eibela24.com
রবিবার, ১৮, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
মন্ত্রিসভায় খসড়া অনুমোদন
নারী অভিবাসীদের কল্যাণে ‘ওয়েজ আর্নার্স বোর্ড’ আইন
আপডেট: ০৭:১০ pm ০৭-১১-২০১৭
 
 


নারী অভিবাসীদের কল্যাণে বিশেষ উদ্যোগ নেওয়ার বিধান যুক্ত করে ‘ওয়েজ আর্নার্স বোর্ড আইন-২০১৭’-এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তাঁর কার্যালয়ে সোমবার অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। 

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের বলেন, প্রবাসী কল্যাণ বোর্ড আইন নামে মন্ত্রিসভায় তোলা হলেও ‘ওয়েজ আর্নার্স বোর্ড আইন’ নামে এর অনুমোদন হয়েছে। আগে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ তহবিল বিধিমালা-২০০২ দ্বারা পরিচালিত হতো। সেটিকে এখন আইনের আওতায় আনা হলো। আগে বিধি দ্বারা বোর্ড চললেও এখন আইনের মাধ্যমে চলবে। এই বোর্ডে ১৬ সদস্যের পরিচালনা পর্ষদ থাকবে। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব পদাধিকারবলে পর্ষদের সভাপতি। খসড়া আইনে নারী অভিবাসীদের জন্য একটি বিশেষ বিধান রাখা হয়েছে। বিদেশে কর্মরত কোনো নারী অভিবাসী কর্মী নির্যাতনের শিকার, দুর্ঘটনায় আহত, অসুস্থতা বা অন্য কোনো কারণে বিপদগ্রস্ত হলে তাকে উদ্ধার ও দেশে আনা, আইনগত ও চিকিত্সা সহায়তা দেওয়া, ক্ষতিপূরণ আদায়ের উদ্দেশ্যে দেশে-বিদেশে হেল্প ডেস্ক ও সেফ হোম পরিচালনা করবে বোর্ড।

দেশে প্রত্যাগত নারী অভিবাসী কর্মীদের সামাজিক ও অর্থনৈতিকভাবে পুনর্বাসন ও পুনঃপ্রতিষ্ঠার জন্য প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করা হবে বোর্ডের কাজ। এটা একটা স্পেশাল বিষয়, যা আইনে যুক্ত করা হয়েছে। প্রবাসীদের কল্যাণে প্রকল্প নেওয়া, বাস্তবায়নসহ বোর্ডকে ১২টি কাজ দেওয়া হয়েছে জানিয়ে মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, খসড়া আইন অনুযায়ী বোর্ড প্রবাসীদের মৃতদেহ দেশে আনা, দাফন-কাফন, প্রবাসীদের পরিবারকে সহায়তা দেওয়ার কাজ করবে। তিনি বলেন, নতুন এই আইন কার্যকর হলে পরিচালনা পর্ষদকে দুই মাসে একবার সভা করতে হবে। পর্ষদের ১৬ জনের মধ্যে নয়জন উপস্থিতিতে কোরাম হবে।


আরপি