সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮
সোমবার, ৫ই অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
উপেন্দ্রকিশোর রায় চৌধুরী : বাংলা ছাপাখানার অগ্রপথিক
প্রকাশ: ১০:৪৫ am ১১-০৫-২০১৫ হালনাগাদ: ১০:৪৫ am ১১-০৫-২০১৫
 
 
 


বিখ্যাত বাঙালী শিশুসাহিত্যিক উপেন্দ্রকিশোর রায় চৌধুরীকে বাংলা ছাপাখানার অগ্রপথিকও বলা হয়। লেখক, চিত্রকর, প্রকাশক, শখের জ্যোতির্বিদ, বেহালাবাদক ও সুরকার হিসেবে তার খ্যাতি রয়েছে। তার হাত ধরে ১৯১৩ সালে বিখ্যাত শিশু পত্রিকা সন্দেশের যাত্রা শুরু হয়। বিখ্যাত শিশুসাহিত্যিক সুকুমার রায় তার ছেলে ও চলচ্চিত্রকার সত্যজিৎ রায় তার নাতি। বিখ্যাত এ ব্যক্তিত্ব ১৮৬৩ সালের এ দিনে (১০ মে) ময়মনসিংহ জেলার মসুয়া গ্রামে জম্মগ্রহণ করেন।
উপেন্দ্রকিশোরের বাবা ছিলেন সংস্কৃতজ্ঞ ও পণ্ডিত কালীনাথ রায় চৌধুরী। কালিনাথ রায় আরবী, ফার্সী ও সংস্কৃতে সুপণ্ডিত। উপেন্দ্রকিশোরের পৈত্রিক নাম ছিল কামদারঞ্জন রায়। পাঁচ বছরেরও কম বয়সে নিসন্তান আত্মীয় জমিদার হরিকিশোর রায়চৌধুরী তাকে দত্তক নেন ও নতুন নাম দেন উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী।
শৈশব থেকেই উপেন্দ্রকিশোরের পড়াশোনার চেয়ে বেশি অনুরাগ ছিল বাঁশি, বেহালা ও সঙ্গীতের প্রতি। ১৮৮০ সালে ময়মনসিংহ জেলা স্কুল থেকে বৃত্তিসহ এন্ট্রান্স পাস করেন। ১৮৮৪ সালে কলকাতার মেট্রোপলিটান ইনস্টিটিউট থেকে বিএ পাস করেন। ২১ বছর বয়সে বিএ পাস করার পর ছবি আঁকা শিখতে আরম্ভ করেন। ছাত্র থাকাকালীনই তিনি ছোটদের জন্যে লিখতে আরম্ভ করেন। সেই সময়কার সখা, সাথী, মুকুল ও জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ি থেকে প্রকাশিত ‘বালক’ পত্রিকায় তার লেখা প্রকাশ হয়। প্রথমদিকে প্রকাশিত লেখাগুলো ছিল জীববিজ্ঞান বিষয়ে। পরে চিত্র অলঙ্করণযুক্ত গল্প প্রকাশিত হয়।
যোগীন্দ্রনাথ সরকারের সিটি বুক সোসাইটি থেকে উপেন্দ্রকিশোরের প্রথম বই ‘ছেলেদের রামায়ণ’ প্রকাশিত হয়। এ বইটি বেশ সমাদৃত হয়। কিন্তু এর মুদ্রণ নিয়ে সন্তুষ্ঠ হতে পারেননি। তাই ১৮৮৫ সালে বিদেশ থেকে তখনকার দিনের আধুনিকতম মুদ্রণযন্ত্র আমদানি করেন। ৭ নম্বর শিবনারায়ণ দাস লেনে ইউ রায় এ্যান্ড সন্স নামে ছাপাখানা খোলেন। সেখানে একটি কক্ষে ছবি আঁকার স্টুডিও করেন এবং হাফটোন ব্লক প্রিন্টিং নিয়ে অনেক পরীক্ষা নিরীক্ষা করেন। ফটোগ্রাফী ও মুদ্রণ সম্বন্ধে উচ্চশিক্ষা লাভ করার জন্য ১৯১১ সালে বড় ছেলে সুকুমারকে ইংল্যান্ডে পাঠান।
উপেন্দ্রকিশোরের লেখা অন্যান্য বইয়ের মধ্যে উল্লেখযোগ্য- গুপি গাইন বাঘা বাইন, টুনটুনির বই, সেকালের কথা, বিবিধ প্রবন্ধ, গল্পমালা ও মহাভারতের গল্প। তার বইগুলো তখনকার দিনের মতো আজও সমান জনপ্রিয়। গুপি গাইন বাঘা বাইন অবলম্বনে সত্যজিৎ রায় চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন, যা তার অন্যতম কীর্তি।
উপেন্দ্রকিশোর ব্রাহ্ম সমাজের সদস্য ছিলেন। ১৮৮৬ সালে তার সঙ্গে সমাজ সংস্কারক ব্রাহ্মসমাজের দ্বারকানাথ গঙ্গোপাধ্যায়ের মেয়ে বিধুমুখীর বিয়ে হয়। এ দম্পতির তিন ছেলে ও তিন মেয়ে। ছেলেরা হলেন সুকুমার, সুবিনয় ও সুকোমল এবং মেয়েরা হলেন সুখলতা, পুণ্যলতা ও শান্তিলতা।
১৯১৫ সালের ২০ ডিসেম্বর উপেন্দ্রকিশোর গিরিডিতে পরলোকগমন করেন।
 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71