eibela24.com
সোমবার, ২৪, সেপ্টেম্বর, ২০১৮
 

 
নেতাজির তেলে ভাজার দোকান
আপডেট: ১১:৩০ pm ২৩-০১-২০১৮
 
 


১৯১৮ সালে ছোট্ট একটি ঘর থেকে যাত্রা শুরু হয়েছিল। আর দেখতে দেখতে তা একশ বছর অতিক্রমও করে ফেলল। বয়স বাড়লেও জনপ্রিয়তার ভাঁড়ারে কিন্তু এতটুকু ভাঁটা পড়েনি বিধানসরণীতে অবস্থিত লক্ষ্মী নারায়ণ সাউ অ্যান্ড সন্স নামে বিখ্যাত তেলেভাজার দোকানের। সাধারণ মানুষের কাছে এখনও আগের মতোই জনপ্রিয় তা।  তবে এই নামে নয়, দোকানটির পরিচয় কিন্তু ‘‌নেতাজির তেলে ভাজার দোকান’‌।

স্কটিশ চার্চ কলেজে পড়ার সময় এই দোকানটি থেকেই তেলেভাজা খেয়েছিলেন স্বয়ং সুভাষচন্দ্র বসু। দোকানের মালিক তখন খেদু সাউ। তিনিই দোকানটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। ১৯৪২ সাল থেকে আজ পর্যন্ত নেতাজির জন্মদিন উপলক্ষে ২৩ জানু্য়ারি বিনামূল্যে সবাইকে চপ খাওয়ানো হয় সেই জন্যই। সুভাষচন্দ্রের জন্মদিনে এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। নেতাজির দোকান থেকে চপ খেতে সকাল থেকেই রয়েছে ভিড়।

খেদু সাউ নেই। কিন্তু তাঁর নাতিরা মিলেই আপাতত দোকানটি চালাচ্ছেন। আগামীদিনেও এই পরম্পরা যে চলবে তা জানিয়েছেন, দোকানেরই এক মালিক এবং এলাকার পৌরপিতা মোহন কুমার গুপ্ত। সকাল থেকেই দোকান সংলগ্ন ক্লাবে বিভিন্ন অনুষ্ঠান চলেছে। ১৯৫৮ সালে ক্লাবটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। প্রত্যেকবছর নেতাজির জন্মদিনে এখানে অনুষ্ঠান হয়ে থাকে। এবারেও তাঁর ব্যতিক্রম ঘটেনি। মোহনকুমার জানান, ‘‌ বীরেন্দ্র মঠের প্রধান পুরোহিত এসে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন।

 এছাড়া এসেছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী ডঃ শশী পাঁজা। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিধায়ক সুদীপ্ত রায়, মেয়র পারিষদ অতীন ঘোষ, তারকনাথ চট্টোপাধ্যায়, কৃষ্ণপ্রসাদ সিং। এর পাশাপাশি সন্ধেবেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। নেতাজির জন্মদিনের জন্য আগামী চারদিন আরও নানা অনুষ্ঠান হবে’‌। তাঁর মতে, ‘‌আমরা এমন একজনের পুজো করি যিনি দেশের জন্য নিজের প্রাণ বিপন্ন করতেও পিছপা হননি।’‌

ন‌‌ি এম/