রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮
রবিবার, ৪ঠা অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
সুনামগঞ্জে মুন্নি হত্যা মামলার মূল আসামী গ্রেপ্তার 
প্রকাশ: ০৩:০৮ pm ২১-১২-২০১৭ হালনাগাদ: ০৩:০৮ pm ২১-১২-২০১৭
 
সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: 
 
 
 
 


সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলায় বহুল আলোচিত স্কুল ছাত্রী মুন্নি খুনের ঘটনার ৫ দিনের মাথায় হত্যাকারী ইয়াহিয়াকে গ্রেপ্তার করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ঘটনার পর থেকে মূল আসামী ইয়াহিয়াকে গ্রেফতার করতে জেলা পুলিশের ৫টি দলে বিভিক্ত হয়ে অভিযান চালিয়ে ও তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে তাকে আটক করা হয়। 

বুধবার রাতে সিলেট নগরীর জালালাবাদ থানার মাসুক বাজার এলাকার দরশা গ্রামের একটি বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার বরকত উল্লাহ খান এই তথ্য জানান। এর পূর্বে সোমবার বিকালে নিহতের মা রাহেলা বেগম খুনী ইয়াহিয়া সর্দার সহ আরও ২ জনকে আসামী করে দিরাই থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ঐ দিন বিকালে মামলার দ্বিতীয় আসামী তানভির আহমেদ চৌধুরী (২২)কে কলেজ রোড়ে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তানবির উপজেলার আনোয়াপুর গ্রামের আবুল কালাম চৌধুরীর ছেলে। 

এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান বলেন, মুন্নি হত্যা ঘটনার পর থেকেই এহিয়াকে গ্রেপ্তার করার জন্য বিভিন্ন তথ্য প্রযুক্তির আওতায় আনা হয়েছে। তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমেই বুধবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এহিয়াকে সিলেট জালালাবাদ থানার এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 

মুন্নির মা রাহেলা খাতুন বলেন, আমার মেয়ের হত্যাকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এখন যদি সুষ্টু বিচারের মাধ্যমে এই ঘাতকের ফাঁসি দেয়া হয় তাহলেই আমি ন্যায় বিচার পাবো। তাই সরকারের কাছে দাবী মুন্নি হত্যার খুনিকে যেন সুষ্ঠু বিচারের আওতায় আনা হয়।

উল্লেখ্য, দিরাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের মেধাবী ছাত্রী ছিল মুন্নি আক্তার (১৬)। প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় বখাটে এহিয়ার হাতে শনিবার দিরাই পৌরসভার আনোয়ারপুর গ্রামে নিজ বাসার পড়ার টেবিলে ছিল মুন্নি। রাত সাড়ে ৮টায় বাসায় ঢুকে নিজ হাতে ছুরিকাঘাতে খুন করে বখাটে এহিয়া সরদার ও তার সহযোগীরা। 

জিএ/এসকে 


 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71