eibela24.com
বুধবার, ২৬, সেপ্টেম্বর, ২০১৮
 

 
পদ্মা সেতুর আদলে বাণিজ্য মেলার মূল ফটক
আপডেট: ১০:২০ am ০১-০১-২০১৮
 
 


ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় গেলে পাওয়া যাবে স্বপ্নের পদ্মা সেতু! এবারের মূল ফটকের নকশা করা হয়েছে পদ্মা সেতুতে বসানো প্রথম স্প্যানের আদলে। মেলার যৌথ আয়োজক বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও এর অধীনস্ত সংস্থা রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।
 
গত কয়েক বছর বাণিজ্য মেলার প্রধান ফটক সাজানো হয়েছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হলের আদলে। এবার মূল ফটকে পরিবর্তন এনে দেশের ইতিবাচক চিত্র তুলে ধরার প্রয়াস থেকে ইপিবির এই সিদ্ধান্ত। এ বছর বড় পরিবর্তন এটাই।

এবারও রাজধানীর শেরে বাংলা নগরের গণপূর্ত বিভাগের ৩১ দশমিক ৫৩ একর জমিতে অনুষ্ঠিত হবে বাণিজ্য মেলা। সোমবার প্রথম দিন ১০টায় বাণিজ্য মেলা উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সঙ্গে থাকবেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

মাসব্যাপী ২৩তম বাণিজ্য মেলা চলবে ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত। আয়োজকরা জানিয়েছেন, সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা থাকবে মেলার মূল ফটক। প্রবেশ ফি ধরা হয়েছে বয়স্কদের ক্ষেত্রে ৩০ টাকা, অপ্রাপ্তবয়স্কদের জন্য ২০ টাকা। টিকেট কাউন্টার রয়েছে ৫০টি।

আয়োজকরা জানিয়েছেন, এ বছরও থাকবে বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়ন। এটি আরও তথ্যবহুল আর সমৃদ্ধ থাকবে। এর আয়তন হচ্ছে আগের তুলনায় দ্বিগুণ। বঙ্গবন্ধুর ওপর দেশের প্রথিতযশা চিত্রশিল্পীদের আঁকা ২৬টি চিত্রকর্ম থাকবে এতে।

দর্শনার্থীদের কাছে মেলার আকর্ষণ বাড়াতে ও নান্দনিক আবহ রাখতে এবার সুন্দরবনের আদলে একটি ইকো পার্ক করা হয়েছে। শিশুদের বিনোদনের থাকছে দুটি শিশু পার্ক। মায়েদের বিশ্রামের জন্য রয়েছে দুটি কেন্দ্র। নারী ও পুরুষদের জন্য ১২টি ব্লকে থাকবে ২৪টি বাথরুম। এছাড়া রয়েছে মসজিদ ও প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র। কার পার্কিংয়ের জন্য থাকছে বিশেষ ব্যবস্থা।

বিভিন্ন প্রজাতির মাছ ও পাখির পরিচিতির জন্য থাকবে পৃথক ফিশ অ্যাকুরিয়াম ও বার্ড অ্যাকুরিয়াম। দর্শনার্থীরা মূলমঞ্চে প্রতি সপ্তাহে দুই দিন উপভোগ করবেন লোকজ ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এছাড়া মেলায় ডিজিটাল টাচস্ক্রিনের মাধ্যমে চেনা যাবে নির্দিষ্ট স্টল ও প্যাভিলিয়ন। নিরাপত্তার জন্য সিসিটিভির মাধ্যমে মনিটর করা হবে পুরো মাঠ।

ইপিবি সূত্রে জানা গেছে, এবার বাংলাদেশ ছাড়াও অংশ নেবে ১৭টি দেশ। এগুলো হলো— ভারত, পাকিস্তান, যুক্তরাষ্ট্র, চীন, যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ কোরিয়া, মালয়েশিয়া, ইরান, থাইল্যান্ড, তুরস্ক, সিঙ্গাপুর, মরিশাস, ভিয়েতনাম, ভুটান, মালদ্বীপ, নেপাল ও হংকং। এই ১৭টি দেশের ৪৩টি স্টল থাকছে মেলায়।

রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো থেকে জানানো হয়, আবেদন করা প্রতিষ্ঠানগুলোর তথ্য যাচাই-বাছাই করা হয়েছে জেলা প্রশাসকদের মাধ্যমে। কোনও ভুয়া প্রতিষ্ঠানের নামে যেন স্টল বরাদ্দ হয়ে না যায় সেজন্য এই পন্থা।

বিএম/