সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮
সোমবার, ৯ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
রাস্তার মাঝে মরণ ফাঁদ : সমাধান চায় গ্রামবাসী
প্রকাশ: ০৫:৪৮ pm ০৫-০৯-২০১৭ হালনাগাদ: ০৯:২৪ pm ০৫-০৯-২০১৭
 
হবিগঞ্জ প্রতিনিধি :
 
 
 
 


নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের ঢাকা-সিলেট মহা সড়কের সাথে সংযুক্ত বেশ কয়েকটি গ্রামের একমাত্র রাস্তা ‘শাহ এ এম এস কিবরিয়া রোড’ বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে।

দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে স্কুল, কলেজের শিক্ষার্থীসহ দেওতৈল, দরবেশপুর দাউদপুর, রঘু দাউদপুর বোয়ালজুরা, কারখানা, বহরমপুর গ্রামসহ হাজার হাজার সাধারণ মানুষকে। 

রাস্তায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় সিএনজি, রিকশা এই রোড দিয়ে চলাচলের সময় যাত্রীদের নানারকম দুর্ঘটনার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। অভিযোগ রয়েছে, কয়েক বছর পূর্বে উক্ত সড়ক সংস্কারের কাজে ব্যাপক অনিয়ম দূর্নীতির মাধ্য দিয়ে প্রায় ৩৩ লক্ষ টাকা ব্যয়ে সংস্কার কাজ সম্পন্ন হলেও নিম্নমানের মালামাল ব্যবহার করায় কিছুদিন যেতে না যেতেই সড়কের অনেক স্থানে বড় বড় র্গতের সৃষ্টি হয়ে ৩ বছর ধরে ভাঙ্গা রাস্তা দিয়েই এলাকাবাসীকে এই সড়ক দিয়ে যাতায়াত করতে হয়।

সড়কটির বেহাল দশার দেখার যেন কেউ নেই। এর মধ্যে অল্প বৃষ্টি হলেই পানি জমে গর্ত গুলোতে কাদা, নর্দমা একাকার হয়ে সড়কটি যেন পুকুরে পরিনত হয়। গর্তের কারণে দূর্ঘটনা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রাণহানীসহ নানা সমস্যায় পরতে হচ্ছে সাধারন মানুষদেরকে। সাধারণ মানুষের পাশাপাশি চরম সংকটময় সময় খাটাচ্ছে আউশকান্দি র,প, উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের হাজার হাজার শিক্ষার্থীরা। 

একজন কলেজ ছাত্র জানান, আমাদের চলাচলের এই সড়কের এমন অবস্থা হয়েছে যেখানে কলেজে যেতে ১০ থেকে ১৫ মিনিটে লাগতো সেখানে এখন প্রায় ৪০ থেকে ৪৫মিনিটেরও বেশি সময় লাগে। সড়কের দশা বেহাল হওয়ায় আগের মতো গাড়ী পাওয়া যায়না, তাই অপেক্ষা করে সময় নষ্ট না করে আমরা পায়ে হেটেই কলেজ যাই। হেটে গিয়ে অনেকটা ক্লান্ত হয়ে যাই। যার কারনে ক্লাসে তেমন মনযোগ থাকে না। বিশেষ করে চরম বিপাকে পড়তে হয় পরীক্ষার সময়। কারণ পরীক্ষার নির্দিষ্ট সময়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত হওয়া যায়না।

নবীগঞ্জ উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী সৈয়দুর রহমানের সাথে একাধিক বার যোগাযোগ করা হলে তিনি তেমন কর্ণপাত করেননি । অবশেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ২০১৭-১৮ অর্থ বছরের বরাদ্দ পেলেই দ্রুতগতিতে রাস্তার সংস্কার কাজ শুরু হবে ডিসেম্বর এর ভিতরেই। 

স্থানীয়দের অভিযোগ, এলজিইডি প্রকৌশলী সৈয়দুর রহমানের যোগসাজসে সম্প্রতি সংস্কার কাজে এই সড়কটিতে পুকুর চুরির মতো ঘটনা ঘঠেছিল বলে তারা দাবী করেন। তাই রাস্তা মেরামতের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

এস/এসএম

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71