শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮
শনিবার, ৭ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
ঐতিহাসিক ৭ মার্চের আলোচনা সভায় প্রবাসী আ.লীগ নেতারা
ডেনমার্ক আ.লীগ এখন বিএনপি জামাত এজেন্ট মুক্ত
প্রকাশ: ১১:৪১ pm ১০-০৩-২০১৬ হালনাগাদ: ১১:৪২ pm ১০-০৩-২০১৬
 
 
 


নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রবাসী ডেনমার্ক আওয়ামীলীগের নেতারা বলেছেন, ডেনমার্ক আওয়ামীলীগ এখন বিএনপি জামাত এজেন্টমুক্ত। নব্য আওয়ামীলীগার,সুবিধাবাদীদের হাত থেকে দলকে রক্ষার জন্য, দলের নিবেদিত সকল নেতা কর্মীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছে ডেনমার্ক আওয়ামীলীগের সকল নেতৃবৃন্দ ।

স্থানীয় সময় গত সোমবার জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর  ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষে একআলোচনা সভায়  ডেনমার্কের আওয়ামীলীগের নেতারা এসব কথা বলেনে।

নেতারা দাবি করেছেন, তারা একশত ভাগ সফল হয়েছে বিএনপি জামাতের এজেন্ট মুক্ত ডেনমার্ক আওয়ামীলীগ করতে। গত দুই বছর ধরে অতি ছোট একটি সুবিধাবাদী গ্রুপ, বিএনপি জামাতের এজেন্ট হয়ে ডেনমার্ক আওয়ামীলীগে ঢুকে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করার চেষ্টা করা হয়েছিলো। দলের নিবেদিত নেতা কর্মিরা ওদের তাড়িয়ে দিয়েছ। ডেনমার্ক আওয়ামীলীগ এখন বিএনপি জামাত এজেন্ট মুক্ত।

তারা আরো বলেন, জাতির জনক হত্যার পুর্বে আমরা কেউ শত্রু মিত্র চিনতে পারিনি। দলের মধ্যে সুবিধাবাদী ঘাতক মোস্তাকপন্থীরা ঢুকে আওয়ামীলীগের চাইতেও তারা বড় আওয়ামীলীগার বনে গিয়েছিলেন। এজন্য দেশ এবং আওয়ামীলীগকে অনেক খেসারত দিতে হয়েছে। সেই একই ভুল বার বার করা যায় না। তাই, দলের পরীক্ষিত নেতা কর্মিদের নিয়ে দলকে এগিয়ে নিতে হবে।

এ প্রসঙ্গে ডেনমার্ক আওয়ামীলীগের সভাপতি এম এ লিঙ্কন মোল্লা বলেন, আওয়ামীলীগের নেতা কর্মিরা কোন লোভ লালসার জন্য দল করে না।বিএনপি জামাত এবং তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় দলের দুর্দিনে কিন্তু ওরা ডেনমার্কেই ছিলো, তখন কিন্তু কেউ দল করতে আসেনি বরং তখন উৎসব করে এক বিএনপির এজেন্ট খালেদার ভুয়া জন্মদিনের কেক কেটেছে। আজ আবার জিয়ার সৈনিক হয়ে গেছে। আমি বলবো, আমরা সফল হয়েছি, আমরা বিএনপি জামাতের এজেন্টদের  চিহ্নিত করতে পেরেছি।দলে ঢুকতে দেই নি, প্রিয় নেত্রীর কথা আমরা পালন করেছি। আমাদের দৃঢ়তার জন্য বিএনপি জামাতের এজেন্টরা পালিয়েছে। ঘরের ছেলে ঘরে ফিরে গেছে।

ডেনমার্ক আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাঃ বিদ্যুৎ বড়ুয়া বলেন, বিএনপি জামাতের চিহ্নিত এজেন্টদের ব্যাপারে আমরা সর্ব ইউরপিয়ান আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দদের সব সময় অবগত করেছি। তারা এখন সব কিছু জানেন। জননেত্রী শেখ হাসিনার আওয়ামীলীগে কোন দালালদের স্থান হবে না। আমরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শের পতাকা নিয়ে এগিয়ে যাবো।

সহ-সভাপতি আ ন ম আব্দুল খালেক বলেন, দৃঢ়তার সাথে বলতে চাই দেশ বিদেশে অনেক জায়গায় সুবিধাবাদী এবং বিএনপি জামাতের এজেন্টরা দলে ঢুকে ঝামেলা করছে একমাত্র ডেনমার্ক আওয়ামীলীগ আমরা শক্ত হাতে তা প্রতিরোধ করেছি।সহ.সভাপতি ইকবাল হোসেন মিঠূ বলেন, বন্যেরা বনে সুন্দর শিশুরা মায়ের কোলে, যারা এসেছিলো প্রতিরোধের মুখে তারা তাদের বিএনপি জামাত নামক মায়ের কোলে চলে গেছে।

সহ-সভাপতি জামাল আহম্মেদ বলেন, আমার দৃঢ় বিশ্বাস বিএনপি জামাত এজেন্টদের সাথে ভুল করে ২/৩জন যারা ছিলো, তারা এখন তাদের ভুল বুঝতে পারবেন। তাদের জন্য দরজা খোলা আছে, আমি তাদের দলে এসে কাজ করার আহবান জানাই।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাব্বির আহম্মেদ বলেন, আমাদের দুঃখ সর্ব  ইউরোপিয়ান আওয়ামীলীগের নেতাদের এতবার বলেছি, ওরা আওয়ামীলীগের কেউ না। ওরা বিএনপির আমলে খালেদার ভুয়া জন্মদিনের কেক কেটেছে, নেত্রী জেলে থাকা অবস্থায় নেত্রীর বিরোধীতা করেছে, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের  সময় সংস্কারবাদীদের সমর্থন কিংস পার্টি  করার জন্য চাঁদা তুলেছে।এখন আমাদের কথাই  ঠিক হলো।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সামি দাস বলেন, দলে আমাদের শক্ত অবস্থানের কারনে বিএনপি জামাতের এজেন্টরা বুঝতে পেরেছে তাদের রাজনীতি শেষ তারচেয়ে ঘরের ছেলে ঘরে যাওয়াই ভালো। আগামীতে ঐক্যবদ্ধভাবে এধরণের খুনি জিয়ার  সৈনিকদের দেশ বিদেশে প্রতিহত করা হবে।

সাংগঠনিক সম্পাদক মঞ্জুর আহম্মেদ লিমন বলেন, জিয়ার সৈনিকরা তো জিয়ার মতোই হবে, জিয়া নিজে গুপ্তচর ছিলেন তার সৈনিকরাও গুপ্তচর হয়ে দলে ঢুকার চেষ্টা করেছিলেন।
সাংগঠনিক সম্পাদক মঞ্জুর মোতালেব ভুইয়া বলেন, বিএনপি জামাতের এজেন্টদের বাদ দিয়ে সত্যিকারে যারা জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শ লালন করেন, তারা আসুন দলকে এগিয়ে নিই।

সাংগঠনিক বোরহানউদ্দিন বলেন, ডেনমার্ক আওয়ামীলীগ এখন অনেক শক্তিশালী ও ঐক্যবদ্ধ, বিএনপি জামাত তাদের অবৈধ টাকা দিয়ে এজেন্ট তৈরি করে আমাদের দলে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করার জন্য, আমাদের থেকে দুই একজনকে সাথে নিয়ে এই কাজ করে।আমাদের সার্বিকভাবে সতর্ক থাকতে হবে।

দপ্তর সম্পাদক হিল্লোল বড়ুয়া বলেন, আগামীতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, অন্যান্ন মন্ত্রী, এমপি বা দলীয় লোকজন যখনি ইউরোপ এসবে তাদের নিরাপত্তার ব্যাপারে সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দকে আরো কঠোর হওয়ার আহ্বান জানান।

অর্থ সম্পাদক কাউসার আহম্মেদ সুমন বলেন, বিএনপি জামাত সব সময় দেশ বিরোধী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত, তারা সব সময় ষড়যন্ত্রের রাজনীতি করে,জিয়ার শুনলে মানুষ আতঙ্কে থাকে। জিয়ার সৈনিক বলতে আমরা পাক বাহিনীকেই বুঝি।


ডেনমার্ক যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জামিল আক্তার কামরুল বলেন, আজ বিএনপি জামাত এজেন্টদের চেহারা উন্মোচিত হয়েছে।এতদিন আমরা বলেছি , এখন নিজেরাই জিয়ার সিপাই হিসাবে প্রচার করছে।

ডেনমার্ক  ছাত্রলীগের সভাপতি ইফতেখার সম্রাট বলেন, আমরা মবনে প্রানে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করি, আমরা বাংলাদেশের শত্রু বিএনপি জামাত শিবিরের এজেন্ট  নির্মূল করে দেশকে এগিয়ে নিবো।

এইবেলা ডটকম/আরকেএম
 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71