eibela24.com
মঙ্গলবার, ১১, ডিসেম্বর, ২০১৮
 

 
গাজীপুরে প্রতিমন্ত্রীর এপিএস সেলিমের নেতৃত্বে হিন্দুদের সম্পত্তি দখল
আপডেট: ১০:০৮ am ০৬-০২-২০১৮
 
 


গাজীপুরে থানায় জিডি এবং আদালতে মামলা করেও উত্তম কুমার দাস তার পৈত্রিক সম্পত্তি রক্ষা করতে পারেনি। বর্তমান সরকারের  মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এপিএস মাজেদুল ইসলাম সেলিম তার স্ত্রীর নামে ভুয়া দলিল করে উত্তম কুমার দাসের বসত বাড়ি দখল করে নিয়েছে।উত্তম কুমার এখন পৈতৃক ভিটে হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে পথে পথে ঘুরছে। উচ্ছেদ আতঙ্কে সারা হিন্দু গ্রাম এখন আতঙ্কগ্রস্ত। 

 

ঢাকার গাজীপুর জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার মূলগাঁও গ্রামের। গ্রামের প্রায় ৩০০ ঘর হিন্দু এখন প্রহর গুণছে উচ্ছেদের। ঘটনাটি প্রশাসনের নাকের ডগায় সংগঠিত হলেও উত্তম কুমারকে বাঁচাতে কেউ এগিয়ে আসেনি। উত্তম কুমার বিপদ বুঝে ঘটনার আগেই আইনের আশ্রয় নিয়ে থানায় জিডি এবং পরবর্তীতে গাজীপুর জেলা ৫ম জজ কোর্টে মামলা দায়ের করে রেখেছিলেন। কিন্ত আদালত এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থা কেউই উত্তম কুমার দাসকে বাঁচাতে পারেনি।

প্রতিমন্ত্রীর এপিএস সেলিমের সন্ত্রাসী বাহিনী ২৮ জানুয়ারি রাতের অন্ধকারে মুখে কাল কাপড় বেঁধে উত্তম কুমার দাসের বসত ঘর এবং একটি দোকান ভেঙে সেই জায়গার দখল নেয় এবং উত্তম দাসকে ভিটেমাটি ছাড়তে বাধ্য করে। উত্তম কুমার দাসের এই জায়গাটি মূলগাঁও গ্রামের প্রবেশদ্বার যা হিন্দু সংখ্যাগরিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত।

এই ঘটনার পর উত্তম কুমার দাস লিখিত আবেদন নিয়ে প্রতিমন্ত্রীর শরণাপন্ন হয়েছিলেন তারপরও তাকে উচ্ছেদ করা হয়। এতে এলাকার সর্বত্র হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে একটা আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। এই ঘটনার যখন সূত্রপাত হয় তখন সেলিমের সন্ত্রাসী বাহিনী এলাকায় গিয়ে বলেছিল রোহিঙ্গাদের মত হিন্দুদের দেশ থেকে তাড়াবো। 

প্রচ