eibela24.com
রবিবার, ১৮, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
মাধবপুরে সনাতন ধর্মালম্বীদের বাড়ীঘরে হামলা: মূর্তি ভাংচুর 
আপডেট: ০৯:৫৩ pm ২৫-০৩-২০১৮
 
 


হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলায় বিদ্যুৎয়ের লাইন টানাকে কেন্দ্র করে সনাতন ধর্মালম্বীদের বাড়ীতে হামলা ও মূর্তি ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় স্থানীয় এক ইউপি সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ।

রবিবার সকালে উপজেলার হাসিমপুর গ্রামে এ ঘটনা সংগঠিত হয়।

পুলিশ ও গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বহরা ইউনিয়নের হাসিমপুর গ্রামের হিন্দু পাড়ার ১৫টি বাড়ীতে বিদ্যুৎ লাইন টানার কাজ চলছিল। এক পর্যায়ে ওই গ্রামের দুইজন লোক তাদের বাধা দেয়। আলী হোসেন ও মিঠুন মিয়া নামক ২ ব্যাক্তি অন্যস্থান থেকে এসে সম্প্রতি হাসমিপুর গ্রামে বাড়ী নির্মাণ করে। তাদের জায়গার উপর দিয়ে হিন্দু পাড়ার ১৫টি বাড়ীতে বিদ্যুৎ লাইন টানতে তাদের আপওি ছিল।

গত শনিবার সকালে মনতলা তদন্ত ফাড়ীর এস আই কামরুল ইসলামের উপস্থিতিতে বিদ্যূৎ তারের লাইন টানা হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে পাশবর্তী গ্রামের আলী হোসেন মিঠুন  মিয়ার পক্ষ নিয়ে ১০/১২ জনের একদল যুবক বিদ্যূৎ তারের টানা লাইন একাধিকস্থানে কেটে যাওয়ার সময় হাসমিপুর গ্রামে সমরিণ সরকার ,বিশ্বজিৎ সরকার, নিখিল সরকার এবং গৌতম ভৌমিকের বাড়ীতে ঠাকুর ঘরে প্রবেশ করে মূর্তি ভাংচুর করে।

বিশ্বজিৎ সরকার জানান, ঘটনা সময় তারা কেউ বাড়ীতে ছিলেন না। বাড়ীর মহিলারা ভয় পেয়ে এদিক সেদিক ছুটাছুটি করে।

খবর পেয়ে মাধবপুর থানার ওসি চন্দন চক্রর্বতী ও স্থানীয় চেয়ারম্যান আরিফুল রহমান ঘটনাস্থল পরিদশর্ণ করেছে। এ সময় গ্রামবাসী  মেম্বার আব্দুল আওয়াল এ ঘটনায় সংশ্লষ্টিতা থাকার কথা জানালে পুলিশ তাকে আটক করে।

এ বিষয়ে এ এস পি রাজু আহম্মেদ জানিয়েছেন মেম্বার আব্দুল আওয়ালকে জজ্ঞিাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। দায়ী ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যাবস্থা নেয়া হবে । 

বহরা ইউনয়িন পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান ও গ্রামবাসী এ ঘটনায় দায়ী ব্যাক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেছেন ।

নি এম/বিপ্লব/ছনি