে ধারণা করছে পুলিশ।  
  
সিডনি মর্নিং হেরাল্ডের  এক প্রতিবেদনে পুলিশের বরাতে বলা হয়েছে, নিহত দম্পতির মধ্যে স্বামী ডেভ পিল্লাই তার বাংলাদেশী স্ত্রী তাসমিন বাহারকে (৩৫) হত্যা করার পরে নিজেও আত্মহত্যা করেন। 
  
স্থানীয় সময় গতকাল রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সিডনির স্মিথফিল্ড এলাকার এক বাড়ির বাথরুম থেকে তাসমিন বাহার ও তার স্বামী ডেভ পিল্লাইয়ের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই সময় তাদের তিন বছর বয়সী মেয়ে বাড়িটিতেই ছিল। 
  
দাম্পত্য কলহের কারণে সম্প্রতি ডেভ পিল্লাইকে ছেড়ে চলে যান তাসমিন বাহার। স্মিথফিল্ডের বাড়ি ছেড়ে তিনি মেয়েকে নিয়ে একটি ভাড়া অ্যাপার্টমেন্টে ওঠেন। এর পরও বাবা দিবস উপলক্ষে গতকাল রোববার সকালে মেয়েকে নিয়ে স্মিথফিল্ডের বাড়িতে যান তাসমিন বাহার। 
  
তাসমিনের বোন সারাজিন বাহার বলেন, এ ঘটনায় তিনি প্রচণ্ড আঘাত পেয়েছেন। দুদিন আগেও বোনের সঙ্গে কথা হয় তার। তখন বেশ স্বাভাবিকই ছিলেন তাসমিন। 
  
সারাজিন বাহার আরো বলেন, তাসমিনের সঙ্গে ডেভ পিল্লাইয়ের ছয় বছর সম্পর্ক ছিল। অতীতে ডেভ তার বোন ও ভাগ্নিকে শারীরিকভাবে নির্যাতনের ভয় দেখাত। এই পরিপ্রেক্ষিতে তার বোন তাসমিন পুলিশের কাছে একটি অভিযোগও করেছিলেন। সপ্তাহ কয়েক আগে তাসমিন বাড়ি ছেড়ে মেয়েকে নিয়ে একটি ভাড়া অ্যাপার্টমেন্টে উঠেছিলেন। 
  
বর্তমানে নিউইয়র্কে থাকা সারাজিন বাহার বাংলাদেশ হয়ে সিডনি যাচ্ছেন। বোনের মেয়েকে নিজের কাছে নিতে চান সারাজিন। 
  
তাসমিন বাহারের দূরসম্পর্কের বোন সিফাত শারমিন রুপন্ত বলেন, ডেভ ছুরি হাতে তাসমিনকে শারীরিকভাবে নির্যাতনের ভয় দেখান। 
  
রুপন্ত জানান, তাসমিন বাহার ছিলেন উচ্চশিক্ষিত। ২০০৯ সালে তিনি (তাসমিন) অস্ট্রেলিয়া যান। 
  
সিডনির পুলিশ জানিয়েছে, তাসমিন বাহার ও ডেভ পিল্লাইয়ের এক আত্মীয়ই প্রথম বাড়িতে গিয়ে তাদের লাশ দেখতে পান। 
  
পুলিশ আরও জানায়, ডেভ ও তাসমিন নিহতের ঘটনার তদন্ত চলছে। এ ঘটনায় কারো বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়নি। 

এইবেলা ডটকম/এসবিএস

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71