eibela24.com
শুক্রবার, ১৬, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
খাল নিয়ে নোয়াখালীর আর দুঃখ থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী
আপডেট: ০২:৫৭ pm ০৪-০১-২০১৮
 
 


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘হোয়াংহো আর চীনের দুঃখ নাই। আমি চাই-খাল নিয়েও নোয়াখালীর আর দুঃখ হয়ে থাকবে না।’

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নোয়াখালী এলাকার খাল সংস্কার ও পুনঃখনন প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘নোয়াখালীর উপকূলীয় এলাকায় বাঁধ নির্মাণ করা হবে। এসব প্রকল্পের উন্নয়নের পাশাপাশি মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নও হবে। বাস্তবায়ন করা হবে নদী ড্রেজিংসহ খাল খনন কর্মসূচি’। তিনি আরও বলেন, ‘যখনই আমি নোয়াখালী গিয়েছি, তখনই আমি শুনেছি- নোয়াখালী খালের কথা। এই খালটা কেটে দিলে জলাবদ্ধতা দূর হবে। এটা আমাদের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি ছিল, আমরা খালটা করে দেব’।

৩২৪ কোটি ৯৮ লাখ টাকা ব্যয়ে এ প্রকল্পের আওতায় জলাবদ্ধতা নিরসন, বন্যানিয়ন্ত্রণ ও নিষ্কাশনব্যবস্থা উন্নয়নে নোয়াখালী খাল এবং জেলার ২৩টি খালের পুনঃখনন করা হবে। সেই সঙ্গে ১৬০ বর্গকিলোমিটার এলাকার পানি নিষ্কাশনব্যবস্থার উন্নয়ন করা হবে। এ প্রকল্পের আওতায় ১৮২ কিলোমিটার খাল পুনঃখনন, বামনি নদীতে ড্রেজিং, স্লুইচগেট, ক্লোজার ও রেগুলেটর নির্মাণ এবং ১০ কিলোমিটার নদীতীর সংরক্ষণ করা হবে।

এ প্রকল্পের বাস্তবায়ন হবে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সেনাবাহিনী যৌথভাবে প্রকল্পের বাস্তবায়ন করবে। ভিডিও কনফারেন্সের ঢাকা প্রান্তে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন নোয়াখালীর এমপি সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাওয়া নতুন মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু ও সেনাপ্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক।

আর নোয়াখালী প্রান্তে জেলা প্রশাসক মাহবুব আলম তালুকদারসহ স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এসকে