শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮
শনিবার, ৭ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
সুনামগঞ্জ-২ আসনে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের সম্মান ধরতে রাখতে মাঠে জয়া সেনগুপ্ত     
প্রকাশ: ০২:২৫ pm ০৯-১০-২০১৭ হালনাগাদ: ০২:২৫ pm ০৯-১০-২০১৭
 
সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:
 
 
 
 


সুনামগঞ্জ ২ আসনে সুরঞ্জিতের সম্মান ধরতে রাখতে মাঠে ডাঃ জয়া সেনগুপ্তা অন্য দিকে বিএনপির সম্মান পুনরুদ্ধানে নাছির উদ্দিন মাঠে তৎপর। 

এই আসনটি ছিল নৌকার ঘাটি হিসেবে পরিচিত। তবে এবার পাল্টে যেতে পারে অতীতের সকল রেকর্ড। এমনটাই আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বৈইছে নির্বাচনী সুনামগঞ্জ ২আসনের ভোটারদের মাঝে। নির্বাচন এলেই জেলার গুরুত্বপূর্ন এই আসনটির দিতে তাকিয়ে থাকেন সবাই। গুরুত্বের দিকে থেকে রাজনীতির টার্নিং পয়েন্ট বিবেচিত এ আসন থেকেই জেলার রাজনীতির বিশাল একটা অংশ নিয়ন্ত্রন হত। এর মূলে ছিলেন সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। 

বিগত সময়ে জাতীয় রাজনীতিতেও গুরুত্বপূর্ন দায়িত্ব পালন করে এই আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্যগন। আর এই আসনটিতে হিন্দু সম্প্রদায়ের বিশাল ভোট রয়েছে। যার ফলে এই অংশটা এখানকার রাজনীতির বড় অংশ আ,লীগের জন্য আর বিএনপির জন্য বড় ফ্যাক্টর। সেই ফ্যাক্টরে এভার ভাটা পড়েছে সাবেক এমপি সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত মৃত্যুতে। তার মৃত্যুতে এই সুযোগে আ,লীগের দলীয় কুন্দলে দিশেহারা দলীয় কার্যক্রম। এই সুবাধে বিএনপি রয়েছে সুবিধা জনক অবস্থানে। সব মিলিযে আগামী নির্বাচনে এক দিকে মর্যাদা অন্য দিকে হারানো আসনটি পুনরুদ্ধার করতে তুমুল লড়াই হবে বলে মনে করছেন স্থানীয় ভোটারগন। 

আরো জানাযায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দিরাই শাল্লা-২ আসনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নিজ নিজ কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন ও কর্মসূচি হাতে নিয়ে এগোচ্ছে প্রার্থীরা। প্রয়াত সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত এ আসন থেকেই সাতবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করায় এই নেতার কোনো বিকল্প ছিলনা। তবে প্রয়াত এই নেতার মৃত্যুতে এই আসনে উপনির্বাচনে বিজয়ী হন তাঁর সহধর্মীনি ডঃ জয়া সেনগুপ্তা। সংসদ সদস্য হওয়ার পর ডঃ জয়া সেনগুপ্তা আওয়ামী লীগ অঙ্গসংগঠনের নেতা কর্মীর দ্বিধাদ্বন্ধ ভেঙ্গে দিয়ে ঐক্যবদ্ধ করেন। শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় বাস্তবায়ন করার লক্ষে এবং দিরাই শাল্লার উন্নয়নে ভূমিকা রাখার জন্য নেতা কর্মীদের মধ্যে উৎসাহ উদ্দীপনা সৃষ্ঠি হয়েছিল। তবে মাঝ মধ্যে এসে এই উৎসাহ উদ্দীপনা থেমে যায়। ফলে নেতা কর্মীদের মধ্যে বিভক্তির সৃষ্টি হয়। এই বিভক্তির ফলে দিরাই শাল্লার উন্নয়নে স্থবিরতা দেখা দিয়েছে। 

আগামী নির্বাচনেও এই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবেন ডঃ জয়া সেনগুপ্তা। নির্বাচন করার লক্ষ্য নিয়ে মাঠ পর্যায়ে এখন থেকেই বিভিন্ন কর্মসূচি ও সমাবেশে অংশ গ্রহণ করছেন তিনি। তবে আওয়ামী লীগের কিছু কিছু নেতার মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার দেখা দেওয়ায় গ্রুপিং,কোন্দল দিন দিন বেড়ে উঠছে। আর এই কোন্দল থাকার ফলেই আগামী নির্বাচনে বিএনপি সুবিধাজনক স্থান গড়ে তুলেছে। এছাড়াও প্রচার প্রচারণায় বিএনপি এগিয়ে রয়েছে। দিরাই শাল্লা আসনে বিএনপির ঘোষিত প্রার্থী নাসির উদ্দিন চৌধুরী। মাঠ পর্যায়েও বিএনপি ভাল অবস্থান তৈরি করেছে। আওয়ামী লীগের কোন্দলের সুযোগ কাজে লাগিয়ে বিএনপি দিরাই শাল্লা আসনে হানা দিয়ে আসন ছিনিয়ে নেবে বলে এলাকায় গুঞ্জন শুরু হয়েছে। তবে রাজনীতিতে সক্রিয় সচেতন মহল মনে করছেন, আগামী নির্বাচনে জয়ী হতে হলে আওয়ামী লীগের কোন্দল ভেঙ্গে ঐক্যবদ্ধ হওয়া প্রয়োজন। ভোটযুদ্ধের ময়দানে যোদ্ধের বীর রয়েছে। এই বীরকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য সকল নেতা কর্মীরা মাঠে কাজ করে জয় নিশ্চিত করতে হবে। 

আগামী নির্বাচন ২০১৪ সালের ৫জানুয়ারির মতো একতরফা হবে না। প্রধান প্রতিপক্ষ বিএনপি ভোটের লড়াইয়ে লড়তে এখন থেকেই মাঠে নেমেছে ঐক্যবদ্ধ হয়ে। বিএনপি নির্বাচনে এলে মাঠের চিত্র পাল্টে যেতে পারে এবং নির্বাচনী বৈতরণী পার হওয়া সহজ নাও হতে পারে বলে সচেতন মহল তা মনে করছে। বিএনপি সোজা হয়ে দাঁড়ানোর জন্য আগামী নির্বাচনী কোমর শক্ত করে সমন্বয়হীনতা, কোন্দল,স্বার্থের বেড়াজাল থেকে মুক্ত হয়ে মাঠের অবস্থান তৈরি করেছে।
 
দিরাই-শাল্লার বর্তমান এমপি ডঃ জয়া সেনগুপ্তা জানান, আগামী নির্বাচনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিলে অংশ গ্রহণ করবো। আর কোন্দল বিষয় জানতে চাইলে তিনি বলেন ,আওয়ামী লীগের মধ্যে কোনো গ্রুপিং কিংবা কোন্দল নেই। সবাই প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে মাঠে কাজ করছেন। একটি মহল এই আসনে আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন ধরনের বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। তবে আমরা ঐক্যবদ্ধ রয়েছি। 

বিএনপির প্রার্থী ও সাবেক এমপি নাসির উদ্দিন চৌধুরী জানান, হাওরের জলমহাল লুটপাট করে খাচ্ছে সরকার দলীয় নেতারা। এছাড়াও হাওরের বাঁধ নির্মাণের কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে তাদের নেতারাই। তাই এই দুর্নীতি থেকে বেরিয়ে আসার জন্য দিরাই-শাল্লা আসনে জনগন বিকল্প চিন্তা মাথায় নিয়েছে। তারা লোটতরাজদের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য বিএনপিকে আগামী নির্বাচনে ভোট দিয়ে জয় নিশ্চিত করবে। এছাড়াও দিরাই-শাল্লার আইনশৃঙ্খলা ভেঙ্গে পড়েছে। 

জে/আরডি/

                                                                    

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71