শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮
শুক্রবার, ২রা অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
স্যার আশুতোষ মুখোপাধ্যায়
প্রকাশ: ০১:৫৫ am ২৬-০৫-২০১৫ হালনাগাদ: ০১:৫৫ am ২৬-০৫-২০১৫
 
 
 


স্যার আশুতোষ মুখোপাধ্যায় কলকাতা হাইকোর্টের একজন বিচারপতি এবং পরবর্তীকালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ছিলেন। তিনি ১৮৬৪ সালের ২৮ জুন কলকাতার মলঙ্গা লেনে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা চিকিৎসক গঙ্গাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়, মা জগত্তারিণী দেবী।

আশুতোষ ১৮৭৯ সালে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে প্রবেশিকা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। তিনি ১৮৮৪ সালে প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে স্নাতক ও ১৮৮৫ সালে গণিতে স্নাতকোত্তর করেন। পরে তিনি পদার্থবিদ্যায়ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নেন। ১৮৮৮ সালে তিনি বিএল ডিগ্রি লাভ করেন এবং আইন ব্যবসায় নামেন। ১৮৮০ থেকে ১৮৯০ সাল পর্যন্ত তিনি দেশ-বিদেশের বিভিন্ন জার্নালে উচ্চতর গণিত নিয়ে লেখালেখি করেন। গণিতের ওপর তাঁর দুটি অসাধারণ অবদান হলো ১৮৯৩ সালে প্রকাশিত 'জিওমেট্রি অব কোনিক্স' ও ১৮৯৮ সালে প্রকাশিত 'ল অব পারপিচুইটিস'। দ্বিতীয় ভারতীয় হিসেবে ১৯০৬ সালে তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য পদে অধিষ্ঠিত হন। এই দায়িত্ব পালন করেন ১৯১৪ সাল পর্যন্ত। স্বদেশি আন্দোলন চলাকালে আশুতোষ ঔপনিবেশিক শিক্ষা কাঠামোর পক্ষে থাকেন এবং একে জাতীয় স্বার্থে ব্যবহারের চেষ্টা করেন। ১৯২১ থেকে ১৯২৩ সাল পর্যন্ত তিনি আবার উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯২৩ সালে ইংরেজ গর্ভনর লর্ড লিটন যখন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বায়ত্তশাসন খর্ব করতে চান তখন তিনি তা নিয়ে বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েন এবং পুনরায় উপাচার্যের দায়িত্ব নিতে অস্বীকৃতি জানান। এই তেজস্বিতার স্বীকৃতস্বরূপ জনগণের কাছ থেকে 'বেঙ্গল টাইগার' উপাধি পান। অবকাঠামোগত সংস্কারের পাশাপাশি তিনি কলা ও বিজ্ঞান অনুষদে নতুন নতুন বিষয় খোলেন এবং নিজে সিলেবাস তৈরি করেন। কোনো রকম রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত না থেকেও পাশ্চাত্য শিক্ষার সঙ্গে সমন্বয় করে জাতীয় শিক্ষা কাঠামো প্রণয়নে তিনি ছিলেন নিবেদিতপ্রাণ। ১৯২৪ সালে ২৫ মে স্যার আশুতোষ মুখোপাধ্যায় পরলোকগমন করেন।

এইবেল ডট কম/এইচ আর

 


 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71