শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮
শনিবার, ৭ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
সুবর্ণচরে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা 
প্রকাশ: ১১:০৯ am ৩০-০৩-২০১৮ হালনাগাদ: ১১:০৯ am ৩০-০৩-২০১৮
 
নোয়াখালী প্রতিনিধি
 
 
 
 


নোয়াখালীর সুবর্ণচরে নবম শ্রেণির এক মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে মরদেহ গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখার পর এবার এবার সাত বছরের এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। 

মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনার পাঁচ দিন কেটে গেলেও এখনও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। তবে শিশু ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষককে আটক করা হয়েছে।

মাদ্রাসাছাত্রীর ধর্ষককে গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে উপজেলার চর ওয়াপদা ইউনিয়নের চর আমিনুল হক গ্রামে বুধবার মানববন্ধন করেছে মেয়েটির আত্মীয়স্বজন, গ্রামবাসী ও তার সহপাঠীরা। নিহত ছাত্রীর মা অভিযোগ করেছেন, বিয়ের প্রলোভন দিয়ে প্রতিবেশী নুর ইসলামের ছেলে মাকসুদুর রহমান (২২) তার মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। 

তিনি জানান, গত শুক্রবার রাতে খাওয়ার পর মেয়েটি তার কক্ষে যায়। তখন ঘরের মধ্য থেকে মোবাইল ফোনে কথা বলতে শোনা যাচ্ছিল। তিনি ঘুমিয়ে পড়লে হয়তো বাহিরে যায় তার মেয়ে। শনিবার ভোরে বাড়ির পাশের বাগানে একটি গাছের সঙ্গে ঝুলতে দেখেন মেয়ের মরদেহ।

মাদ্রাসাছাত্রীর মা-বাবার অভিযোগ, মাকসুদ ধর্ষণের পর হত্যা করে তাদের মেয়েকে গাছের ডালে ঝুলিয়ে দেয়। ঘটনার পর থেকে মাকসুদ ও তার পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে নেই। 

চর ওয়াপদা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মনির আহাম্মদ জানিয়েছেন, অন্যদের কাছ থেকে তিনি ঘটনাটি শুনেছেন। এ নিয়ে মামলাও হয়েছে বলে জেনেছেন। 

চর জব্বর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মো. ইকবাল হোসেন জানান, প্রাথমিকভাবে সুরতহাল রিপোর্টে মনে হয়েছে, সে ফাঁস নিয়েছিল। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে বুধবার সন্ধ্যায় একই উপজেলার পূর্ব চরবাটা ইউনিয়নে সাত বছরের এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। আহত শিশুকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ধর্ষিত শিশুটি স্থানীয় একটি মাদ্রাসার প্রথম শ্রেণির ছাত্রী। ধর্ষক মোশারফ হোসেন ওরফে ফারুককে (১৮) আটক করেছে চর জব্বর থানা পুলিশ। পূর্ব চরবাটা ইউনিয়নের পূর্ব চর মজিদ আদর্শ গ্রামের ইসমাইল হোসেন কালামের ছেলে ফারুক। 

সকালে অসুস্থ মেয়েকে নিয়ে থানায় গেলে পুলিশ তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

কর্তব্যরত চিকিৎসক ফারজানা অমি জানান, মেয়েটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। রিপোর্ট এলে বিস্তারিত জানা যাবে।


প্রচ

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71