রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮
রবিবার, ৪ঠা অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
সৈয়দপুরে জোড়া খুনের দায়ে দুই সহোদর আটক
প্রকাশ: ০৭:৪৪ pm ১৮-০৪-২০১৮ হালনাগাদ: ০৭:৪৪ pm ১৮-০৪-২০১৮
 
নীলফামারী প্রতিনিধি
 
 
 
 


নীলফামারীর সৈয়দপুরে জোড়া খুনের সাথে জড়িত থাকার দায়ে পুলিশের হাতে আটক হয়েছে দুই সহোদর। ৩০ লাখ টাকার জন্য বিএনপি নেতা ও তেল ব্যবসায়ী মামনুর রশিদ ওরফে মামুন ও তার কথিত স্ত্রী মীমতারিম সাথীকে খুন করেছিল- তারা এ স্বীকারোক্তি দিয়েছে। 

বুধবার নীলফামারী জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের কনফারেন্স রুমে এক সংবাদ সম্মেলনে এসপি মূহাম্মদ আশরাফ হোসেন এ তথ্য দিয়েছেন।

নীলফামারী পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন জানান, ঘটনার পর থেকে আত্মগোপনে থাকা মামুনের কর্মচারী শিবলী সাদিক ওরফে প্রদীপ ও সাগর মিয়াকে পুলিশ ১৬ এপ্রিল ঢাকার ডেমড়ার একটি ভাড়া বাসা থেকে আটক করে। ঘটনার পর থেকেই তারা পলাতক ছিল। তারা পুলিশের কাছে খুনের ঘটনা স্বীকার করে জানান, ৩০ লাখ টাকা আদায়ের জন্য সৈয়দপুরের ওই ভাড়া বাসার মধ্যে প্রথমে মীমতারিম সাথীকে জিম্মী করে প্রদীপ, সাগর ও লাবু। মীমতারিম ঘটনাটি তার কথিত স্বামী মামুনকে জানিয়ে দেয়ার হুমকি দিলে তারা তাকে গলা কেটে হত্যা করে। এ সময় বাজার থেকে মামুনকে ওই বাসায় ডেকে এনে টাকার জন্য জিম্মি করে। নতুবা মীমতারিমের পরিনতি হবে বলে তাকে জানানো হয়। এ সময় মামুন তাদের হাত থেকে বাঁচানোর জন্য পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে আসামীরা তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলা কেটে মৃত্যু নিশ্চিত করে।

উল্লেখ্য, সৈয়দপুর শহরের কার্ডিকেয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টারের স্বত্ত্বাধিকারী ডা: তৌফিক ইমামের শহরের জসিম বাজার এলাকার বাসায় প্রায় দুই বছর আগে স্বামী-স্ত্রীর পরিচয়ে ভাড়া নেয় জনৈক অটোচালক শিবলী সাদিক ওরফে প্রদীপ। গত বছর ২৯ নভেম্বর দুপুর ১২ টার দিকে সেই বাসায় থেকে মামনুর রশিদ মামুন ও মীমতারিম সাথীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত মামুন পার্বতীপুর উপজেলা বিএনপির যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ও দিনাজপুর জেলা পেট্রোল পাম্প মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক। অপরদিকে মীমতারিম সাথী ঢাকা ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং মামুনের কথিত ২য় স্ত্রী। 

ঘটনার দিনেই নিহত মামনুর রশিদের বড় ভাই আব্দুর রশিদ নিজে বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করে। এ ঘটনার ১৫ দিন পর পুলিশ ১৩ ডিসেম্বর খুনের সাথে জড়িত থাকার দায়ে সুমন আহমেদ ওরফে লাবুকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরন করে। আটক শিবলী সাদিক ও সাগর মিয়া আপন সহোদর বলে জানা গেছে।


এএএম/ বিডি
 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71