সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯
সোমবার, ৩রা আষাঢ় ১৪২৬
 
 
পাইকগাছায় আমন বীজ সংকট: দিশেহারা কৃষক
প্রকাশ: ০৫:২০ pm ১৮-০৭-২০১৭ হালনাগাদ: ০৫:২০ pm ১৮-০৭-২০১৭
 
মহানন্দ, খুলনা প্রতিনিধি :
 
 
 
 


খুলনার পাইকগাছায় চলতি আমন মৌসুমে বীজ সংকটে কৃষক দিশেহারা হয়ে পড়েছে। সরকারি বিএডিসি’র বীজ বাজারে মিলছে না। নেই বাজার মনিটরিং। 

চাষীদের অভিযোগ, এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে অসাধু ব্যবসায়ীরা কৃত্রিম সংকট দেখিয়ে কোম্পানীর বীজ দ্বিগুণ দামে বিক্রি করছে। দ্রুত বীজ সংকটের সমাধান না হলে আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা ব্যাহতের আশঙ্কা করছে সংশ্লিষ্টরা।

উপজেলা কৃষি সম্পসারণ অধিদপ্তরের দায়িত্বশীল কর্মকর্তাগণ জানিয়েছেন, চলতি আমন মৌসুমে ১০টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় ১৭ হাজার ৫শ হেক্টর জমিতে আমনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে এবং ৩৮৬ মেট্রিক টন বীজের চাহিদার বিপরীতে সরকারি বিএডিসি মাত্র ৫০ মেট্রিক টন ও কোম্পানীর দেড়শ মেট্রিক টনসহ মোট ২শ মেট্রিক টন বিভিন্ন প্রজাতির বীজ সরবরাহ করা হয়েছে। বিএডিসি’র ১০ কেজি বস্তা প্রতি ৪১০ ও কোম্পানীর বীজ ৩৪০ টাকা মূল্য নির্ধারণ রয়েছে। 

এদিকে বিভিন্ন ইউনিয়নের বীজ বঞ্চিত ভূক্তভোগী কৃষকদের অভিযোগ, বর্তমান বাজারে কোথাও কোনো প্রতিষ্ঠানের সরকারি বীজ নেই। এ সুযোগে ব্যবসায়ীরা কোম্পানীর বীজ কৃত্রিম সংকট দেখিয়ে ৩৪০ টাকার স্থলে ৯শ থেকে হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি করে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকরা বাজার মনিটিংয়ের দাবী জানিয়ে অভিযোগ করেছেন, চড়ামূল্য দিয়েও উপজেলা সদর সহ বিভিন্ন ইউনিয়নের ডিলারদের নিকট থেকে তারা কোনো বীজ পাচ্ছেন না।

পৌরসদরে ডিএডিসি ডিলার ব্যবসায়ী রামপদ পাল ও উত্তম কুমার সাধু বীজ সংকটের কথা স্বীকার করে জানিয়েছেন, চাহিদার তুলনায় সামান্য পরিমাণ বীজ সরবরাহ করা হয়েছে এবং গত আমন মৌসুমে বীজ বিক্রি না হওয়ায় তারা আমদানীকৃত বীজ ধান মিলে মাড়াই করে চাল বিক্রি করলেও ব্যাপক লোকসান গুনতে হয়েছে। এদিকে ভূক্তভোগী কৃষকরা সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করে অতিদ্রুত বীজ সমস্যার সমাধান না করলে আমনের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হবে না বলে জানিয়েছেন।

বাজার মনিটরিংয়ের কথা অস্বীকার করে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এএইচএম জাহাঙ্গীর আলম জানান, চহিদার বিপরীতে সরকার ১৯ শতাংশ আমন বীজ সরবরাহ করেছে। বাকি বীজ কৃষককে নিজ দায়িত্বে সংরক্ষিত অথবা বাজার থেকে সংগ্রহ করতে হয়। ধানের দাম বেশি পাওয়ায় চলতি মৌসুমে কৃষক অধিক জমিতে আমন ধানের আবাদ করছে। তবে কোনো ডিলার নির্ধারিত মূল্যের বেশি দামে বিক্রি করলে তার লাইসেন্স বাতিল সহ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71