শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮
শুক্রবার, ৩০শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
সোনারগাঁয়ে হিন্দু পরিবারের জমি দখলের উদ্দেশ্যে ইউপি চেয়ারম্যানের হামলা
প্রকাশ: ১১:৩৩ am ০৪-০২-২০১৮ হালনাগাদ: ১১:৩৩ am ০৪-০২-২০১৮
 
সোনারগাঁও প্রতিনিধি
 
 
 
 


জমি দখলের উদ্দেশ্যে এক হিন্দু পরিবারের উপর ২ ফেব্রুয়ারী নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁয়ের নগরজোয়ারে লিটন সাহা ও তার ভাই কাজল সাহার উপর আঃ ওহাব গং সন্ত্রাসী হামলা চালায়, নগদ অর্থ ও স্বর্নালংকার ছিনতাই এর অভিযোগ পাওয়া গেছে। উক্ত ঘটনায় সন্ত্রাসী হামলায় আহত লিটন সাহা ৩ ফেব্রুয়ারী সোনারগাঁ থানায় আরো একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

সন্ত্রাসী হামলার শিকার লিটন সাহা বলেন বিবাদীগন আমার পার্শ্ববর্তী বাড়ীর বাসিন্দা। এক বছর আগে আমাদের বাড়ী দখল করার জন্য আমার এবং আমার পরিবারের অন্যান্যদের সাথে বিরোধ করে আসছে। তারই পরিপ্রেক্ষিতে তাহাদের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে দেওয়ানী মোকদ্দমা নং-১৯৯/১৭ ইং ও সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা যাহার নং-৩৭ এবং আরও একটি সাধারণ ডাইরী রহিয়াছে যাহার নং-১০২৭, সর্বশেষ ২৩ জানুয়ারী না.গঞ্জ পুলিশ সুপার বরাবর নিরাপত্তা চেয়ে আবেদন করার পরেও পুনারায় বৈদ্যের বাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ডাঃ আঃ রবের ইন্ধনে আঃ ওহাব গং কর্তৃক আমাদের উপর সন্ত্রাসী হামলা ,নগদ অর্থ ও স্বর্নালংকার ছিনতাই এর ঘটনা ঘটল। এই সন্ত্রাসী চক্রটিকে অভিলম্বে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় না আনলে আমদের প্রাননাশসহ  বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটবে। সন্ত্রাসী হামলার শিকার লিটন সাহা কর্তৃক সোনারগাঁ থানায় দেয়া অভিযোগটি হুবুহু তুলে ধরা হল।

লিটন সাহা (৩৮), পিতা- নিতাই চন্দ্র সাহা, সাং-নগর জোয়ার, থানা-সোনারগাঁ, জেলা-নারায়ণগঞ্জ আপনার থানায় হাজির হইয়া বিবাদী ১। আমান উল্লাহ(৫০),পিতা-তমিজ উদ্দিন ২। আঃ ওহাব (৬৫), পিতা-হাসেম মিয়া, ৩। জামাল (২৯), ৪। কামরুল ইসলাম (২৭), উভয় পিতা-আঃ ওহাব, ৫। আয়েশা বেগম (৫০), স্বামী- আঃ ওহাব, ৬। আঃ রউফ, পিতামৃত-আব্দুল  লতিফ সর্বসাং- নগর জোয়ার, থানা-সোনারগাঁ, জেলা-নারায়ণগঞ্জ এর বিরুদ্ধে এই মর্মে অভিযোগ করিতেছি যে, আমি একজন ব্যবসায়ী। বিবাদীগন আমার পার্শ্ববর্তী বাড়ীর বাসিন্দা। গত অনুমান এক বৎসর পূর্ব হইতে উক্ত সম্পত্তি নিয়ে বিবাদীরা আমার এবং আমার পরিবারের অন্যান্যদের সাথে বিরোধ করে আসিতেছে। তারই পরিপ্রেক্ষিতে তাহাদের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে দেওয়ানী মোকদ্দমা নং-১৯৯/১৭ ইং ও সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা যাহার নং-৩৭ এবং আরও একটি সাধারণ ডাইরী রহিয়াছে যাহার নং-১০২৭। উক্ত বিরোধের জেরধরে বিবাদীগন বিভিন্ন সময়ে আমাদের সহিত কারনে অকারনে ঝগড়া বিবাদ করিয়া বিভিন্ন ভয়ভীতি সহ হুমকি প্রদান করিয়া থাকে এবং জোর পূর্বক উক্ত সম্পত্তি দখল করার পায়তারা করিতে থাকে।

তারই ফলশ্রুতিতে সর্বশেষ ২/০২/২০১৮ইং তারিখ সকাল আনুমানিক ৭.৩০ ঘটিকায় সময় আমি ও আমার বড় ভাই কাজল সাহা ঢাকায় আমাদের ব্যবসায়ী মালামাল আনতে মোকামের উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে তপন সাহার বাড়ির সামনের রাস্তায় গেলে আগে থেকে উৎপেতে থাকা উপরুক্ত বিবাদীগন হঠাৎ তাদের সংঙ্গে থাকা ১০থেকে ১২জন সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোকজন নিয়া আমাদের উপর অর্তকীত হামলা চালায় এবং তাহাদের হাতে থাকা লাঠিসোটা দ্বারা  এলোপাথারী পিটাতে থাকে এবং বলে যে,২৪ঘন্টার মধ্যে আমাদের বিরুদ্ধে করা মামলা উঠিয়ে না নিলে তোদের সপরিবারে হত্যা করিয়া মেঘনা নদীতে ভাসিয়ে দিব বলিয়া হুমকি প্রদান করে। তখন আমরা উপায়ান্ত না পাইয়া দৌড়ে আমাদের বাড়ীর সামনে গিয়ে আত্মচিৎকার করতে থাকি আমাদের আত্মচিৎকারে বাড়ী হতে আমার বয়বৃদ্ধ মা আমার স্ত্রী টিটু রানী সাহা ও আমার বৌদী মাধবী সাহাসহ অন্যান্যরা আসলে আসামীরা তাদেরকেও মারধর করতে থাকে। একপর্যায়ে আমার বড় ভাই কাজল সাহাকে ৬নং বিবাদী হত্যার  উদ্দেশ্যে গলাচেপে ধরে এবং সেই সুযোগে ১নং বিবাদী তার কোমরে বাধা ১,২০০০০(এক লক্ষ বিশ হাজার) টাকার থলিটি জোরপূর্বক ছিনিয়ে নেয়। তারপর ২ ও ৬নং বিবাদী আমার স্ত্রী টিটু রানী সাহা ও আমার বৌদী মাধবী সাহার গলায় থাকা দুইটি স্বর্নের চেইন ছিনিয়ে নেয় যাহার ওজন ২ভরি,পরে ৫নং বিবাদী আমার স্ত্রী টিটু রানী সাহার কানের ৮আনা ওজনের পাশা জোড়পূর্বক খুলে নেয়। (যাহার আনুমনিক মূল্য ১,০০০০০ (এক লক্ষ) টাকা) তখন আমরা সবাই বাচার জন্য আত্মচিৎকার করলে তাহারা আমাদের চিৎকার বন্ধ করতে আবারো হাতে থাকা লাঠিসোটা দ্বারা এলোপাথারী পিটায়ে আমাদের দুই ভাইকে শরীরের বিভিন্ন স্থানে নীলাফুলা করে। আমাদের ডাক চিৎকারে আশেপাশের লোকজন জড় হইলে বিবাদীরা তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থল থেকে প্রস্থান করে। পরে আমরা দুইভাই গুরুতর আহত অবস্থায় নারায়নগঞ্জ খাঁনপুর ৩০০ শয্যা বিঃ হাসপাতালে চিকিৎসা নেই। হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ায় থানায় অভিযোগ দিতে কিছুটা বিলন্ব হইল। এমতবস্থায় আমি ও আমার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছি।


প্রচ
 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71