শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮
শনিবার, ৭ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে হিন্দু মহাজোটসহ সংখ্যালঘু সংগঠনের যৌথ সংবাদ সম্মেলন
প্রকাশ: ০৪:১৯ pm ০৪-০৮-২০১৭ হালনাগাদ: ০৬:১৯ pm ০৪-০৮-২০১৭
 
 
 


আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে হিন্দু মহাজোটসহ ১৭টি ধর্মীয়-জাতিগত সংখ্যালঘু সংগঠনের যৌথ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটিতে। আজ ০৪/০৮/২০১৭ ডিআরইউ তে দেশের সরকার, রাজনৈতিক দল ও জোট এবং নির্বাচন কমিশনের কাছে সংবাদ সম্মেলন থেকে ৫-দফা দাবী উপস্থাপন করেন সংগঠনের সমন্বয়কারী এ্যাড. রানাদাশ গুপ্ত। উপস্থাপনকৃত দাবিগুলো নিম্নরুপ :

১. কোন রাজনৈতিক দল বা জোট আগামী সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে এমন কাউকে মনোনয়ন দেবেন না যারা অতীতে বা বর্তমানে জনপ্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত হয়ে বা রাজনৈতিক নেতৃত্বে থেকে সংখ্যালঘু স্বার্থবিরোধী কোন প্রকার কর্মকান্ডে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষে জড়িত ছিলেন বা আছেন। এমন কাউকে নির্বাচনে প্রার্থী দেয়া হলে সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠী সে সব নির্বাচনী এলাকায় তাদের ভোটদানে বিরত থাকবে বা ভোট বর্জন করবে।

২. যে রাজনৈতিক দল বা জোট নির্বাচনী ইশতেহারে প্রাণের দাবী ঐতিহাসিক ৭দফার পক্ষে নির্বাচনী অংগীকার ঘোষণা করবে এবং সংখ্যালঘুদের স্বার্থ ও অধিকার নিশ্চিতকরণে সুস্পষ্ট প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করবে সে দল বা জোটের প্রতি সংখ্যালঘুদের পূর্ণ সমর্থন থাকবে।

৩. আদিবাসীদের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিতকরণসহ জনসংখ্যার আানুপাতিক হারে সংসদে ধর্মীয় জাতিগত সংখ্যালঘুদের আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিতকরণে রাজনৈতিক দল ও জোটসমূহকে দায়িত্ব নিতে হবে।

৪. নির্বাচনের পূর্বাপর ধর্মীয় জাতিগত সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। নির্বাচনে ধর্ম ও সাম্প্রদায়িকতার ব্যবহার, মন্দির, মসজিদ, গীর্জা, প্যাগোডাসহ ধর্মীয় সকল উপাসনালয়কে নির্বাচনী কর্মকান্ডে ব্যবহার, নির্বাচনী সভাসমূহে ধর্মীয় বিদ্বেষমূলক বক্তব্য প্রদান বা কোনরুপ প্রচার নিষিদ্ধকরণের পাশাপাশি তা ভঙ্গের দায়ে সরাসরি প্রার্থীর প্রার্থীতা বাতিল সহ অন্যুন তাকে একবছরের কারাদন্ড ও অর্থদন্ডের বিধান রেখে নির্বাচনকে নির্বাচনী আইনের যুগোপযোগী সংস্কার করতে হবে।

৫. নির্বাচনের পূর্বেই সরকারকে সংখ্যালঘু মন্ত্রনালয় ও জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠন, সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন প্রনয়ন, অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যর্পন আইনের যথাযথ বাস্তবায়ন, সমতলের আদিবাসীদের জন্যে ভূমি কমিশন গঠন, বর্ণবৈষম্য বিলোপ আইন প্রনয়ন এবং পার্বত্য ভূমিবিরোধ নিস্পপ্তি কমিশন আইনের বাস্তবায়নসহ পার্বত্য শান্তিচুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়নে রোডম্যাপ ঘোষণা করতে হবে। 

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটের সভাপতি ড. প্রভাস চন্দ্র রায়, নির্বাহী সভাপতি সুকৃতি কুমার মন্ডল, প্রধান সমন্বয়ক শ্যামল কুমার রায়, নির্বাহী মহাসচিব পলাশ কান্তি দে সহ অন্যান্য ১৬টি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এসএম

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71