শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮
শনিবার, ৩রা অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
হাত-পা বিহীন এক অবিশ্বাস্য যোদ্ধা!
প্রকাশ: ০৩:২০ am ৩১-০৩-২০১৫ হালনাগাদ: ০৩:২০ am ৩১-০৩-২০১৫
 
 
 


নিক ভুজিসিক। হাত-পা বিহীন একজন মানুষ। শরীরে অঙ্গের স্বল্পতা থাকলেও আছে অফুরন্ত প্রাণশক্তি। এই ক্যারিশমাটিক ব্যক্তি এখন সারা দুনিয়া ভ্রমণ করছেন আর প্রেরণাদায়ী বক্তৃতা দিয়ে হাজার হাজার মানুষকে অভিভূত করছেন, অনেককে দিচ্ছেন নতুন করে বেঁচে থাকার প্রেরণা, নতুন দৃষ্টিভঙ্গি। বিশাল বিশাল হলরুম ভর্তি মানুষ এখন তার কথা শোনার জন্য জড়ো হয়। যাওয়ার সময় সঞ্চয় হিসেবে নিয়ে যায় লড়াই করে বেঁচে থাকার প্রেরণা।
নিকের বয়স এখন ৩২ বছর। জন্ম থেকেই তার কোনো হাত-পা নেই। শুধু উরুর কাছ থেকে ছোট্ট পায়ের মতো একটি অঙ্গ বেরিয়ে গেছে যা তাকে শরীরের ভারসাম্য রক্ষা করে সোজা হয়ে থাকতে সহায়তা করে। ছোটবেলা থেকেই বাস্তব জীবনের নানা তিক্ত অভিজ্ঞতার মধ্যে দিয়ে তাকে যেতে হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে বেড়ে ওঠা নিক বাল্যকাল থেকেই চরম বিষণ্ণতায় ভুগতেন। স্কুলের সহপাঠীরা তাকে নিয়ে হাসাহাসি করতো। এই পরিস্থিতিতে মাত্র ১০ বছর বয়সে তিনি আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পরে ফিরে আসেন সে পথ থেকে। নতুন করে বাঁচার শপথ নেন। সকল প্রতিবন্ধকতা উতরে এখন তিনি সবার প্রেরণাদানকারী এক সম্মোহনী ক্ষমতাধর বক্তা।
নিকের এই শারীরিক প্রতিবন্ধিতার কোনো ব্যাখ্যা চিকিৎসা বিজ্ঞান এখনো দিতে পারেনি। এই সমস্যাকে বলা হয় টেট্রা-অ্যামেলিয়া সিনড্রোম। বাম উরু থেকে বের হওয়া ছোট্ট অঙ্গটি দিয়ে তিনি অনেক কিছুই করতে পারেন।
দাঁড়ানো, টাইপ করা, এমনকি বলে লাথি দিতেও পারেন তিনি। এছাড়া তার আছে অ্যাড্রেনাল হরমোন জনিত সমস্যা। এটা স্বীকারও করেন অবলীলায়। তবে তিনি এতে কেয়ার করেন না। নিয়মিত সাঁতার এবং দুঃসাহসিক স্কাই ডাইভিং করেন নিক।
অবশ্য এই আত্মবিশ্বাস নিকের ভেতর এমনিতেই আসেনি। এর জন্য নিজের সাথে তাকে যুদ্ধ করতে হয়েছে দীর্ঘসময়। ধীরে ধীরে জীবন নিয়ে ইতিবাচক চিন্তা করতে শুরু করেন নিক। ১৭ বছর বয়সে তার হাইস্কুলের এক দারোয়ান তাকে জনসমক্ষে বক্তৃতা করার জন্য উৎসাহিত করেন। এতে খুব শিগগিরই তিনি অভূতপূর্ব সাড়া পান।
ইতোমধ্যে ৫০টি দেশ ঘুরেছেন তিনি। তার শ্রোতা প্রধানত সাধারণ মানুষ, ব্যবসায়ী আর স্কুলগামী শিশু। নিক Life Without Limbs নামে একটি প্রতিষ্ঠান চালান। একই সঙ্গে Attitude is Altitude নামের একটি সংগঠনও রয়েছে যা প্রণোদনামূলক বক্তৃতা এবং দুর্বলদের ঠাট্টাবিদ্রুপ না করার জন্য প্রচারণা চালায়।
নিকের আত্মজীবনীমূলক বই Love Without Limits প্রকাশিত হয়েছে। বর্তমানে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়াতে স্ত্রী ক্যানি এবং দুই বছরের শিশুপুত্রকে নিয়ে বসবাস করছেন। চলতি বছরের শেষ নাগাদ তাদের দ্বিতীয় সন্তান আসছে।
 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71