রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮
রবিবার, ৮ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
‘ভারতের মুসলিমরা সবচেয়ে বেশি সুবিধাভোগী নাগরিক’
প্রকাশ: ১০:৫৮ am ১৬-০৮-২০১৭ হালনাগাদ: ১০:৫৮ am ১৬-০৮-২০১৭
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


ভারতে মুসলমান সম্প্রদায় নিরাপত্তাহীনতায় ভোগে, তা আমি মনে করি না। প্রাক্তন উপরাষ্ট্রপতি হামিদ আনসারির করা মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে এমনটাই বললেন তসলিমা নাসরিন। ফেসবুকে স্টেটাস দিয়ে বলেন, ভারতে মোটেই সব মুসলিমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভোগেন না, বরং প্রত্যেক রাজনৈতিক দল মুসলিমদের খুশি করতে তৎপর বলে মনে করেন তিনি।

উপ রাষ্ট্রপতির পদ থেকে অবসর নেওয়ার আগে হামিদ আনসারি মন্তব্য করেন, দেশের মুসলিমরা নরেন্দ্র মোদী সরকারের আমলে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। সোমবার তসলিমা তাঁর একটি ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, যাদের গরু ব্যবসা রয়েছে কেবল তারাই নিরাপত্তাহীনতায় নিশ্চয় ভোগে। তাঁর দাবি, আদিবাসীরা নিরাপত্তাহীনতায় ভোগে, দলিতরাও ভোগে। কিন্তু মুসলিমদের খুশি করার জন্য ভারতের প্রতিটি রাজনৈতিক দল তৎপর। লেখিকা তাঁর পেস্টে লিখেছেন, মুসলিমদের ভোটব্যাংক হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে স্বাধীনতার পর থেকেই। পশ্চিমবঙ্গের কথাও উল্লেখ করেছেন তিনি। লিখেছেন, ”পশ্চিমবঙ্গে পুরোহিতদের নয়, পাদ্রিদের নয়, ইমামদের খামোকা টাকা দেওয়া হয় মাসে মাসে।”

সেক্যুলার হিন্দুরা মুসলমানের অধিকারের জন্য মুসলমানের চেয়েও বেশি চিৎকার করে বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি। তাঁর মতে ভারতে নয়, বরং মুসলিমদের নিরাপত্তা নেই পাকিস্তান, আফগানিস্তান, ইরান, ইরাক, সিরিয়া, সৌদি আরব, এমন কী বাংলাদেশেও। নিরাপত্তার জন্য অধিকাংশই অমুসলমানদের দেশে বাস করতে চায় বলে মনে করেন তিনি।

তসলিমা নাসরিন তার ফেসবুক পেইজে লেখেন:

‘ভারতের প্রাক্তন উপরাষ্ট্রপতি হামিদ আনসারি বলেছেন ভারতের মুসলমানরা নিরাপত্তাহীনতায় ভোগে। যাদের গরুর ব্যবসা, তারা নিশ্চয়ই ভোগে। নিরাপত্তাহীনতায় গরিবরা ভোগে, দালিত এবং আদিবাসিদের অনেকে ভোগে। কিন্তু সমগ্র মুসলমান সম্প্রদায় নিরাপত্তাহীনতায় ভোগে, তা আমি মনে করি না। মুসলমানদের খুশি করার জন্য ভারতের প্রতিটি রাজনৈতিক দল তৎপর। মুসলমানরা ভোট ব্যাংক হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে স্বাধীনতার পর থেকেই। এদের জন্য সুযোগ সুবিধে প্রচুর । পশ্চিমবঙ্গে পুরোহিতদের নয়, পাদ্রিদের নয়, ইমামদের খামোকা টাকা দেওয়া হয় মাসে মাসে। হিন্দুরা মুসলমানের পিঠে কিল দিলে, হিন্দুদের পিঠে দু'কিল বসিয়ে দেওয়ার লোক ওদের মধ্যে আছে। সেক্যুলার হিন্দুরা মুসলমানের অধিকারের জন্য মুসলমানের চেয়েও বেশি চিৎকার করে।
সত্যি বলতে কী, মুসলমানদের নিরাপত্তা নেই পাকিস্তান, আফগানিস্তান, ইরান, ইরাক, সিরিয়া, সৌদি আরব, এমন কী বাংলাদেশেও। যেখানে গণতন্ত্র নেই, বাক স্বাধীনতা নেই , থাকলেও লোক দেখানো, যেখানে শরিয়া আইন আছে বা যেখানে রাষ্ট্রের ধর্ম ইসলাম, সেখানে কারও নিরাপত্তা থাকতে পারে না। বাংলাদেশ থেকে মুসলমানেরা ভারতে চলে যায়। সুযোগ পেলে অমুসলমানের দেশ ইউরোপ আমেরিকায় চলে যায়। ভারতের মুসলমানও ইউরোপ আমেরিকায় যেতে চায়। তারা কি বাংলাদেশ,পাকিস্তান, সৌদি আরব, ইরাক, আফগানিস্তানে স্থায়ীভাবে বাস করার স্বপ্ন কখনও দেখে ? না, মুসলমানেরা চায় না সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলমানের দেশে বাস করতে।নিরাপত্তার জন্য অধিকাংশই চায় অমুসলমানদের দেশে বাস করতে।’

প্রচ

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71