বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮
বৃহঃস্পতিবার, ১লা অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
হিন্দু বিধবাবিবাহের প্রচলক ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর
প্রকাশ: ০২:৪৮ pm ১৭-০৭-২০১৭ হালনাগাদ: ০২:৪৮ pm ১৭-০৭-২০১৭
 
 
 


ঊনবিংশ শতাব্দীতে হিন্দু সমাজ সংস্কারে যারা অগ্রগামী ছিলেন, ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর (১৮২০-১৮৯১) তাঁদের অন্যতম।

তাঁর নানা প্রচেষ্টার মধ্যে যেগুলো অন্যতম ছিল সেগুলো হল-বিধবাবিবাহের প্রচলন করা, বহুবিবাহ বন্ধ করা এবং শিশুবিবাহ রোধ করা। এ ছাড়া জনগণের মধ্যে শিক্ষার প্রসার ও অন্যান্য সমাজহিতকর কাজে তিনি নিজেকে ব্যাপৃত রেখেছিলেন। তাঁর সবচেয়ে বড় সাফল্য ইংরেজ সরকারকে দিয়ে বিধবাবিবাহ আইনের প্রবর্তন।

এই আইনের প্রয়োজন বিশেষভাবে অনুভূত হয়েছিল যখন সতীদাহ বেআইনি হওয়ার ফলে হিন্দু বিধবাদের সংখ্যা দ্রুত হারে বাড়ছিল। এই বিধবাদের অনেকেই ছিল শিশু। বিধবা হিসেবে সমাজে এদের যে অপরিসীম লাঞ্ছনা ও শারীরিক কষ্ট বরাদ্দ ছিল, সেগুলো দূর করতে বিদ্যাসাগর বদ্ধপরিকর হয়েছিলেন। তাঁর এই প্রচেষ্টার বিরুদ্ধে গোঁড়া হিন্দু সমাজনেতারা রুখে দাঁড়ান এবং অজস্র বিদ্রূপ ও অপমান তাঁর ওপর বর্ষিত হয়।

১৮৫০ সালে বিদ্যাসাগর হিন্দু ধর্মপুস্তক থেকে নানা তথ্য সংগ্রহ করে একটি দীর্ঘ প্রবন্ধ পুস্তিকাকারে প্রকাশ করেন। প্রবন্ধটির নাম ছিল বিধবাবিবাহ প্রচলিত হওয়া উচিত কি না এতদ্বিষয়ক প্রস্তাব। তবে শুধু পুস্তিকা প্রকাশ করে বিধবাবিবাহ চালু করা যাবে না বুঝে বিদ্যাসাগর গভর্নর জেনারেল ডালহৌসির কাছে ১৮৫৫ সালে একটি পিটিশন দেন। সেই পিটিশনে ১০০০ শিক্ষিত এবং সমাজে সুপরিচিত হিন্দু স্বাক্ষর দেন। তবে এই পিটিশনের বিরুদ্ধে আরেকটি পিটিশন গভর্নর জেনারেলের কাছে জমা পড়ে, যেটি আসে রাজা রাধাকান্ত দেব ও তাঁর কট্টর হিন্দু অনুগামীদের কাছ থেকে।

বাংলা সাহিত্যের অন্যতম পুরোধো ও সমাজসংস্কারক ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের প্রচেষ্টায় তৎকালীন ভারতীয় গভর্নর লর্ড ক্যানিং বিধবাবিবাহকে বৈধতা দেন। ১৮৫৬ সালের ১৬ জুলাই ভারতীয় উপমহাদেশে হিন্দু বিধবাবিবাহ আইন অনুমোদিত হয়। এরপর থেকেই বিধবাবিবাহ শুরু হয়। বিদ্যাসাগর বিধবাবিবাহ সম্পর্কে তাঁর যুক্তিগুলো সরস ভাষায় সাধারণ মানুষের বোধগম্য করে ব্রজবিলাস ও রত্নপরীক্ষা নামে দুটি বই প্রকাশ করেন।

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71