eibela24.com
বৃহস্পতিবার, ১৫, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
অটিজমে আক্রান্ত শিশুদের পাশে দাঁড়াতে হবে
আপডেট: ০৪:৫৫ pm ২২-১২-২০১৭
 
 


ন্যাশনাল সেন্টার ফর অটিজম-এর ডিরেক্টর প্রফেসর সালমা বেগম বলেছেন, যাদের অটিজম আছে তারা সমাজেরই অংশ। তাদেরকে সার্বক্ষণিক তত্ত্বাবধানের মাধ্যমে সুস্থ করে তোলা সম্ভব। অটিজমে আক্রান্তরা মানসিক হতাশায় ভুগে যা আমরা বুঝতে পারি না। পৃথিবীতে তাদেরও সুন্দরভাবে বাঁচার অধিকার আছে। অটিজমের মত সামাজিক সমস্যাকে মানবিকতা এবং বুদ্ধিবৃত্তিকভাবে মোকাবেলা করে পাশে দাঁড়ালে তারাও দেশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠবে।

আপাসান ইন্টারন্যাশনাল-এর উদ্যোগে ‘‘ইন্ট্রুডাকশন টু হেলথ এন্ড সোশ্যাল কেয়ার: ট্রেইনিং এন্ড ডেভেলপমেন্ট” শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আপাসান ইন্টারন্যাশনাল-এর প্রধান নির্বাহী মাহমুদ হাসান এমবিই-এর সভাপতিত্বে সেমিনার বৃহস্পতিবার জিন্দাবাজারস্থ একটি অভিজাত রেস্টুরেন্টের কনফারেন্স হলে অনুষ্ঠিত হয়।

আপাসান-এর কান্ট্রি ডিরেক্টর শাহ আল মাসুদ রানার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য সৈয়দা জেবুন্নেসা হক। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আপাসান ইন্টারন্যাশনাল-এর প্রধান নির্বাহী মাহমুদ হাসান এমবিই। আ্যপাসেন-এর অটিজম বিষয়ক একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রজেক্ট উপস্থাপন করেন আপাসান-এর ট্রেইনিং এন্ড কোয়ালিটি ম্যানেজার জাকির হোসাইন পারভেজ।

এছাড়া অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, বিভিন্ন সরকারী এবং বেসরকারী সংস্থার প্রতিনিধিগণ অংশগ্রহণ করেন। উল্লেখ্য, ১৯৮০ সাল থেকে ইংল্যান্ডে আপাসান ইন্টারন্যাশনাল কাজ করে যাচ্ছে এবং ২০১২ সাল থেকে বাংলাদেশে কাজ করে যাচ্ছে। সমাজে বিশেষ বিশেষ বাচ্চাদেরকে মানসিক ও শিক্ষাগত দিক থেকে উন্নত করার লক্ষ্যে কাউন্সিলিংসহ সার্বিক উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন বিশিষ্ট সমাজসেবক জামিল চৌধুরী, সিএসআইড-এর প্রজেক্ট ম্যানেজার কেএম আবেদ উল্লাহ, আবুল কালাম আজাদ, স্কুল অব জয়-এর প্রতিষ্ঠাতা আব্দুল লতিফ প্রমুখ। এছাড়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি প্রফেসর সালমা বেগম বাংলাদেশে অটিজমে আক্রান্ত শিশুদেরকে নিয়ে কাজের ক্ষেত্রে সকল ধরনের সহযোগিতা করার জন্য আপাসান ইন্টারন্যাশনালকে আশ্বাস প্রদান করেন এবং আপাসান ইন্টারন্যাশনাল এর প্রধান নির্বাহী মাহমুদ হাসান এমবিই ভবিষ্যতে সিলেটে একটি অটিজম সেন্টার প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে তাঁর প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

এ/এসএম