সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭
সোমবার, ৪ঠা পৌষ ১৪২৪
 
 
সুনামগঞ্জে শিক্ষক সীতেশ সরকারের শ্লীলতাহানির প্রতিবাদে মানববন্ধন
প্রকাশ: ০৯:৩৩ pm ২২-১১-২০১৭ হালনাগাদ: ০৯:৩৩ pm ২২-১১-২০১৭
 
সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:
 
 
 
 


সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলায় জেএসসি পরীক্ষায় নকল করার সুযোগ না দেয়ায় এক বখাটে পরীক্ষার্থী ক্রিকেট খেলার ব্যাট দিয়ে পরীক্ষক সীতেশ চন্দ্র সরকারকে মারধর করেছে। মঙ্গলবার বিকালে উপজেলা সদরের হ্যালিপেড এলাকার রাস্তায় এই ঘটনা ঘটে।

বখাটে ওই পরীক্ষার্থী রিয়াজ মাহমুদ শাহ উপজেলার সদর এলাকার নয়াহালট গ্রামের বাসিন্দা শাহজাহান শাহ’র ছেলে। সে জামালগঞ্জ মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এই বছর জেএসসি পরীক্ষা দিয়েছে। মারধরের শিকার আহত সীতেশ চন্দ্র সরকার জামালগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের রসায়ন বিষয়ের শিক্ষক। ঘটনার পর আহত অবস্থায় তাঁকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি ঘাড়ে ও ডান হাতে আঘাত পেয়েছেন বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ১৬ নভেম্বর জেএসসি’র সমাজ বিজ্ঞান পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে পরীক্ষার্থী রিয়াজ মাহমুদ শাহকে নকল করতে বাধা দেওয়ার জের ধরে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শিক্ষক সীতেশ চন্দ্র সরকারকে নিজের বাসার কাছে ক্রিকেট খেলার ব্যাট দিয়ে মারধর করে রিয়াজ। এসময় চিৎকার শুনে জামালগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা হুসনে আরাসহ আরো কয়েকজন এগিয়ে এসে তাঁকে রক্ষা করেন। পরে স্থানীয়রা তাঁকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

শিক্ষককে মারধরের প্রতিবাদে ও জড়িত বখাটে পরীক্ষার্থীকে দ্রুত আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির দাবিতে ক্লাস বর্জন করে ঘণ্টাব্যাপি মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ছাত্রীরা। বুধবার বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। মানবন্ধনে বক্তারা শিক্ষক সীতেশ চন্দ্র সরকারের উপর হামলার সাথে জড়িত বখাটে পরীক্ষার্থীকে দ্রুত আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির দাবি জানান। 

অভিযুক্ত পরীক্ষার্থী রিয়াজ মাহমুদ শাহ’র বাবা শাহজাহান শাহ বলেন, ভুল বুঝাবুঝি নিয়ে একটা ঘটনা ঘটেছে। শিক্ষককে ব্যাট দিয়ে মারধর করেছে এটা সঠিক নয়। শিক্ষকের সাথে বেয়াদবী করেছে। বেয়াদবীর জন্য চূড়ান্ত শাস্তি প্রদান করা হোক এটা আমিও চাই।

মারধরের শিকার আহত শিক্ষক সীতেশ চন্দ্র সরকার বলেন,  ১৬ নভেম্বর জেএসসি’র পরীক্ষায় রিয়াজকে পরীক্ষার হলে নকলে বাধা প্রদান করেছি। পরীক্ষার পর সে আমাকে হুমকি দিয়ে বলেছিল, ‘এক মাঘে শীত যায় না।’ সেদিন আমি বিষয়টি কেন্দ্র সচিব প্রধান শিক্ষক বিধান ভূষন চক্রবর্তী ও আইনশৃংখলা দায়িত্বে থাকা পুলিশ অফিসারকে অবগত করেছি। মঙ্গলবার বিকালে আমাকে তার বাসার সামনে পেয়ে ব্যাট দিয়ে মারধর শুরু করে। আমাদের বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা হুসনে আরা বিষয়টি দেখে দৌঁড়ে এসে আমাকে রক্ষা করেন।

জামালগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিধান ভূষন চক্রবর্তী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, পরীক্ষার হলে রিয়াজকে কথা বলতে বাধা প্রদান করেছিলেন সীতেশ বাবু। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার তার উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। 

এ ব্যাপারে জামালগঞ্জ থানার (ওসি তদন্ত) মিজানুর রহমান জানান, আমার জেনেছি পরীক্ষার হলে ওই ছাত্রকে কথা বলতে বাধা দেয়ায় শিক্ষক সীতেশ সরকারকে ব্যাট দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। তিনি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। মামলার প্রস্তুতি চলছে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জেএবি/আরপি


 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
Loading...
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Loading...
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক: সুকৃতি কুমার মন্ডল

Editor: ‍Sukriti Kumar Mondal

সম্পাদকের সাথে যোগাযোগ করুন # sukritieibela@gmail.com

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

   বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ:

 E-mail: sukritieibela@gmail.com

  মোবাইল: +8801711 98 15 52 

            +8801517-29 00 01

 

 

Copyright © 2017 Eibela.Com
Developed by: coder71