eibela24.com
বুধবার, ১৯, সেপ্টেম্বর, ২০১৮
 

 
হিন্দুবাড়িতে হামলায় ‘চার ইন্ধনদাতা চিহ্নিত’: পুলিশ
আপডেট: ০৮:০৩ pm ১১-১১-২০১৭
 
 


রংপুরে ‘ধর্ম অবমাননার’ অভিযোগ তুলে হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ‘চার ইন্ধনদাতাকে চিহ্নিত’ করার দাবি করছে পুলিশ

শনিবার বিকালে রংপুরের এসপি মিজানুর রহমান এ তথ্য জানিয়ে বলেন, এদের একজনকে ইতিমধ্যে আটক করা হয়েছে।  

শুক্রবার রংপুরে হিন্দু বাড়িঘরে হামলা ও অগ্নিসংযোগ করে কয়েক হাজার মানুষ। এ সময় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে এক যুবক নিহত হন।

এসপি মিজানুর বলেন, “হামলার আগে শলেয়াশাহ এলাকায় মানববন্ধন চলাকালে জাতীয়তাবাদী ওলামাদলের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও রংপুর জেলা সভাপতি ইনামুল হক মাজেদি, সদর উপজেলা বিএনপির সদস্য মাসুদ রানা, সদরের খলেয়া ইউনিয়ন জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি ও শলেয়াশাহ জামে মসজিদের ইমাম সিরাজুল ইসলাম এবং খলেয়া ইউনিয়ন জামায়াতের সদস্য মোস্তাইন বিল্লাহ উস্কানিমূলক বক্তব্য দেন।

“পরে তাদের নেতৃত্বে জামায়াত-শিবির এ ঘটনা ঘটিয়েছে। তারাই হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলা, অগ্নিসংযোগ ও লুটের ইন্ধনদাতা।”  

তিনি আরও বলেন, ইন্ধনদাতাদের মধ্যে জামায়াত নেতা সিরাজুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে। অন্যদের বাড়িতে অভিযান চালালেও কাউকে পাওয়া যায়নি। 

এ ঘটনায় আটক ৫৩ জন ও আহতরা সকলেই স্থানীয় জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মী বলে এসপি মিজানুরের ভাষ্য।   
শনিবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে এসপি বলেন, “একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির লক্ষ্যেই তারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে।”

ভিএস