মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
মঙ্গলবার, ৭ই ফাল্গুন ১৪২৫
 
 
‘শুধু আনন্দের জন্য’ যৌনমিলনের বিরোধী ছিলেন মহাত্না গান্ধী
প্রকাশ: ১০:৩২ am ১৫-০৯-২০১৮ হালনাগাদ: ১০:৩২ am ১৫-০৯-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের নেতা মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধী চাইতেন - শুধু আনন্দের জন্য যৌনমিলন করাকে নারীরা যেন প্রতিরোধ করে। তার মতে নর-নারীর যৌনসম্পর্ক হবে শুধু সন্তান উৎপাদনের জন্য যতটুকু দরকার - ততটুকুই।

একজন আমেরিকান জন্মনিয়ন্ত্রণকর্মী এবং যৌন শিক্ষাবিদ মার্গারেট স্যাঙ্গারের সাথে ১৯৩৫ সালে গান্ধীর যে কথোপকথন হয়েছিল তার প্রকাশিত বিবরণ থেকে এসব জানা গেছে।

শুধু তা-ই নয়, গান্ধী নিজেই আত্মজীবনীতে লিখেছেন, তার পিতা যখন মারা যান - তখন তিনি তার স্ত্রীর সাথে যৌনমিলন করছিলেন বলে পিতার পাশে থাকতে পারেন নি - এই অপরাধবোধ তাকে তাড়া করেছিল বহু দিন।
 
সম্প্রতি গান্ধীর এক নতুন জীবনীগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে যা লিখেছেন ইতিহাসবিদ রামচন্দ্র গুহ। এ বইতে নারী অধিকার, যৌনতা এবং কৌমার্য বিষয়ে গান্ধীর ভাবনা উঠে এসেছে। মার্গারেট স্যাঙ্গারের সাথে গান্ধীর কথোপকথনের বিস্তারিত নোট নিয়েছিলেন গান্ধীর সচিব মহাদেব দেশাই।
 
তিনি লিখছেন, ‘মনে হচ্ছিল দু’জনেই একমত যে নারীর মুক্তি হওয়া উচিত, তার নিজের ভাগ্যের নিয়ন্তা হওয়া উচিত’। কিন্তু খুব দ্রুতই তাদের মধ্যে মতভেদ দেখা গেল। স্যাঙ্গার ১৯১৬ সালের নিউ ইয়র্কে খুলেছিলেন আমেরিকার প্রথম পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্র। তিনি মনে করতেন, জন্মনিরোধকই হচ্ছে নারীর মুক্তির সবচেয়ে নিরাপদ পথ। কিন্তু গান্ধী বললেন, পুরুষদের উচিত তার ‘জান্তব কামনা’কে সংযত করা, আর নারীদের উচিত তাদের স্বামীদের বাধা দেয়া।

গান্ধী বিয়ে করেছিলেন মাত্র ১৩ বছর বয়েসে। এরপর ৩৮ বছর বয়সে যখন তিনি চার সন্তানের পিতা, তখন তিনি ‘ব্রহ্মচর্য ’ জীবনযাপন শুরু করেন।
 
তিনি স্যাঙ্গারকে বললেন, যৌনক্রিয়া করা উচিত শুধু সন্তান উৎপাদনের জন্যই। সে বছর ভারতের ১৮টি শহরে সফর করেছিলেন স্যাঙ্গার, কথা বলেছিলেন ডাক্তার ও কর্মীদের সাথে। কথাবার্তার বিষয়বস্তু ছিল জন্ম নিয়ন্ত্রণ এবং নারীমুক্তি। তিনি মহারাষ্ট্র রাজ্যে গান্ধীর আশ্রমেও গিয়েছিলেন এবং সেখানেই তার সাথে স্যাঙ্গারের এই কৌতুহলোদ্দীপক আলোচনা হয়। সূএ: বিবিসি।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71