eibela24.com
রবিবার, ২৩, সেপ্টেম্বর, ২০১৮
 

 
মধ্যপ্রদেশে নিষিদ্ধ হলো ‘পদ্মাবতী’
আপডেট: ০৯:৩৭ pm ২০-১১-২০১৭
 
 


একের পর এক প্রতিবাদ। লাগাতার বিক্ষোভ। রাজস্থান, জয়পুর, যোধপুর থেকে সঞ্জয় লীলা বনশালির ‘পদ্মবতী’ নিয়ে প্রতিবাদের আগুন ছড়িয়ে পড়েছে মধ্যপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশে। ছবির মুক্তিকে আটকাতে একজোট হয়েছে করণি সেনা। বিক্ষোভে অংশ নিয়ে বিজেপির একাংশও। আর এর জেরেই রবিবার ছবির নির্মাতা ছবির মুক্তি পিছিয়ে দিল। যেখানে ১ ডিসেম্বর মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল এই ছবির, সেখানে পদ্মাবতীর মুক্তি ভাগ্য ঝুলে রইল নানা বিক্ষোভ।

আর এরই মাধে মধ্যপ্রদেশ সরকার জানিয়ে দিল কোনোভাবেই মধ্যপ্রদেশে দেখানো যাবে না বনশালির পদ্মাবতী। মুক্তির আগে গোটা মধ্যপ্রদেশে নিষিদ্ধ করা হল দীপিকা, রণবীর, শাহিদ অভিনীত বনশালির ম্যাগনাম ওপাস ‘পদ্মাবতী’। সোমবার মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান সিদ্ধান্তে ‘নিষিদ্ধ’ করা হল পদ্মাবতীকে।

‘পদ্মাবতী’ ছবি নিয়ে  প্রতিদিন অশান্তির আগুন ছড়িয়ে পড়ছে ভারতের নানা প্রান্তে। এই ছবির মুক্তি আটকানোর জন্য রাজস্থান থেকে শুরু করে উত্তরপ্রদেশ, মীরটে প্রতিবাদের ঝড়। আর এবার দীপিকা পাড়ুকোন ও ছবির পরিচালক সঞ্জয়লীলা বনশালির মুণ্ডুচ্ছেদের হুমকি দিল মীরাটের অখিল ভারতীয় ক্ষত্রিয় সংগঠনের প্রধান ঠাকুর অভিষেক সোম।

অভিষেকের কথায়, ‘রানি পদ্মাবতীর সাহসিকতাকে, তার সম্মানকে অক্ষুন্ন করেছেন পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনশালি।  তাই এই ছবির মুক্তি হওয়া উচিত নয়।  শুধু তাই নয়, দীপিকা ও বনশালিকে দেশ থেকে বের করে দেওয়া হোক। কেউ যদি দীপিকার মুণ্ডুচ্ছেদ করতে পারে তাহলে তাকে ৫ কোটি টাকা পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হবে।

রাজস্থানে পদ্মাবতী মুক্তি পেলে কেটে দেওয়া হবে দীপিকার নাক। জয়পুরে এক সাংবাদিক বৈঠকে বৃহস্পতিবার করণি সেনা প্রধান লোকেন্দ্র সিং হুমকি দেন দীপিকা পাড়ুকোনকে। আর সেই হুমকির জেরেই এবার বিশেষ নিরাপত্তা পেতে চলেছেন ছবির পদ্মাবতী দীপিকা পাড়ুকোন।

সঞ্জয়লীলা বনশালির ‘পদ্মাবতী’ ছবির মুক্তি যতই এগিয়ে আসছে, ততই যেন বিতর্কে পড়ছে বারুদ। ছবি মুক্তি নিয়ে যেখানে বার বার বনশালি নানা ভাবে বোঝাতে চেয়েছেন এই ছবিতে এমন কিছু নেই যা রাজপুত ইতিহাসকে বিকৃত করতে পারে।

এমনকী, সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে একটি ভিডিও আপলোড করে স্পষ্টই বনশালি বলেছিলেন, এই ছবিতে রানি পদ্মাবতীকে ঘিরে কোনও ধরণের বিতর্কীত দৃশ্য নেই।  তবে শুধুই বনশালি নয়, ছবির কাস্ট অর্থাৎ দীপিকা, শাহিদ ও রণবীর সিংও বার বার বোঝাতেই চেয়েছেন একথা।  তবুও যেন করণি সেনা সন্তুষ্টি হচ্ছে না।  আর তাই তো বার বার পদ্মাবতী ছবির মুক্তি আটকে দেওয়ার জন্য নানা ভাবে এগিয়ে করণি সেনা।

বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠকের মধ্যে দিয়ে করণি সেনা প্রধান লোকেন্দ্র সিংয়ের মন্তব্য নিয়ে ফের যেন উত্তপ্ত হয়ে উঠল পদ্মাবতী বিতর্ক।  এদিন লোকেন্দ্র সিং স্পষ্টই জানিয়ে দিলেন, পদ্মাবতী ছবি মুক্তি পেলে লক্ষ লক্ষ লোক প্রতিবাদে জমায়েত হবে। ভেঙে দেওয়া হবে সিনেমা হল। আর তাতেও যদি বনশালি এই ছবির মুক্তি না আটকায় তাহলে কেটে দেওয়া হবে দীপিকার নাক। এ
সাংবাদিক বৈঠকে করণি সেনা প্রধান লোকেন্দ্র সিং জানান, বনশালির পদ্মাবতী ছবি মুক্তি পেলে গোটা ভারতে বনধ ডাকা হবে।

তবে এই প্রথম নয়, পদ্মাবতী ছবির মুক্তি নিয়ে করণি সেনা ও বিজেপির বিক্ষোভ চলছেই। এর মধ্যেই বলিউড তারকারা একেএকে এসে দাঁড়াচ্ছেন সঞ্জয় লীলা বনশালীর পাশে। এবার সুশান্ত সিং রাজপুত ও সিদ্ধার্থ মালহোত্রা ছবির হয়ে সওয়াল করলেন। তারা জানালেন ছবি নিয়ে অযথা বিতর্ক হচ্ছে।

এটা পরিচালকের ক্ষেত্রে অনেকটাই স্বস্তির বিষয়। তবে আপাতত দীপিকা থেকে সঞ্জয় তাকিয়ে আছেন পয়লা ডিসেম্বরের দিকে। যেদিন মুক্তি পাওয়ার কথা পদ্মাবতীর।

এটা পরিচালকের ক্ষেত্রে অনেকটাই স্বস্তির বিষয়। তবে আপাতত দীপিকা থেকে সঞ্জয় তাকিয়ে আছেন পয়লা ডিসেম্বরের দিকে। যেদিন মুক্তি পাওয়ার কথা পদ্মাবতীর।

এখনও মুক্তির কোনও সবুজ সংকেত নেই। বরং উত্তর উত্তর বেড়েই চলেছে করণি সেনার প্রতিবাদ। ছবি মুক্তি যাতে না পায়, তা নিয়ে এককাট্টা তারা। এই বিতর্কের মধ্যেই ধীরে ধীরে বলিউড তারকারা পাশে দাঁড়াচ্ছেন সঞ্জয় লীলা বনশালীর। এবার ছবির সমর্থনে মুখ খুললেন সুশান্ত সিং রাজপুত।

পদ্মাবতী নিয়ে সওয়ার কললেন সিদ্ধার্থ মালহোত্রাও। তিনি জানলেন ছবি নিয়ে অযথা বিতর্ক হচ্ছে।

প্রতিবাদের মাঝেই বলিউড ধীরে ধীরে পদ্মবতীর হয়ে কথা বলছে। এটা পরিচালকের ক্ষেত্রে অনেকটাই স্বস্তির বিষয়। তবে আপাতত দীপিকা থেকে সঞ্জয় তাকিয়ে আছেন  ডিসেম্বরের দিকে। যেদিন মুক্তি পাওয়ার কথা পদ্মাবতীর।

নি এম/