eibela24.com
সোমবার, ১৯, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
ক্ষয়ে যাওয়া ইতিহাস দিনাজপুরের রাজবাড়ি
আপডেট: ১১:২০ am ১১-০১-২০১৮
 
 


প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনের দিক থেকে দিনাজপুর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অবস্থানে রয়েছে। দিনাজপুর শহরটি পৌরাণিক নদী পুনর্ভবার তীরে অবস্থিত। পাল রাজবংশের সময়ে দিনাজপুর গোটা রাজশাহী বিভাগ ও ঢাকা জেলার অনেকটা বিস্তৃত ছিল। শুধু পাল আমলের নয়, সেন রাজত্বকালে নির্মিত অসংখ্য প্রত্নবস্তুর সন্ধান মিলেছে দিনাজপুরসহ বরেন্দ্র অঞ্চলের বিভিন্ন জায়গায়। তবে অযত্ন-অবহেলায় হারিয়ে যাচ্ছে এ অঞ্চলের বিভিন্ন ঐতিহাসিক স্থাপনা। হারিয়ে যেতে বসা স্থাপনাগুলোর মধ্যে শতাব্দী প্রাচীন রাজবাড়িটি অন্যতম। প্রায় ১৬ দশমিক ৪১ একর ভূমিজুড়ে অবস্থিত ঔপনিবেশিক ও প্রাক্‌-ঔপনিবেশিক যুগের রাজবাড়িটি ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। সেদিকে ভ্রুক্ষেপ নেই প্রশাসনের। রাজবাড়ির বহির্মহলের ধ্বংসাবশেষের ছবিগুলো সম্প্রতি ক্যামেরাবন্দী করা হয়েছে।

অযত্ন-অবহেলায় ধ্বংসের শেষ প্রান্তে রাজবাড়ির বিভিন্ন স্থাপনা।

অযত্ন-অবহেলায় ধ্বংসের শেষ প্রান্তে রাজবাড়ির বিভিন্ন স্থাপনা।


সরকার উদ্যোগ নিলে এখনো এই রাজবাড়িকে পর্যটকদের জন্য আকর্ষণীয় করে তোলা সম্ভব।

সরকার উদ্যোগ নিলে এখনো এই রাজবাড়িকে পর্যটকদের জন্য আকর্ষণীয় করে তোলা সম্ভব।


এখনো টিকে থাকা খিলানে ফুটে আছে নানা নান্দনিক অলংকরণ।

এখনো টিকে থাকা খিলানে ফুটে আছে নানা নান্দনিক অলংকরণ।


ভেঙে পড়ে আছে স্থাপনার বিভিন্ন অংশ। লতাপাতা ও গাছে ছেয়ে গেছে স্থাপনাগুলো।

ভেঙে পড়ে আছে স্থাপনার বিভিন্ন অংশ। লতাপাতা ও গাছে ছেয়ে গেছে স্থাপনাগুলো।


এই ধ্বংসস্তূপ দেখতেও দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লোক আসে।

এই ধ্বংসস্তূপ দেখতেও দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লোক আসে।


বিভিন্ন স্থাপনা ‘হানাবাড়ি’তে পরিণত হয়েছে।

বিভিন্ন স্থাপনা ‘হানাবাড়ি’তে পরিণত হয়েছে।

 

প্রচ